কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

পদ্মার ইলিশের সঙ্গে রসুন-নারকেল বা আনারস! সম্পূর্ণ সুরক্ষার কথা মাথায় রেখেই নতুন ডিশ সাজাল আহেলী

পদ্মার ইলিশের সঙ্গে রসুন-নারকেল বা আনারস! সম্পূর্ণ সুরক্ষার কথা মাথায় রেখেই নতুন ডিশ সাজাল আহেলী

বাঙালি আহারের জন্য বিখ্যাত ও পুরনো রেস্তোরাঁ আহেলীতে আবার সাজানো হয়েছে থালা যাতে বিশেষ ভাবে গুরুত্ব পাচ্ছে রকমারি ইলিশের প্রিপারেশন!

  • Share this:

#কলকাতা: বাজারে এসেছে ঝাঁকে ঝাঁকে পদ্মার ইলিশ৷ আর সেই ইলিশ দিয়েই হেঁশেলে ঝড় তুলল আহেলী! বাঙালা খানার জন্য প্রসিদ্ধ পিয়ারলেস ইনের এই শাখায় এখন শুধুই ইলিশের উৎসব৷ আর হবে নাই বা কেন৷ লকডাউনের পরে সরাসরি ভোজন রসিক বাঙালিদের জন্য যে দরজা খুলল তাদের৷ তবে সম্পূর্ণ সুরক্ষাবিধি মেনেই চলছে সব কাজ৷ রান্না থেকে বসার আয়োজনে যুক্ত হয়েছে কোভিড বিধি৷ এমনকী স্টাফদেরও এর ওপর সেরে ফেলতে হয়েছে শর্ট কোর্স৷ অর্থাৎ কী করতে হবে আর কী করবেন না, সে বিষয়ে সম্পূর্ণ অবগত হয়েই সাধারণের জন্য নিজেদের রেস্তোরাঁগুলি খুলেছে এসপ্ল্যানেডের স্বনামধন্য পিয়ারলেস ইন৷ বাঙালি আহারের জন্য বিখ্যাত ও পুরনো রেস্তোরাঁ আহেলীতে আবার সাজানো হয়েছে থালা যাতে বিশেষ ভাবে গুরুত্ব পাচ্ছে রকমারি ইলিশের প্রিপারেশন!

পিয়ারলেস ইনের এগজিকিউটিভ শেফ দেবদীপ ঘটক জানাচ্ছেন যে ইলিশের সঙ্গে এবার তাঁরা জুটি বেঁধেছেন রসুন, নারকেল, আনারসের৷ সাধারণত ইলিশ মানেই সর্ষে ভাপা বা কালোজিরে ঝোল৷ তবে এবার ইলিশের সঙ্গে তাঁরা জুড়েছেন অন্য ধরণের মশলা৷ এবার আমাদের এখানে তৈরি হয়েছে রসুন-নারকেল ইলিশ৷ সাধারণ ইলিশের সঙ্গে রসুন ব্যবহার করা হয় না৷ তবে এটা পরীক্ষামূলক ভাবে করা হয়েছে এবং সকলের বেশ পছন্দ হয়েছে৷ এটা যেমন স্পেশ্যাল, তেমনই রয়েছে ঝলসানো ইলিশ৷ এটা একেবারে ওভেন টু প্লেট সার্ভ করা হবে৷ মানে বেকড আইটেম বলা যেতে পারে৷ এর সঙ্গে রয়েছে রাঙা ইলিশ৷ রয়েছে আম তেল ইলিশ৷ একেবারে ট্রেডিশন মেনে তৈরি এই আম তেল৷ যাতে ডুবছে ইলিশ মাছ৷ এছাড়া পটলের দোরমায় পুর হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে ইলিশের ফিলিং৷ এছাড়া তো বোনলেস ইলিশের বিরিয়ানি তো আছেই৷ জানালেন শেফ দেবদীপ৷

তবে এই সবের সঙ্গেই তিনি জানিয়ে দিলেন যে রান্নার আগে ও পরে অনেকটা সময় ব্যায় করতে হচ্ছে স্যানিটাইজেশনে৷ কাটার জন্য ব্যবহার করা ছুরি হোক বা কাটিং বোর্ড, সব কিছুই নিয়ম মেনে করা হচ্ছে স্যানিটাইজ৷ ভেন্ডারদের থেকে জিনিস এলে প্রথমে তা স্যানিটাইজ করো হচ্ছে, তারপর ধুয়ে ঢোকানো হচ্ছে হেঁসেলে৷ কারণ এখন তো সুরক্ষাই সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ৷ তাই সময় একটি বেশি লাগলেও, সেটার দিকে বেশি গুরুত্ব দিতেই হচ্ছে৷ স্পষ্ট করলেন শেফ৷

অন্যদিকে গেস্টদের জন্য বসার জায়গা ও বুফের আয়োজনেও লেগেছে সুরক্ষার ছোঁয়া৷ পিয়ারলেস ইনের জেনারেল ম্যানেজার তাপসবাবু জানাচ্ছেন যে যতটা সম্ভব তাঁরা ডিজিটাল মাধম্যের ওপর নির্ভর করছে৷ এর ফলে সরাসরি কোনও রকম ছোঁয়া থেকে দূরে থাকা যাবে৷ যে কারণে বুফে সার্ভ করার জন্য উপস্থিত থাকছেন এক কর্মী৷ এবং বুফের সামনে কাঁচ দিয়ে ঘিরে দেওয়া হয়েছে৷ বুফের খাবারও থাকছে নির্দিষ্ট বাটিতে৷ অর্থাৎ আপনার প্রয়োজন মতো সেই বাটিটাই তুলে দেওয়া হলে প্লেটে৷ প্লেট থাকেব কাগজে ঢাকা, যাতে আপনার নিজের প্লটটি তুলে নেওয়ার সময় অন্য প্লেটে টাচ না লাগে৷ এছাড়া তো নিয়মিত খাবার টেবিলগুলি স্যানিটাইজ করা হচ্ছে৷ ফলে একসঙ্গে রেস্তোরাঁয় অতিথি সংখ্যা কমছে ঠিকই কিন্তু আপাতত সুরক্ষাবিধিকেই গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছ৷ ১৪ই সেপ্টেম্বর থেকে খুলেছে আহেলী ও ওশানিয়া৷ 

জিএম তাপসবাবু জানান যে, লকডাউনে রেস্তোরাঁ বন্ধ ছিল ঠিকই, কিন্তু টেকআওয়ে খোলা ছিল৷ অর্থাৎ খাবার অর্ডার করা যাচ্ছিল নিয়মিত৷ তবে এবার সেই ঝক্কি আর নেই৷ নিশ্চিন্তে পাত পেড়ে খেয়ে আসুন পছন্দের পদ্মার ইলিশ৷ আপনার করোনা সুরক্ষার দায়িত্ব সম্পূর্ণভাবে নিচ্ছে পিয়ারলেস ইন৷

Published by: Pooja Basu
First published: September 18, 2020, 6:21 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर