corona virus btn
corona virus btn
Loading

NEET পরীক্ষার্থীদের জন্যই ১৩ সেপ্টেম্বর মেট্রো চলবে, জানাল মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষ

NEET পরীক্ষার্থীদের জন্যই ১৩ সেপ্টেম্বর মেট্রো চলবে, জানাল মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষ
ফাইল ছবি

১৩ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টা থেকে মেট্রো পরিষেবা শুরু হবে। চলবে সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত।

  • Share this:

#কলকাতা: NEET পরীক্ষার্থীদের সুবিধার্থে ১৩ সেপ্টেম্বর মেট্রো চলবে। বুধবার প্রেস বিবৃতি দিয়ে জানাল কলকাতা মেট্রো কর্তৃপক্ষ। তবে এ দিন সাধারণ যাত্রীরা মেট্রোয় উঠতে পারবেন না। শুধুমাত্র পরীক্ষার্থী এবং তাঁদের অভিভাবকেরা এই সুবিধা নিতে পারবেন। সাধারণের জন্য পরিষেবা চালু হবে ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে।

মেট্রো কর্তৃপক্ষের তরফে দেওয়া বিবৃতি অনুযায়ী, ১৩ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টা থেকে মেট্রো পরিষেবা শুরু হবে। চলবে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত। অর্থাৎ, নোয়াপাড়া এবং কবি সুভাষ দু'টি স্টেশন থেকে শেষ মেট্রো ছাড়বে সন্ধ্যা ৭টায়।  দিনভর ৬৬টি রেক চালান হবে। তারমধ্যে ৩৩টি আপ এবং ৩৩টি ডাউন লাইনে।

১৫ মিনিট পর পর মেট্রো চালানোর সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে পরীক্ষার্থীদের সুবিধার্থে। তবে এ দিন কোনও টোকেন দেওয়া হবে না। প্রিন্টেড কার্ড টিকিট ইস্যু করা হবে পরীক্ষার্থী ও তাদের পরিবারের সদস্যদের জন্য। যদিও সেই টিকিট মিলবে অ্যাডমিট কার্ড দেখানোর পরে। মেট্রোর গেটে পরীক্ষার্থীর অ্যাডমিট কার্ড যাচাই করা হবে, তারপরেই স্টেশনে প্রবেশের অনুমতি মিলবে।

প্রসঙ্গত, ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে সাধারণের জন্য মেট্রো পরিষেবা। সেদিন থেকে মেট্রো চলবে সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। দু'প্রান্ত থেকেই শেষ মেট্রো ছাড়বে সন্ধ্যা ৭টায়। যে সব স্টেশন কন্টেইনমেট এলাকার মধ্যে পড়বে, সেই সব স্টেশন বন্ধ থাকবে। রবিবার কোনও মেট্রো চলবে না। অর্থাৎ বন্ধ থাকবে পরিষেবা। মেট্রো প্রতিটি প্ল্যাটফর্মে ২০ সেকেন্ডের বদলে ৩০ সেকেন্ড দাঁড়াবে। রেক স্যানিটাইজ করার পর তবেই চালানো হবে। যে সমস্ত সিটে ক্রস চিহ্ন দেওয়া থাকবে সেখানে কেউ বসবেন না। বুধবার গাইডলাইন প্রকাশ করল কলকাতা মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষ।

মেট্রো রেলের ওয়েবসাইট বা পথদিশা অ্যাপ থেকে মিলবে ই-পাস। ই-পাস ১২ ঘন্টা আগে বুকিং করা যাবে। রাজ্য পুলিশ ও আরপিএফ কো-অর্ডিনেট করে ই-পাস চেক করে যাত্রীদের স্টেশনে প্রবেশের অনুমতি দেবে। মেট্রো অফিসিয়ালরা আই কার্ড দেখিয়ে স্টেশনে প্রবেশ করে ই-পাস সংগ্রহ করবেন। ঠিকাদার সংস্থার কর্মীদের ভেতরে প্রবেশের বিশেষ অনুমতি দেওয়া হবে। তাঁদের ক্ষেত্রে ই-পাসের প্রয়োজন হবে না৷ টোকেন ইস্যু হবে না। শুধুমাত্র স্মার্ট কার্ড দেওয়া হবে। স্মার্ট কার্ড দেওয়ার জন্যে বুকিং কাউন্টার খোলা থাকবে।

পাশাপাশি, যাত্রীদের থার্মাল স্ক্রিনিংয়ের পরেই স্টেশনে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে। আরোগ্য সেতু অ্যাপ ডাউনলোড করতে বলা হয়েছে। জ্বর, সর্দি, কাশি থাকলে স্টেশনে আসা যাবে না। মাস্ক পড়া, নাক ও মুখ ঢেকে রাখা বাধ্যতামূলক। লিফটে মাত্র ৩ জন উঠতে পারবেন। স্টেশনে থুতু ফেললেই মোটা টাকা জরিমানা করা হবে। মাটির নীচে স্টেশন থাকলে সেখানে খাবার ও পানীয়ের দোকান বন্ধ থাকবে। মাটির ওপরের স্টেশন থাকলে তা খোলা থাকবে। যথাযথ স্যানিটাইজ করে প্রতিটি দোকান। স্টেশন সুপারিন্টেন্ডেন্ট ঘরে ২ জনের বেশি থাকা যাবে না। অ্যাপ্রন ও ক্যাপ পড়ে থাকতে হবে হাউজ কিপিং সদস্যদের।

Published by: Shubhagata Dey
First published: September 9, 2020, 6:40 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर