করোনা ঠেকাতে ১ লক্ষ মাস্ক তৈরি করবে তন্তুজ, নির্দেশ দিল সরকার 

করোনা ঠেকাতে ১ লক্ষ মাস্ক তৈরি করবে তন্তুজ, নির্দেশ দিল সরকার 

তন্তুজর শো রুমগুলি থেকে ক্রেতারা ওই মাস্ক পাবেন। তাতে লাভবান হবে তন্তুজ। বাজার থেকে কম দামে উন্নত মাস্ক পাবেন বাসিন্দারা।

  • Share this:

Saradindu Ghosh

#কলকাতা: করোনা রুখতে মাস্ক তৈরি করছে তন্তুজ। প্রথম পর্যায়ে এক লক্ষ মাস্ক তৈরির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে রাজ্য সরকারের এই সংস্থাকে। অতি দ্রুত তা তৈরি করে বাজারে আনতে বলা হয়েছে। তন্তুজর শো রুমগুলি থেকে ক্রেতারা ওই মাস্ক পাবেন। তাতে লাভবান হবে তন্তুজ। বাজার থেকে কম দামে উন্নত মাস্ক পাবেন বাসিন্দারা। মঙ্গলবার পূর্ব বর্ধমানের কালনায় এই তথ্য জানান ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে নিরন্তর প্রচার চালাচ্ছে প্রশাসন। এ রাজ্যে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বন্ধ সিনেমা হল, অডিটোরিয়াম। মেলা থেকে খেলা বন্ধ সবই। জমায়েত, জন বহুল এলাকা এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। মুখে মাস্ক লাগিয়ে বাইরে যেতে বলা হচ্ছে। আতংকিত বাসিন্দারা হন্যে হয়ে মাস্ক খুঁজছেন। কিন্তু সেই মাস্ক উধাও বাজার থেকেই। এন নাইটি ফাইভ মাস্ক তো নেইই। সাধারণ মাস্কও দ্বিগুণ তিনগুন দামে বিক্রি হচ্ছে। তা কিনেই মুখ ঢাকতে বাধ্য হচ্ছেন পথ চলতি পুরুষ মহিলারা।

মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ তন্তুজের চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, মাস্ক মিলছে না এমন খবর পাচ্ছি। কোথাও কোথাও তা মজুত করে কালোবাজারির চেষ্টা হচ্ছে। সেজন্যই আমি ফোন করে তন্তুজকে এক লক্ষ মাস্ক তৈরি করতে বলেছি। খুব তাড়াতাড়ি তা বাজারে আনার ব্যবস্থা করতে বলা হয়েছে। ওই মাস্ক তন্তুজের শো রুমগুলিতে পাওয়া যাবে। চাহিদা থাকলে আরও মাস্ক তৈরি করা হবে। ইতিমধ্যেই প্রস্তুতকারকদের বরাত দিয়ে দেওয়া হয়েছে।

বাসিন্দারা বলছেন, শুধুই সতর্ক না করে মাস্ক যাতে পাওয়া যায় তা নিশ্চিত করুক প্রশাসন। পূর্ব বর্ধমানের জেলা শাসক বিজয় ভারতী বলেন, বাজারে মাস্কের ঘাটতি রয়েছে। চাহিদা মেটাতে রিকুইজিশন পাঠানো হয়েছে। তন্তুজের মাস্ক বাজারে এলে সেই ঘাটতি অনেকটাই মিটবে বলে মনে করছে প্রশাসন। সেই মাস্ক যাতে করোনা ভাইরাস রুখতে বিশেষ কার্যকরী হয় তা দেখতে বলা হয়েছে বলে মন্ত্রী জানিয়েছেন।

First published: March 18, 2020, 12:54 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर