ডিএ নির্দেশিকার পুনর্বিবেচনা, রাজ্যের আবেদন গ্রহণ করল স্যাট

ছবিটি প্রতীকী

আজ অ্যাডভোকেট জেনারেলের সওয়ালের পর রাজ্যের আবেদন গ্রহণ করল স্যাট, আদালত অবমাননার মামলা থেকে আপাতত রেহাই রাজ্যের৷

  • Share this:

    #কলকাতা: রাজ্যের মহার্ঘ ভাতা নিয়ে নির্দেশের পুনর্বিবেচনা মামলা গ্রহণ স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুনাল বা স্যাট৷ স্যাট-এর ডিএ মামলার রায়ের পুনর্বিবেচনার আবেদন করেছিল রাজ্য সরকার৷  ৬৫টি দিন দেরি হয় রাজ্যের পুনর্বিবেচনার আবেদনে৷ আজ অ্যাডভোকেট জেনারেলের সওয়ালের পর রাজ্যের আবেদন গ্রহণ করল স্যাট, আদালত অবমাননার মামলা থেকে আপাতত রেহাই রাজ্যের৷

    ২৬ জুলাই স্যাট রাজ্যকে নির্দেশ দেয়, কেন্দ্রীয় সরকারের হারে রাজ্য কর্মীদের ডিএ মিটিয়ে দেওয়ার। এই মর্মে তিন মাসের মধ্যে নীতি নির্ধারণের জন্য রাজ্যকে নির্দেশ দেওয়া হয়৷ স্যাট-এর নির্দেশ ছিল, কেন্দ্রীয় হারেই ডিএ দিতে হবে রাজ্যকে ৷ ডিএ মামলায় রাজ্যের হার স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুনালে ৷ ষষ্ঠ কমিশন বা একবছরের মধ্যে মিটিয়ে দিতে হবে বকেয়া৷ একইসঙ্গে কেন্দ্রীয় হারে ডিএ দেওয়ার জন্য যে আইন আনা দরকার তার দায়িত্ব রাজ্যের উপরেই ছাড়ল স্যাট৷ স্বভাবতই এই রায়ে উচ্ছ্বসিত রাজ্য সরকারি কর্মীরা৷

    এ দিনের রায়ে SAT জানায়, কী ভাবে ডিএ দেবে তার আইন করা রাজ্যের দায়িত্ব৷ নগদ অথবা পিএফ-এর মাধ্যমে বকেয়া ডিএ দেওয়া যেতে পারে৷ কনজিউমার প্রাইস ইনডেক্স অর্থাৎ সর্বভারতীয় ক্রেতা মূল্য সূচক মেনে রাজ্য সরকারি কর্মীদের ডিএ দেওয়ার নির্দেশ দেন বিচারপতি রঞ্জিত কুমার বাগ ৷ এই রায় চ্যালেঞ্জ করতে পারে রাজ্য ৷

    গত বছর ৩১ অগাস্ট সরকারি কর্মীদের মহার্ঘভাতা আইনসিদ্ধ অধিকার এই দাবিতে সিলমোহর দেয় কলকাতা হাইকোর্ট৷ একইসঙ্গে আদালতের রায়ে ফের মামলা ফেরে স্যাটে৷ এর আগে ২০১৭ সালে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুনাল (স্যাট)-এ মহার্ঘভাতা নিয়ে মামলার শুনানির সময় রাজ্য সরকার জানিয়েছিল ডিএ সরকারি কর্মীদের অধিকার নয়। মহার্ঘ ভাতা দেওয়া না দেওয়া সরকারের ইচ্ছের অধীন ৷ সরকারের এই দাবিতে সিলমোহর দিয়েছিল স্যাটও ৷ এদিন সেই রায়ের থেকে ৩৬০ ডিগ্রি ঘুরে স্যাটের নয়া রায় কেন্দ্রের হারেই মহার্ঘ ভাতা দিতে হবে সরকারি কর্মচারীদের ৷

    First published: