স্টিল, চা, ডাল এবার উত্তর-পূর্ব ভারতে জলপথে পাঠানো শুরু হল, পণ্য যাবে ভায়া বাংলাদেশ  

স্টিল, চা, ডাল এবার উত্তর-পূর্ব ভারতে জলপথে পাঠানো শুরু হল, পণ্য যাবে ভায়া বাংলাদেশ  
মাত্র ৩ দিনে কলকাতার শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় বন্দর থেকে চট্টগ্রাম বন্দর পর্যন্ত যাবে এই জাহাজ।

মাত্র ৩ দিনে কলকাতার শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় বন্দর থেকে চট্টগ্রাম বন্দর পর্যন্ত যাবে এই জাহাজ।

  • Share this:

#কলকাতা: কলকাতা থেকে ত্রিপুরা চালু হয়ে গেল পণ্যবাহী জাহাজ চলাচল। মাত্র ৩ দিনে কলকাতার শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় বন্দর থেকে চট্টগ্রাম বন্দর পর্যন্ত যাবে এই জাহাজ। সেখান থেকে সড়কপথে পণ্য চলে যাবে ত্রিপুরা, অসম-সহ উত্তর-পূর্ব ভারতের একাধিক জায়গায়।

কেন্দ্রীয় জাহাজ মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, সড়কপথে পণ্য পৌছতে যেখানে ১০ দিন সময় লাগে, সেখানে জলপথে মাত্র ৩ দিনেই পৌছে যাওয়া সম্ভব। শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় বন্দর থেকে ত্রিপুরা পর্যন্ত সরবরাহ করা হবে স্টিল, ভোজ্য তেল, চাল, ডাল, চা, কাঠ সরবরাহ করা হবে। বন্দর সূত্রে জানানো হয়েছে, কলকাতা বন্দর থেকে কন্টেনার নেওয়ার পরে সেই জাহাজ যাবে হলদিয়ায়। সেখান থেকে আবারও কন্টেনার নেওয়া হবে। তারপর সেই জাহাজ ভারত-বাংলাদেশ প্রটোকল রুট ধরে চট্টগ্রাম চলে যাবে।

কেন্দ্রীয় জাহাজ মন্ত্রী মনসুখ মান্ডবিয়া জানিয়েছেন, "দীর্ঘদিন ধরে এই রুটে জাহাজ চলাচল করত। মাঝে তা বন্ধ হয়ে যায়। ২০১৫ সালে এই রুট চালু করা নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। ২০১৯ সালে চুক্তি সম্পাদন হয়। এবার চালু হয়ে গেল।" আপাতত স্থির হয়েছে ৩টি জাহাজ এই রুটে চলাচল করবে। চাহিদা বাড়লে এই  রুটেও জাহাজের সংখ্যা বাড়ানো হবে।


শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় বন্দরের চেয়ারম্যান বিনীত কুমার জানিয়েছেন,অর্থনৈতিক দিক থেকে অত্যন্ত লাভজনক রুট হয়ে উঠতে পারে এটি। কারণ উত্তর-পূর্ব ভারতের চাহিদা। একই সাথে বাংলাদেশের পন্য সহজে এখানেও চলে আসতে পারবে।" আপাতত টাটা স্টিল এবং একটি অ্যাগ্রো মার্কেটিং সংস্থার পণ্য পাঠানো শুরু হয়েছে। শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় বন্দর সূত্রে খবর, আগামী দিনে একাধিক সংস্থা পণ্য সরবরাহের জন্যে আগ্রহ দেখিয়েছে। বিশেষ করে যে সব সংস্থা ভোজ্য তেল পাঠাতে চায়। এছাড়া কলকাতা থেকেও একাধিক সংস্থা আবেদন করেছে। আপাতত ৩টি জাহাজে করে পণ্য সরবরাহ করা হবে। ধাপে ধাপে তা বাড়ানো হবে বলে জানানো হয়েছে।

আবীর ঘোষাল

Published by:Siddhartha Sarkar
First published:

লেটেস্ট খবর