বন্যায় চালের যোগান ঠিক রাখতে নতুন পদক্ষেপ নিচ্ছে খাদ্য দফতর

বন্যায় চালের যোগান ঠিক রাখতে উদ্যোগী খাদ্য দফতর। ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখেই এবার প্রতি জেলায় উচু জায়গায় তৈরি করা হচ্ছে গুদাম ঘর।

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Aug 24, 2017 09:18 AM IST
বন্যায় চালের যোগান ঠিক রাখতে নতুন পদক্ষেপ নিচ্ছে খাদ্য দফতর
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Aug 24, 2017 09:18 AM IST

#কলকাতা: বন্যায় চালের যোগান ঠিক রাখতে উদ্যোগী খাদ্য দফতর। ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখেই এবার প্রতি জেলায় উচু জায়গায় তৈরি করা হচ্ছে গুদাম ঘর। খাদ্য দফতরের উদ্যোগে ইতিমধ্যেই গুদাম তৈরির কাজ শুরু করেছে PWD। গুদামগুলি তৈরি হয়ে গেলে বাড়বে ধান সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা। উচু জায়গায় তৈরি হওয়ার ফলে বন্যাতেও মজুত ধান নষ্টের পরিমাণ কমবে বলে মনে করছে খাদ্য দফতর।

সাম্প্রতিক বন্যা পরিস্থিতির জেরে পূরণ করা যাচ্ছে না ধান কেনার লক্ষ্যমাত্রা। গুদাম গুলিতে যে ধান মজুত ছিল। বন্যার জল লেগে সেগুলিও অনেকটাই নষ্ট হয়েছে।

এখনও পর্যন্ত ৪০ লক্ষ মেট্রিক টন ধান সংগ্রহ করা গিয়েছে।

ঘাটতি রয়েছে ১২ লক্ষ মেট্রিক টনের।

এই ৪০ লক্ষ মেট্রিক টন ধান থেকে চাল পাওয়া যাবে ২৭ লক্ষ মেট্রিক টন।

যা থেকে ২ টাকা কিলো দরে চাল দিতেই খরচ হয়ে যাবে প্রায় ২৪ লক্ষ মেট্রিক টন।

ধান মজুতের ভান্ডারগুলিতে জল ঢুকে নষ্ট হয়ে গেছে প্রচুর ধান। শুধু আলিপুরদুয়ারেই ধান নষ্ট হয়েছে ৪০০ মেট্রিক টন। এই সমস্যা সমাধানেই এবার উদ্যোগী হয়েছে খাদ্য দফতর। জেলা জুড়ে তৈরি করা হচ্ছে ধান মজুতের নতুন গুদাম।

উন্নত মানের এই গুদামঘর গুলি তৈরি করা হচ্ছে উচু জায়গা দেখে। যাতে বন্যার মত পরিস্থিতি হলেও গুদামে মজুত চাল নষ্ট না হয়। ভবিষ্যতে কৃষকদের কাছ থেকেও আরও বেশি ধান কেনা যাবে এই গুদামগুলি তৈরি হলে।

এই গুদামগুলি তৈরি হয়ে গেলে বাড়বে ধান স্টোরেজের ক্ষমতা। সেক্ষেত্রে রেশন ও অন্যান্য খাতে রাজ্যের প্রয়োজন মেটার পর যে চাল উদ্বৃত্ত থাকবে তা অন্য রাজ্যগুলিকে সরাসরি বিক্রি করবে খাদ্য দফতর।

First published: 09:18:21 AM Aug 24, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर