'ওরা ডেড বডি চাইছিল', মইদুল ইসলাম মিদ্দার মৃত্যুতে প্রতিক্রিয়া সুব্রতর

'ওরা ডেড বডি চাইছিল', মইদুল ইসলাম মিদ্দার মৃত্যুতে প্রতিক্রিয়া সুব্রতর
মইদুল ইসলাম মিদ্দার মৃত্যুতে পাল্টা অভিযোগ সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের৷

গত ১১ ফেব্রুয়ারি নবান্ন অভিযানে গিয়ে পুলিশের মারে গুরুতর আহত হন মইদুল আসলম মিদ্দা৷

  • Share this:

    #কলকাতা: সিপিএম চেয়েইছিল যে নবান্ন অভিযানে কারও মৃত্যু হোক৷ মইদুল ইসলাম মিদ্দার মৃত্যুর ঘটনায় এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ করলেন রাজ্যের পঞ্চায়েতমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়৷

    গত ১১ ফেব্রুয়ারি নবান্ন অভিযানের মিছিলে অংশ নিয়ে পুলিশের মারে আহত বাঁকুড়ার বাসিন্দা ডিওয়াইএফআই কর্মী মইদুল ইসলাম মিদ্দার এ দিন সকালে মৃত্যু হয়৷ তরতাজা যুবকের এ ভাবে মৃত্যুতে রাজ্য জুড়ে আলোড়ন ছড়িয়েছে৷ সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তীর অভিযোগ এই মৃত্যু আসলে খুন৷ যদিও সেই অভিযোগ অস্বীকার করে সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের পাল্টা অভিযোগ, যে ভাবে সেদিন গন্ডগোল পাকানোর চেষ্টা হয়েছিল, তাতে এই ধরনের দুর্ঘটনা অস্বাভাবিক নয়৷

    সুব্রতবাবু বলেন, 'যে কোনও মৃত্যু দুঃখজনক৷ যেভাবে গন্ডগোল পাকানোর চেষ্টা করা হয়েছিল তাতে এরকম দুর্ঘটনা ঘটাই স্বাভাবিক৷ ওরা ডেড বডি চাইছিল৷ আমি পঞ্চাশ বছর লড়াই করছি৷ সিপিএম নেতাদের আমি হাড়ে হাড়ে চিনি৷ পুলিশ সেদিন প্রায় কিছু করেনি৷ কেউ যদি আত্মহত্যা করে তাহলে কিছু বলার নেই৷' পঞ্চায়েতমন্ত্রীর অভিযোগ, সিপিএম নেতাদের প্ররোচনার ফলেই সেদিন মিছিলে নবান্ন অভিযানকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়েছিল৷


    সুব্রত মুখোপাধ্যায় এমন দাবি করলেও সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তীর অভিযোগ, 'মইদুলকে ঘিরে ধরে মেরেছে পুলিশ৷ এটা মৃত্যু নয়, এটা খুন৷ কত লাশ চাই সরকারের? একটা জ্বলজ্য়ান্ত ছেলেকে লাশ বানিয়ে দিল৷ মানুষ এর জবাব দেবে'

    এই ঘটনায় রাজ্য সরকারের তীব্র সমালোচনা করেছেন বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নান৷ কংগ্রেস নেতার অভিযোগ, 'একটা গণতান্ত্রিক আন্দোলনের উপরে অত্যাচার করে মৃত্যু ডেকে আনা স্বৈরচারী সরকারের কাজ৷ মানুষ কোনও প্রতিবাদ করতে পারবেন না৷ এই স্বৈরাচারী সরকারের বিরুদ্ধে আমাদের ঐক্যবদ্ধ লড়াই করতে হবে৷'

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: