কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

রাত পোহালেই শোভন-বৈশাখীর পা পড়বে, মুরলীধর লেনের অফিসে বসল নামফলক

রাত পোহালেই শোভন-বৈশাখীর পা পড়বে, মুরলীধর লেনের অফিসে বসল নামফলক
শোভন বৈশাখী কাল থেকেই যাবেন মুরলীধর লেনে।

এর আগে দোতলার এই ঘর বরাদ্দ হয়েছিল মুকুল রায়ের জন্য।

  • Share this:

#কলকাতা: রাত পোহালেই অভিষেক। শোভনের প্রতীক্ষায় প্রহর গুনছে মুরুলিধর সেন লেনের বিজেপির রাজ্য দফতর৷  নব কলেবরে সেজে ওঠা বিজেপির রাজ্য দফতরে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের জন্য বরাদ্দ হয়েছে বিশেষ ঘর। ঘরের বাইরের দরজায় সাঁটানো হয়েছে শোভনের নামফলক।

এর আগে দোতলার এই ঘর বরাদ্দ হয়েছিল মুকুল রায়ের জন্য। দোতলায় অপ্রশস্ত সিঁড়ি দিয়ে ওঠা নামা করা অসুবিধা সত্বেও মুকুল রায় ওই ঘরেই বেশ কিছুদিন তাঁর অফিস সাজিয়ে কাজ করেন। কিন্তু ঘরের সামনে অপ্রশস্ত করিডোরে দর্শনার্থীর ভীড় জমে যেত। আর, তা নিয়ে দলের অনেকেই আপত্তি তোলে। শেষমেশ, করোনার আবহে বিজেপির রাজ্য দফতরে যাওয়া একেবারে বন্ধ করে দেন মুকুল।এরপর সর্বভারতীয় সহ সভাপতির পদ পেয়েও  বিজেপির রাজ্য দপ্তরে আর যাননি মুকুল। বর্তমানে মুকুল রায়ের অফিস হেস্টিংসের ৮ তলায়। ফলত এই ঘরেই শোভনকে বসাতে চাইছে বিজেপি।

সম্প্রতি বিজেপির রাজ্য কমিটির নেতা হয়েছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। তাঁকে কলকাতা ও দক্ষিন ২৪ পরগনার গুরুত্বপূর্ন দায়িত্বও দেওয়া হয়েছে। জানা যাচ্ছে, পদ পেতেই  বিজেপির রাজ্য দফতরে একটি স্থায়ী অফিস চেয়েছিলেন শোভন। শোভনের সেই দাবি মেনে এই ঘর বরাদ্দ করা হয়।

শোভনের ঠিক পাশের ঘরটিই বরাদ্দ হয়েছে উত্তরপ্রদেশের উপমুখ্যমন্ত্রী কেশবপ্রসাদ মৌর্যর জন্য। কেশব রাজ্যের আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক হিসাবে কাজ করবেন।

প্রসঙ্গত, আগামিকাল দুপুর সাড়ে তিনটেয় মোমিনপুর থেকে মুরলীধর লেন পর্যন্ত রোড শো করার কথা ছিল শোভন-বৈশাখী জুটির ৷ কিন্তু শহরে কর্মব্যস্ত দিনে রোড শো করলে যানজট, বিশৃঙ্খলা তৈরি হতে পারে ৷ এই আশঙ্কা থেকেই রোড শোয়ের অনুমতি দেয়নি পুলিশ ৷

Published by: Arka Deb
First published: January 3, 2021, 11:58 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर