রূপান্তরকারীদের জন্য শহরে বিশেষ ক্লিনিক ! বিনা পয়সায় করা যাবে চিকিৎসা

রূপান্তরকারীদের জন্য শহরে বিশেষ ক্লিনিক ! বিনা পয়সায় করা যাবে চিকিৎসা

রাজ্যে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের জন্য এই ধরনের উদ্যোগ প্রথম বলে দাবি বাইপাস সংলগ্ন ওই বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের।

  • Share this:

#কলকাতা: ট্রান্সজেন্ডারদের জন্য ক্লিনিক চালু করল শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতাল। রাজ্যে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের জন্য এই ধরনের উদ্যোগ প্রথম বলে দাবি বাইপাস সংলগ্ন ওই বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের। সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্ট রূপান্তরকারী মানুষদের জন্য বিশেষ রায় দিয়েছে। রায়ের পর থেকে তারা তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ হিসেবে মর্যাদা পেয়েছেন। একই সঙ্গে ট্রান্সজেন্ডারদের সব রকম সাংবিধানিক অধিকার দিতে হবে বলে জানিয়েছেন দেশের সর্বোচ্চ ন্যায়ালয়।

এদিন পঞ্চশায়রের বেসরকারি হাসপাতালে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের জন্য এই বিশেষ ক্লিনিকের সূচনা করলো। যার নাম দেওয়া হয়েছে 'অন্তর'। এই ক্লিনিকের উদ্বোধন করেন রাজ্যের নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রী শশী পাঁজা। তিনি বলেন, 'একজন ডাক্তার হিসেবে আমি জানি একজন পুরুষ যখন নারীর রূপ পেতে চায় বা একজন নারী যখন পুরুষের রূপ পেতে চাই সেই প্রক্রিয়াটি কতটা জটিল। তাই তাদের সঠিক চিকিৎসার প্রয়োজন হয়। একই সঙ্গে তাদেরকে সামাজিক লড়াইও করতে হয়। সেই সময় মানসিক চিকিৎসারও দরকার হয়। তাই এই ধরনের ক্লিনিক ভীষণ প্রয়োজন।' ওই হাসপাতালের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ডক্টর সুরজিৎ কর পুরকায়স্থ বলেন, 'এই সম্প্রদায়ের যে মানুষরা রয়েছে তারা সমাজের এতদিন উপেক্ষিত থেকেছে। এই উদ্যোগের মধ্যে দিয়ে তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের স্বাস্থ্যের অধিকার কে সুনিশ্চিত করাই প্রধান উদ্দেশ্য। ট্রান্সজেন্ডারদের রূপান্তরের সময় যে হর্মনাল চিকিৎসা হয় তার অনেক পার্শ প্রতিক্রিয়া আছে। সেই গুলোকে সঠিকভাবে বিশ্লেষণ করে চিকিৎসা করা প্রয়োজন। তার একটা সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। একই সঙ্গে তাদের অন্যান্য রোগের চিকিৎসাও এখানে করা হবে।' তিনি আরও জানান, এই বিশেষ ক্লিনিক মাসে দুদিন খোলা থাকবে এবং চিকিৎসার জন্য কোন টাকা দিতে হবে না। অনুষ্ঠানে উপস্থিত অন্যতম রূপান্তরকারী নারী জিয়া দাস বলেন, ' আমার মত মানুষ যারা রয়েছেন তাদের বিভিন্ন জায়গায় চিকিৎসা না পেয়ে দুর্ব্যবহার পেয়ে ফিরে আসতে হতো। চিকিৎসা করাতে যেতে ভয় পেত। সেই জায়গায় এরকম একটা ক্লিনিক হওয়ায় নির্দ্বিধায় এসে চিকিৎসাা করাতে পারবে।'

SOUJAN MONDAL

First published: February 27, 2020, 7:59 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर