• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • SUVENDU ADHIKARI TO MOVE HIGH COURT FOR CANCELLING MLA POST OF MUKUL ROY DMG

Suvendu Adhikari on Mukul Roy: অধ্যক্ষের শুনানিতে আস্থা নেই, মুকুলের বিধায়ক পদ খারিজে মামলার ইঙ্গিত শুভেন্দুর

মুরুলের বিধায়ক পদ খারিজে মরিয়া শুভেন্দু৷

সংসদের অধিবেশন শুরু হওয়ার পরই বিধায়কদের নিয়ে দিল্লিতে গিয়ে মুকুল রায় ইস্যুতে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গে দেখা করে তাঁর হস্তক্ষেপ প্রার্থনা করতে পারেন শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari on Mukul Roy)৷

  • Share this:

#কলকাতা: দলত্যাগ বিরোধী আইনে মুকুল রায়ের সদস্যপদ বাতিলের দাবিতে বিধানসভার অধ্যক্ষের কাছে অভিযোগ করেছিলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী৷ এ দিন সেই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতেই শুভেন্দু অধিকারীকে প্রথমবার শুনানিতে ডেকেছিলেন বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়৷ মুকুলের বিরুদ্ধে বেশ কিছু তথ্য, প্রমাণ এ দিন অধ্যক্ষের কাছে জমা দিয়েছেন বিরোধী দলনেতা৷ আগামী ৩০ জুলাই ফের এই অভিযোগের শুনানি করবেন বিধানসভার অধ্যক্ষ৷ তবে বিরোধী দলনেতা এ দিন স্পষ্ট করে দিয়েছেন, বিষয়টি নিয়ে আদালতে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে বিজেপি৷  পাশাপাশি মুকুল ইস্যুকে এবার দিল্লি নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনাও করেছে বিজেপি শিবির৷

শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে এ দিন আরও দুই বিজেপি বিধায়ক অম্বিকা রায় ও সুদীপ মুখোপাধ্যায় অধ্যক্ষের সঙ্গে দেখা করেন৷ মুকুল রায় যে বিজেপি-র প্রতীকে নির্বাচিত হয়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন, সেই অভিযোগের সমর্থনে বেশ কিছু অডিও এবং ভিডিও ক্লিপিংস সহ বেশ কিছু নথি অধ্যক্ষের কাছে জমা দেওয়া হয়৷ তার মধ্যে মুকুল রায়ের দলবদলের অডিও ভিডিও ক্লিপিংসকেও হাতিয়ার করেছে বিজেপি৷ পাশাপাশি মুকুল রায়ের ট্যুইটার হ্যান্ডেলের ছবিও অধ্যক্ষকে জমা দেওয়া হয়৷

এ দিন বিধানসভায় শুনানি শেষে বেরিয়ে শুভেন্দু অধিকারী অবশ্য বলেন, 'গত দশ বছরে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় অনেক দলবদল হয়েছে৷ কিন্তু কোনও ক্ষেত্রেই অভিযোগের সুরাহা হয়নি৷ এটা বিলম্বিত করার কোনও মানে হয় না৷ আমার মনে হয় নিষ্পত্তিটা হওয়া দরকার৷ বাম পরিষদীয় দল দীপালি বিশ্বাসের বিরুদ্ধে দলত্যাগ বিরোধী আইনে অভিযোগ জানিয়েছিল৷ তার পর ২৩টা হিয়ারিং হয়েছে, আর একটা ভোট চলে এলো৷ কিন্তু সেই শুনানি শেষ হয়নি৷ তাই এই ব্যবস্থার উপরে আমাদের কোনও আস্থা নেই৷ আমরা আইনের আশ্রয় নেব৷' শুভেন্দু অবশ্য জানিয়েছেন, অধ্যক্ষ যতবার শুনানির জন্য ডাকবেন, তিনি আসবেন৷

বিরোধী দলনেতা জানিয়েছেন, মূলত দু'টি দাবি নিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হবেন তাঁরা৷ শুভেন্দু অধিকারী বলেন, 'আমাদের প্রথম দাবি থাকবে দলত্যাগ বিরোধী আইন পশ্চিমবঙ্গে কার্যকর করা হোক৷ তার জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য, প্রমাণ আমরা পেশ করব৷ আর আমাদের দ্বিতীয় দাবি থাকবে বিধানসভায় শুনানি শেষ করার জন্য নির্দিষ্ট সময় আদালত বেঁধে দিক৷'

তবে শুধু আইনি লড়াই নয়, মুকুল রায় ইস্যুকে এবার দিল্লি নিয়ে যাওয়ার তোড়জোড় করছেন বিরোধী দলনেতা৷ সূত্রের খবর সংসদের অধিবেশন শুরু হওয়ার পরই বিধায়কদের নিয়ে দিল্লিতে গিয়ে মুকুল রায় ইস্যুতে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গে দেখা করে তাঁর হস্তক্ষেপ প্রার্থনা করতে পারেন শুভেন্দু অধিকারী৷ পাশাপাশি বিষয়টি জাতীয় সংবাদমাধ্যমের নজরে আনতে সংসদের বাইরেও বিক্ষোভ দেখানোর পরিকল্পনা নিচ্ছে বিজেপি শিবির৷ তবে শুভেন্দুদের দিল্লি সফরের দিনক্ষণ এখনও জানা যায়নি৷ ফলে মুকুল রায় ইস্যুতে বিধানসভার অধ্যক্ষ এবং শাসক দলের উপরে চাপ বাড়ানোর জোড়া কৌশল নিয়েছে বিজেপি৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published: