Home /News /kolkata /
Suvendu Adhikari: বিধানসভায় থেকেও সর্বদল বৈঠকে অনুপস্থিত শুভেন্দু অধিকারী! BJP-র স্ট্র্যাটেজি নিয়ে ধন্দ

Suvendu Adhikari: বিধানসভায় থেকেও সর্বদল বৈঠকে অনুপস্থিত শুভেন্দু অধিকারী! BJP-র স্ট্র্যাটেজি নিয়ে ধন্দ

কেন অনুপস্থিত শুভেন্দু?

কেন অনুপস্থিত শুভেন্দু?

Suvendu Adhikari: সোমবার দুপুর ১.৩০ মিনিট নাগাদ শুরু হয় এই সর্বদলীয় বৈঠক। এই বৈঠক ও বিজনেস অ্যাডভাইজরি কমিটির বৈঠকের জন্যে বিজেপি ৬ জনের নাম পাঠায়। তাতে নাম ছিল বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর।

  • Share this:

#কলকাতা: আগামী ২ জুলাই শুরু হতে চলেছে বিধানসভার অধিবেশন। মমতা বন্দোপাধ্যায় তৃতীয় বারের জন্যে ক্ষমতায় আসার পরে প্রথম অধিবেশন বসবে। আগামী ৭ জুলাই পেশ হবে বাজেট। অধিবেশনের আগে আজ, সোমবার ডাকা হয় সর্বদলীয় বৈঠক। যদিও সেখানে অনুপস্থিত থাকলেন রাজ্য বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)।

এদিন দুপুর ১.৩০ মিনিট নাগাদ শুরু হয় এই সর্বদলীয় বৈঠক। এই বৈঠক ও বিজনেস অ্যাডভাইজরি কমিটির বৈঠকের জন্যে বিজেপি ৬ জনের নাম পাঠায়। তাতে নাম ছিল বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর। এদিন দুপুর ২'টা নাগাদ বিধানসভায় আসেন শুভেন্দু অধিকারী। যদিও স্পিকারের চেম্বারে না এসে তিনি বসে থাকেন নিজের ঘরে।

স্পিকারের চেম্বারে এদিন বৈঠকে যোগ দিতে চলে আসেন বিজেপির দুই বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পাল ও তাপসী মণ্ডল। কিন্তু তাদের নাম স্পিকারের কাছে না থাকায় তাদের অনুমতি দেওয়া হয়নি।

যদিও শুক্রবার নবগঠিত বিধানসভায় প্রথম সর্বদল বৈঠক বয়কট করতে পারে বিজেপি, এমন আশঙ্কা ছিলই। পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটি (পিএসি)-র চেয়ারম্যান পদের মনোনয়ন নিয়ে বিজেপি এবং শাসকদল তৃণমূলের যুযুধান আবহে গেরুয়া শিবিরের এই পদক্ষেপকে ‘তাৎপর্যপূর্ণ’ বলে মনে করছেন রাজ্য রাজনীতির কারবারিদের একাংশ। যদিও সরকারিভাবে বয়কট না করলেও যেভাবে নাম না পাঠানো দুই বিধায়ককে বৈঠকে পাঠায় বিজেপি, তা বয়কটেরই সামিল বলে মত রাজনৈতিক মহলের।

প্রসঙ্গত, পিএসি-র চেয়ারম্যান পদে সাধারণত বিরোধী দলের সদস্যকেই দেখা গিয়েছে বরাবর। তবে, এ নিয়ে কোনও নির্দিষ্ট নিয়ম নেই। গত বুধবার ওই পদে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন কৃষ্ণনগর উত্তর বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি বিধায়ক মুকুল রায়। তবে ওই মনোনয়ন ঘিরে সদ্য বিজেপি ছেড়ে জোড়াফুলে ফিরে আসা মুকুলকে কেন্দ্র করে বিজেপি এবং তৃণমূলের মধ্যে যুদ্ধের আবহ তৈরি হয়েছে। দলত্যাগ বিরোধী আইনের আওতায় মুকুলের বিধায়ক পদ খারিজ করার জন্য ইতিমধ্যেই স্পিকারের দ্বারস্থ হয়েছেন বিধানসভার বিরোধী দলনেতা তথা নন্দীগ্রামের বিজেপি বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী।

শুভেন্দু আগেই জানিয়েছেন,আগামী ১৬ জুলাই স্পিকারের কাছে মুকুলের বিধায়ক পদ খারিজের স্বপক্ষে তথ্য ও নথি তুলে ধরবেন তিনি। শুনানিতে উপস্থিত থাকবেন তিনি নিজে। যদিও খাতায়কলমে বিজেপি-র বিধায়ক হওয়ায় মুকুলের ওই পদে বসায় কোনও বাধা নেই। কারণ, তৃণমূলে ফিরে এলেও বিধায়ক পদ থেকে পদত্যাগ করেননি মুকুল। আর এই আবহেও বিজেপির কার্যত সর্বদল বৈঠক বয়কট নতুন করে জল্পনা তৈরি করলেন।

Published by:Suman Biswas
First published:

Tags: Suvendu Adhikari

পরবর্তী খবর