• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • SOVAN CHATTERJEE BAISAKHI BANERJEE RISING SPECULATION OF SOVAN CHATTERJEE COMING BACK TO TMC DMG

বৈশাখীর গলায় মমতার প্রতি কৃতজ্ঞতা, পার্থর বাড়ি গিয়ে জল্পনা বাড়ালেন শোভন

পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে শোভন- বৈশাখী৷

বৈশাখীর (Baisakhi Banerjee) এ দিনের এই মন্তব্যের পর শোভনের (Sovan Chatterjee) ভবিষ্যৎ পদক্ষেপ নিয়ে রাজনৈতিক মহলে জল্পনা স্বভাবতই আরও বাড়ল৷

  • Share this:

#কলকাতা: মুকুল রায় দলে ফিরেছেন৷ রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ও তৃণমূলে ফেরার চেষ্টা করছেন বলে জল্পনা চলছে৷ আর এবার সেই তালিকায় নাম জুড়ল শোভন চট্টোপাধ্যায়ের৷ রবিবার রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের পর এ দিন বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে সঙ্গে নিয়ে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে গেলেন শোভন৷ আর জল্পনা বাড়িয়ে বৈশাখীর মুখে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশংসাও শোনা গেল৷

রবিবার প্রয়াত হন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মা শিবানী চট্টোপাধ্যায়৷ গতকালই পার্থবাবুর সঙ্গে দেখা করতে যান রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এ দিন রাত সাড়ে আটটা নাগাদ বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে তৃণমূল মহাসচিবের বাড়িতে যান শোভন চট্টোপাধ্যায়৷ প্রায় দেড় ঘণ্টা পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে ছিলেন তাঁরা৷ পার্থবাবুর বাড়ি থেকে বেরিয়ে শোভন অবশ্য দাবি করেন, মাতৃ বিয়োগের পর পার্থবাবুকে সমবেদনা জানাতেই এসেছিলেন তাঁরা৷ শোভনের কথায়, 'রাজনীতি নিয়ে কথা বলার মতো মানসিকতা ওনারও ছিল না, আমারও না৷'

শোভন এ কথা বললেও বৈশাখীর কথায় জল্পনা বেড়েছে৷ কারণ নারদ কাণ্ডে শোভনের গ্রেফতারির সময় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পাশে থাকায় তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন বৈশাখী৷ শুধু তাই নয়, মমতা শোভনের কাছে পরিবারের একজন বলেও দাবি করেন তিনি৷ বৈশাখী বলেন, 'কঠিন সময়ে উনি যেভাবে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন, পাশে থেকেছেন, সাহস জুগিয়েছেন সেটা কখনওই ভোলা যায় না৷ উনি ওনার বাকি তিন সহকর্মীর প্রতি যতখানি চিন্তিত ছিলেন, শোভনের বিষয়েও ততটাই চিন্তিত ছিলেন৷ বিশেষত যেভাবে উনি সঙ্কটের সময় পাশে থেকেছেন, তাতে কৃতজ্ঞতা প্রকাশের ভাষা থাকে না৷ শোভনের সঙ্গে মমতাদির বরাবরই আন্তরিক সম্পর্ক৷ উনি শোভনের পরিবারের একজনের মতো৷'

শোভন চট্টোপাধ্যায়ের তৃণমূলে ফেরার জল্পনা আরও বাড়িয়ে বৈশাখী বলেন, 'আমাদের অবস্থান এইটুকুই যে একটা টালমাটাল নির্বাচনী যুদ্ধে পরে উনি যেভাবে বিপুল ভোটে জয়ী হয়েছেন, তাতে বাংলার সাধারণ মানুষের মতো আমাদেরও ওনার কাছেঅনেক আশা আছে৷ আর শোভনের কথা বলতে হলে বলি, যতই যেখানে রাজনৈতিক তরজা হোক, রাজনৈতিক পার্থক্য হোক, শোভনের কাছে দিদির স্থান বা দিদির কাছে কাননের স্থান বদলাবে না৷'

বৈশাখীর এ দিনের এই মন্তব্যের পর শোভনের ভবিষ্যৎ পদক্ষেপ নিয়ে রাজনৈতিক মহলে জল্পনা স্বভাবতই আরও বাড়ল৷ কারণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও ইঙ্গিত দিয়েছেন, নির্বাচনের আগে যাঁরা দল ছেড়েছিলেন, দলের সঙ্গে গদ্দারি করেছেন, তাঁদের জন্য তৃণমূলের দরজা বন্ধ৷ কিন্তু যাঁরা দল ছাড়লেও সেভাবে নিম্নরুচির পরিচয় দেননি, তাঁদের কথা ভেবে দেখবে দল৷ ২০১৮ সালে বিজেপি-তে যোগ দিয়েছিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়৷ যদিও শুরু থেকেই নতুন দলে মানিয়ে নিতে পারেননি শোভন এবং বৈশাখী৷ শেষ পর্যন্ত বেহালা পূর্বে প্রার্থী হতে না পেরে বিজেপি-র সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেন শোভন৷ দল ছাড়েন বৈশাখীও৷ যদিও শোভনকে নিয়ে তৃণমূল কী ভাবছে, তা এখনও স্পষ্ট নয়৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published: