corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা প্রতিরোধে কলকাতা পুরসভার প্রতিটি বরোতে বিশেষ দল

করোনা প্রতিরোধে কলকাতা পুরসভার প্রতিটি বরোতে বিশেষ দল

মেয়র থেকে মেয়র পারিষদ, আধিকারিক থেকে পুরসভার কর্মী... এমনকী যাঁরা পুরসভায় আসছেন, সেই সাধারণ নাগরিকদেরও কলকাতা পুরসভায় ঢোকার আগে হাত পরিষ্কার করতে হচ্ছে হ্যান্ড স্যানিটাইজর দিয়ে

  • Share this:

#কলকাতা: মেয়র থেকে মেয়র পারিষদ, আধিকারিক থেকে পুরসভার কর্মী... এমনকী যাঁরা পুরসভায় আসছেন, সেই সাধারণ নাগরিকদেরও কলকাতা পুরসভায় ঢোকার আগে হাত পরিষ্কার করতে হচ্ছে হ্যান্ড স্যানিটাইজর দিয়ে। বাদ যাচ্ছেন না সাংবাদিকরাও।

গতকালই মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশের পর জরুরি বৈঠকে বসে কলকাতা পুরসভা। সেই বৈঠকেই সিদ্ধান্ত হয়, করোনা প্রতিরোধে কলকাতা পুরসভা বেশ কিছু পদক্ষেপ করতে চলেছে। ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই পুরসভার প্রতিটি গেটে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

শহরকে পরিষ্কার রাখতে এবং করোনা প্রতিরোধে জঞ্জাল সাফাইয়ের কাজ দ্রুত করতে উদ্যোগ নিয়েছে কলকাতা পুরসভা। জঞ্জাল সাফাইয়ের  কর্মীদের মাস্ক দেওয়া হয়েছে। কলকাতা পুরসভার মেয়র ফিরহাদ হাকিম বলেন, সাফাই কর্মীদের স্পেশাল ইন্স্যুরেন্স-এর আওতায় আনা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ মেনেই কলকাতা পুরসভা পদক্ষেপ করছে করোনা প্রতিরোধে।

মেয়র আরও বলেন, 'মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ মেনে রাজনীতি নয় ,মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে করোনা আতঙ্কের মোকাবিলা করতে হবে।'

কলকাতা পুরসভার প্রধান কার্য্যালয়ে সবথেকে বেশি জমায়েত হয় জন্ম-মৃত্যু শংসাপত্রের দফতরে। প্রতিদিন অন্তত ১০০ জন্ম ও ১০০ মৃত্যু শংসাপত্র দেওয়া হয়। এর জন্য কলকাতা পুরসভার গেটের বাইরে রাত থেকে জমা হন আবেদনকারীরা। এই জমায়েত যাতে বেশি না হয় তার জন্য চারটি ভাগে ভাগ করা হচ্ছে।

ডেপুটি মেয়র ও মেয়র পরিষদ (স্বাস্থ্য) অতীন ঘোষ বলেন, বর্তমানে যেখানে শংসাপত্র দেওয়া হয় সেই বিভাগ ছাড়াও পুরসভার হেডকোয়ার্টারের এন ইউ এইচ এম দফতর, হগ বিল্ডিং-এর ব্যরো অফিস এবং হাডকো বিল্ডিং।

কলকাতা পুরসভার প্রতিটি জন্ম মৃত্যু সার্টিফিকেট এর অফিস ও প্রতিটি বরো অফিসে থার্মাল স্ক্যানার রাখা হবে শারীরিক পরীক্ষার জন্য। প্রতিটি বাজারে ক্রেতা ও বিক্রেতাদের জন্য স্যানিটাইজার এর ব্যবস্থা থাকবে।

পুরসভার ১৬ টি বরোর প্রতিটিতে থাকবে স্পেশাল টিম। প্রতিটি ওয়ার্ডের স্বাস্থ্যকর্মীরা রিপোর্ট দিলেই কোয়ারান্টিনে থাকা ব্যক্তিদের বিশেষ পর্যবেক্ষণে যাবে এই দল। এই দলের জন্য পার্সোনাল প্রোটেকশন ইকুইপমেন্ট আনছে কলকাতা পুরসভা। কলকাতা পুরসভার ডেপুটি মেয়র ও মেয়র পারিষদ (স্বাস্থ্য) অতীন ঘোষ বলেন, কিছুদিনের মধ্যেই পার্সোনাল প্রোটেকশন ইকুইপমেন্ট পড়ে প্রতিটি বরোতে এই টিম পর্যবেক্ষণ করবে।

BISWAJIT SAHA

Published by: Rukmini Mazumder
First published: March 18, 2020, 12:52 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर