কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

রাজ্যপালের কাছে যেতেই বদলি, ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ফের অভিযোগের ঝুলি নিয়ে রাজভবনে শোভন বৈশাখী

রাজ্যপালের কাছে যেতেই বদলি, ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ফের অভিযোগের ঝুলি নিয়ে রাজভবনে শোভন বৈশাখী

রাজ্যপালের থেকে সমাধানসূত্র না পেলে আইনি পদক্ষেপ নেবে বলেও এ দিন জানান বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়।

  • Share this:

#কলকাতা: শুক্রবার নেহাতই সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছিলেন রাজ্যপালের সঙ্গে শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। যদিও সাক্ষাতপর্বে মিলি আল-আমিন কলেজের পরিচালনগত সমস্যা নিয়ে রাজ্যপালের কাছে অভিযোগ জানিয়েছিলেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই অভিযোগ জানানোর কয়েক ঘন্টার মধ্যেই বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে মিলি আল-আমিন কলেজ থেকে বদলির নির্দেশ দেওয়া হয়।

বদলির নির্দেশ মানছেন না বলে আগেই জানিয়েছিলেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়।আর বদলির নির্দেশ হবার পরপরই ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই সোমবার রাজভবনে দু'দফায় রাজ্যপালের সঙ্গে বৈঠক করলেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রথম পর্বে কলেজের কয়েকজন অধ্যাপিকা এবং দ্বিতীয় দফায় শোভন চট্টোপাধ্যায় সঙ্গে রাজ্যপালের সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যপালের কাছে অভিযোগ জানানো হলো তার সঙ্গে দেখা করার পর পরই এই ধরনের বদলির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

প্রথম পর্বে কলেজের কয়েকজন অধ্যাপিকাদের নিয়ে রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করার পর বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, " সমস্ত সরকারি নিয়ম কানুন ভেঙে দেওয়া হয়েছে। কলেজে সিনিয়ররা টিচার থাকা সত্ত্বেও কন্ট্রাকচুয়ালদের মধ্য থেকে টিচার ইনচার্জ করা হয়েছে। রাজ্যপাল পুরো বিষয়টি সমবেদনার সঙ্গে শুনেছেন। রাজ্যপাল আশ্বাস দিয়েছেন কেউ বিচার না পাওয়ার জায়গা হবেন না।" রাজ্যপালের থেকে সমাধানসূত্র না পেলে আইনি পদক্ষেপ নেবে বলেও এ দিন জানান বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়।

প্রথম পর্বে প্রায় ৪৫ মিনিট বৈঠকের পর দ্বিতীয় পর্যায় শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে সোমবার সন্ধ্যে নাগাদ ফের রাজভবনে আসেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। শনিবার তাকে বদলির নির্দেশ দেওয়ার পর তিনি জানিয়েছিলেন আইনি পদক্ষেপ নেব অথবা চাকরির থেকেই ইস্তফা দিয়ে দেব। সোমবার রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করার পর আইনি পদক্ষেপ এ যে কার্যত নেওয়ার দিকে প্রস্তুতি নিচ্ছেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় তা কার্যত তার বক্তব্য থেকে স্পষ্ট।

এদিন দ্বিতীয় দফায় সুমন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করে অভিযোগ জানিয়ে আসার পর বিজেপি নেতা শোভন চট্টোপাধ্যায় বলেন, " আমাকে সামনে রেখে বৈশাখীর ওপর আক্রমণ করা হচ্ছে। বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় কলেজের সমস্যা নিয়ে আমি শিক্ষামন্ত্রীকেও জানিয়েছিলাম। শিক্ষামন্ত্রী তখন বলেছিলেন আমাকে বিচলিত হওয়ার দরকার নেই বিষয়টি আমি দেখছি। কিন্তু শিক্ষামন্ত্রী ওপর নির্ভরতা রাখা যায় না সেটাও এই মাধ্যমে স্পষ্ট হল।"

এদিন নাম করে ফিরহাদ হাকিম কেউ সরাসরি নিশানা করলেন বিজেপি নেতা শোভন চট্টোপাধ্যায়। বিজেপি নেতা শোভন চট্টোপাধ্যায়  আরো বলেন " রাজ্যপালকে জানিয়ে গেলাম আপনার কাছে এসেছিলাম। সেই হিংসা প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার জন্য বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে অন্য কলেজে দেওয়া হয়েছে। এটা দুর্ভাগ্যজনক। সেটাই জানিয়ে গেলাম রাজ্যপালের কাছে। বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে সরানোর মূল্য দিতে হবে।"

সূত্রের খবর, বিষয়টি নিয়ে রাজ্যপাল যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়ে শুনেছেন। সে ক্ষেত্রে আচার্য হিসেবে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের থেকে জানতে চাইতে পারেন এই বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইন মানা হয়েছে নাকি।

 সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by: Elina Datta
First published: December 8, 2020, 12:13 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर