corona virus btn
corona virus btn
Loading

দুর্দিনেও উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে তৎপরতা SSC-র

দুর্দিনেও উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে তৎপরতা SSC-র
এসএসসি শিক্ষক নিয়োগ

সম্প্রতি উচ্চ প্রাথমিকে চাকরিপ্রার্থীরা একাধিকবার শিক্ষামন্ত্রী ফেসবুক পোস্টে বাড়ি থেকে বসেই নিয়োগের দাবি নিয়ে পোস্ট করে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন।

  • Share this:

চার বছরেরও বেশি হয়ে গেল উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া থমকে রয়েছে। নিয়োগ জটিলতা কেটেও কাটছে না স্কুল সার্ভিস কমিশনের। তার উপরে গত মার্চ মাস থেকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এবং তার জেরে চলা লকডাউন এর দরুণ নিয়োগ প্রক্রিয়া আরও পিছিয়ে গেছে। এবার তাই লকডাউন চলাকালীন আবারো উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের তৎপরতা শুরু করল স্কুল সার্ভিস কমিশন।

এই পরিস্থিতিতেই যাতে উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের স্থগিতাদেশের শুনানি জরুরি ভিত্তিতে করা হয় তার জন্য হাইকোর্টের কাছে আবারও আবেদন রাখছে স্কুল সার্ভিস কমিশন। উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের প্রার্থীরা দুটি পর্যায় "প্রটেস্ট ফ্রম হোম" এই পদ্ধতিতে আন্দোলন চালিয়েছেন নিয়োগের দাবিতে।

শুধু তাই নয় শিক্ষামন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীর ফেসবুক পোস্টে নিয়োগের দাবি নিয়ে একাধিকবার ছবিসহ পোস্ট করেছেন নিয়োগের প্রার্থীরা। সম্প্রতি শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এসএসসি-কে তার জেরেই নিয়োগের মামলার দ্রুত নিষ্পত্তি করার নির্দেশ দিয়েছেন বলেই মনে করা হচ্ছে।

উচ্চ প্রাথমিকে এই মুহূর্তে শিক্ষক নিয়োগের শূন্য পদ রয়েছে ১৪ হাজারেরও বেশি।চার বছর ধরে নিয়োগের প্রক্রিয়া চললেও এখনও পর্যন্ত সেই নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করতে পারিনি স্কুল সার্ভিস কমিশন। মূলত আইনি জটিলতায় নিয়োগ-প্রক্রিয়া কার্যত থমকে রয়েছে। কিছুটা আইনি জটিলতা কাটিয়ে গত বছর পুজোর আগেই মেধাতালিকা প্রকাশ করে স্কুল সার্ভিস কমিশন। কিন্তু সেই মেধাতালিকায় গরমিল ও অস্বচ্ছতার অভিযোগ এনে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় এসএসসির চাকরিপ্রার্থীরা।

চাকরিপ্রার্থীদের করা মামলার উপর উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ প্রক্রিয়াতে স্থগিতাদেশ দেয় স্কুল সার্ভিস কমিশন।গত কয়েক মাস ধরেই সেই মামলার শুনানি চলছে হাইকোর্টে। মামলার শুনানি পর্ব অনেকটাই এগিয়ে গেছে বলে জানাচ্ছেন কমিশনের আধিকারিকরা। কিন্তু তারই মধ্যে লকডাউন এবং করো না ভাইরাসের সংক্রমণ পিছিয়ে দিয়েছে অনেকটাই মামলার শুনানি পর্ব।

সম্প্রতি উচ্চ প্রাথমিকে চাকরিপ্রার্থীরা একাধিকবার শিক্ষামন্ত্রী ফেসবুক পোস্টে বাড়ি থেকে বসেই নিয়োগের দাবি নিয়ে পোস্ট করে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন। যদিও ফেসবুক পোস্ট এর পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষা মন্ত্রী তার নিজের ফেসবুক পেজেই লিখেছিলেন আদালত ছেড়ে দিলেই রাজ্য নিয়োগ প্রক্রিয়া করতে প্রস্তুত।

চলতি সপ্তাহে আবারো উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের হাইকোর্টে বিচারাধীন মামলার প্রক্রিয়া দ্রুত নিষ্পত্তি করার জন্য এসএসসি কে নির্দেশ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী বলেই এসএসসি সূত্রে খবর। জানা গেছে স্কুল সার্ভিস কমিশনের তরফে আদালতের কাছে আবেদন জানানো হবে দীর্ঘদিন ধরে আটকে রয়েছে এই নিয়োগ প্রক্রিয়া। অবিলম্বে স্থগিতাদেশ তুলে যাতে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করতে দেওয়া হয় সেই বিষয়ে প্রয়োজনীয় আবেদন হাইকোর্টের কাছে রাখা হবে স্কুল সার্ভিস কমিশনের তরফে। যদিও এই বিষয়ে কোন মন্তব্য করতে চাইনি স্কুল সার্ভিস কমিশনের কোন আধিকারিক।

Published by: Arindam Gupta
First published: May 16, 2020, 1:24 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर