• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • STATE WINS 2012 SSC CASE COURT GAVE IMPORTANT VERDICT ON MERIT LIST OF TEACHER RECRUITMENT ED

২০১২ এসএসসি মামলায় জয় রাজ্যের, শিক্ষক নিয়োগের মেধাতালিকা নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ রায় আদালতের

সবথেকে পুরোনো এসএসসি মামলার নিষ্পত্তি হল এদিন। হাইকোর্টের রায়ে ৭ বছর পর ক্লিনচিট পেলো কমিশন। হাজার খানেক পরীক্ষার্থীদের মামলা খারিজ হাইকোর্টে।

সবথেকে পুরোনো এসএসসি মামলার নিষ্পত্তি হল এদিন। হাইকোর্টের রায়ে ৭ বছর পর ক্লিনচিট পেলো কমিশন। হাজার খানেক পরীক্ষার্থীদের মামলা খারিজ হাইকোর্টে।

  • Share this:

#কলকাতা: বহু প্রতীক্ষিত শিক্ষক নিয়োগ মামলার নিষ্পত্তি হল বুধবার ৷ ২০১২ এসএসসি মামলায় জয় রাজ্যের। হাইকোর্টের রায়ে ৭ বছর পর ক্লিনচিট পেলো কমিশন। হাজার খানেক পরীক্ষার্থীদের মামলা খারিজ হাইকোর্টে। 'কম্বাইন্ড মেরিট লিস্ট' চূড়ান্ত নিয়োগ তালিকা নয়, কমিশনের যুক্তিকে মান্যতা দিয়ে রায় বিচারপতি রাজশেখর মান্থার। সবথেকে পুরোনো এসএসসি মামলার নিষ্পত্তি হল এদিন।

৩৬১৪০ জনের মেধা তালিকা আদতে নিয়োগ তালিকাই নয় এমনই যুক্তি বারবার দেখিয়ে এসেছে কমিশন। "ক্যাগের" রিপোর্ট অনুযায়ী নিয়োগ প্রক্রিয়ায় কিছু অস্বচ্ছতা আছে, তবে তা মামলাকারীদের পক্ষের যুক্তি ধরে নেওয়া ঠিক নয়।  এমনই পর্যবেক্ষণে জানান বিচারপতি রাজশেখর মান্থা।

২০১১ সালে রাজ্যে পালা বদলের পর  প্রথম বিষয় ভিত্তিক শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা ছিল ১২ তম রিজিওনাল লেভেল সিলেকশন টেস্ট। ২৯ ডিসেম্বর ২০১১ শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। ২৯ জুলাই ২০১২ হয় নিয়োগ পরীক্ষা। ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ প্রকাশিত হয় প্রায় ৩৬১৪০ জনের জোন ভিত্তিক কম্বাইন্ড মেরিট লিস্ট। ১২ তম রিজিওনাল লেভেল সিলেকশন টেস্ট চ্যালেঞ্জ করে মামলা হয় ২০১৩ সালে। সুপ্রিম কোর্ট ঘুরে মামলা ফেরে হাইকোর্টে। এই নিয়োগ প্রক্রিয়ায় প্রায় ৩০০০০ শিক্ষক ইতিমধ্যেই নিযুক্ত হয়েছেন। কম্বাইন্ড মেরিট লিস্টের বাকি ৬০০০ জনকে নিয়োগ দেওয়ার আবেদন নিয়ে মামলা দায়ের হয় কয়েক শো, হাজারেরও বেশি। সেই সব মামলার নিষ্পত্তি হল আজ বিচারপতি রাজশেখর মান্থা রায়ে।

কম্বাইন্ড মেরিট লিস্টে নাম থাকা প্রত্যেককে চাকরি দিতে হবে,  এমন দাবিতে দীর্ঘ দিন আন্দোলন হয়। বিকাশ ভবন,  এসএসসি অফিসে পৌঁছে যায় আন্দোলনের ঝাঁঝ। বাম নেতা বিমান বোস,  সূর্যকান্ত মিশ্রদেরও দেখা যায় আন্দোলনকারীদের পাশে। তবে সিঙ্গেল বেঞ্চের রায়ে অখুশি মামলাকারীরা। ডিভিশন বেঞ্চে যাওয়ার কথা জানিয়েছেন মামলাকারীদের আইনজীবী সুব্রত মুখোপাধ্যায়,  আইনজীবী শামিম আহমেদ। অর্থাৎ, সিঙ্গল বেঞ্চের রায়ের পরও মামলার জট কাটার সম্ভাবনা এখন নেই।

Arnab Hazra

Published by:Elina Datta
First published: