• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • SSC৷ Upper Primary Recruitment: আরও ৫০০০ প্রার্থীর শুনানি বাকি! উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ নিয়ে কী ভাবছে এসএসসি?

SSC৷ Upper Primary Recruitment: আরও ৫০০০ প্রার্থীর শুনানি বাকি! উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ নিয়ে কী ভাবছে এসএসসি?

দ্রুত অভিযোগের শুনানি শেষ করতে চায় কমিশন৷

দ্রুত অভিযোগের শুনানি শেষ করতে চায় কমিশন৷

ডিসেম্বরের মধ্যেই কে কেস টু কেস শুনানি পর্ব শেষ করা সম্ভব হবে বলে আশাবাদী স্কুল সার্ভিস কমিশন (SSC৷ Upper Primary Recruitment)।

  • Share this:

#কলকাতা: চলতি বছরেও যে উচ্চ প্রাথমিকের নিয়োগ (Upper Primary Recruitment) প্রক্রিয়া কার্যত শেষ হচ্ছে না তা ইতিমধ্যেই স্পষ্ট (SSC)। কিন্তু ডিসেম্বরের মধ্যেই উচ্চমাধ্যমিকের চাকরিপ্রার্থীদের অভিযোগের নিষ্পত্তি শেষ করে দেওয়া হবে বলে আশাবাদী স্কুল সার্ভিস কমিশন।

কমিশন (SSC) সূত্রে খবর এখনো প্রায় পাঁচ হাজার চাকরিপ্রার্থীর নিষ্পত্তি করার প্রক্রিয়া বাকি রয়েছে। ইতিমধ্যেই গত ৮ অক্টোবর পর্যন্ত প্রায় ১৩ হাজার চাকরিপ্রার্থীদের অভিযোগের নিষ্পত্তি করার প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। ৩০  নভেম্বর পর্যন্ত আরও প্রায় ১২০০ চাকরি প্রার্থীর তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। সে ক্ষেত্রে কমিশনের আশা, হাইকোর্টের সাম্প্রতিক রায়ের পর ডিসেম্বরের মধ্যেই অভিযোগের নিষ্পত্তি করার প্রক্রিয়া শেষ হয়ে যাবে।

আরও পড়ুন: সৈনিক স্কুলে শিক্ষক ও অন্যান্য পদে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ, বিশদে জানুন

এখনও পর্যন্ত মোট ছয় দফায় অভিযোগের নিষ্পত্তি করার প্রক্রিয়া করেছে কমিশন। মোট অভিযোগ ১৮ হাজারেরও বেশি জমা পড়েছে বলে কমিশন সূত্রে খবর। সে ক্ষেত্রে এবারে যাঁদের অভিযোগের নিষ্পত্তি করার প্রক্রিয়া হবে, সেই অভিযোগগুলি যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলেই কমিশন সূত্রে খবর। কারণ এই তালিকায় আগেরবারের মেধা তালিকায় স্থান পাওয়া চাকরিপ্রার্থীদের বাদ পড়ার অভিযোগ রয়েছে। কমিশন সূত্রে খবর ডিসেম্বরের মধ্যে পুরোপুরি নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করে দিলে সে ক্ষেত্রে হাইকোর্টে তারপর নিজেদের মতামত জানাবে তারা। তার পর হাইকোর্টের তরফে সবুজ সঙ্কেত পেলেই উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ সংক্রান্ত মেধাতালিকা প্রকাশ করা সম্ভব হবে।

আরও পড়ুন: স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানে গবেষণার সুযোগ! যোগ্যতা স্নাতকোত্তর, কী ভাবে আবেদন করবেন?

প্রসঙ্গত সাত বছরের বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ প্রক্রিয়া এখনও আইনি জটিলতায় আটকে। একবার মেধাতালিকা প্রকাশ করেও অস্বচ্ছতার অভিযোগে সেই মেধা তালিকা বাতিল করে দেয় হাইকোর্ট। শুধু তাই নয় চাকরিপ্রার্থীদের পরপর দু' বার ইন্টারভিউ দিতে হয়েছে। হাইকোর্টের নির্দেশে দু'বার ইন্টারভিউ দিতে হয়েছে চাকরিপ্রার্থীদের। পাশাপাশি হাইকোর্টের নির্দেশ মতোই কমিশনকে চাকরিপ্রার্থীদের অভিযোগও নিতে হয়েছে।

কমিশন সূত্রে খবর ১৮ হাজারেরও বেশি অভিযোগ কমিশনে জমা পড়েছে। প্রসঙ্গত যুগ্ম সচিব পর্যায়ের আধিকারিকদের নিয়ে অভিযোগের নিষ্পত্তি করতে কমিশনের যথেষ্ট সময় লেগেছিল। প্রথমত স্কুল শিক্ষা দপ্তর থেকে পর্যাপ্ত সংখ্যায় যুগ্ম সচিবদের পাওয়া যাবে কি না তা নিয়ে চিন্তায় ছিলেন কমিশনের কর্তারা। হাইকোর্টের কাছে অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি লেভেলের আধিকারিকদের নিয়ে কেস টু কেস শুনানি করার আবেদনও জানায় কমিশন। হাইকোর্ট ১৫ সপ্তাহ সময় দিলেও কমিশনের আ শা, ডিসেম্বরের মধ্যেই পুরো অভিযোগের নিষ্পত্তি করা সম্ভব।

জানুয়ারি মাস থেকে নতুন শিক্ষা বর্ষের ক্লাস শুরু। ইতিমধ্যেই রাজ্যজুড়ে মঙ্গলবার থেকে স্কুল খুলছে। সব ঠিকঠাক থাকলে আগামী বছরের জানুয়ারি মাস থেকে ধাপে ধাপে প্রথম শ্রেণি থেকে স্কুল খুলে দিতে পারে রাজ্য সরকার। সেক্ষেত্রে স্কুল খুললে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের প্রয়োজনীয়তা ফের তৈরি হবে। তাই উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় ফের নতুন করে গতি আনতে চাইছে এসএসসি। আর তার জন্যই এবার বাকি পড়ে থাকা অভিযোগগুলির দ্রুত নিষ্পত্তি করার পথেই হাঁটছে কমিশন।

Published by:Debamoy Ghosh
First published: