• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • SOUTH EASTERN RAILWAYS WILL START RUNNING SPECIAL TRAINS FROM THIS WEEK RC

Special Train Starting: সোম থেকে সূচনা বহু দূরপাল্লার, চালাবে দক্ষিণ-পূর্ব রেল! তালিকা দেখুন

সোম থেকে সূচনা বহু দূরপাল্লার, চালাবে দক্ষিণ-পূর্ব রেল! তালিকা দেখুন

দক্ষিণ ভারতের যাত্রীদের জন্যে সুখবর। চলতি সপ্তাহ থেকেই চালু হচ্ছে দূরপাল্লার একাধিক স্পেশ্যাল ট্রেন (Special Train)।

  • Share this:

    #কলকাতা: রাজ্যে (West Bengal Coronavirus) আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত জারি রয়েছে করোনার কড়া বিধিনিষেধ (Strict Restrictions for Covid-19) । দক্ষিণ ভারতের যাত্রীদের জন্যে সুখবর। চলতি সপ্তাহ থেকেই চালু হচ্ছে দূরপাল্লার একাধিক স্পেশ্যাল ট্রেন  (Special Train)। এই ট্রেন চালাবে দক্ষিণ পূর্ব রেল (South Eastern Railways)। স্পেশ্যাল ট্রেন (Special Train) হিসাবেই চলবে এই সব ট্রেন। আগামী ২৪ জুন, ২০২১ চালু হবে ০৬৫৯৭ যশবন্তপুর-হাওড়া স্পেশ্যাল। ২৫ জুন চালু হবে ০৬৫৭৭ যশবন্তপুর-গুয়াহাটি স্পেশ্যাল। ২৬ জুন থেকে চলবে ০২২৫৩ যশবন্তপুর-ভাগলপুর স্পেশ্যাল।

    ২৮ জুন থেকে চলবে ০৬৫৭৮ গুয়াহাটি-যশবন্তপুর স্পেশ্যাল। ২৯ জুন থেকে চলবে ০৬৫৯৮ হাওড়া-যশবন্তপুর স্পেশ্যাল। ৩০ জুন থেকে চলবে ০২২৫৪ ভাগলপুর-যশবন্তপুর স্পেশ্যাল। আগামী জুলাই মাসের ৭ তারিখ থেকে চলবে ০২৩৭৬ যশিডি-তাম্বারাম স্পেশ্যাল। জুলাইয়ের ১০ তারিখ থেকে চলবে ০২৩৭৫ তাম্বারাম-যশিডি স্পেশ্যাল। এই সব ট্রেন চলবে স্পেশ্যাল হিসাবে। টিকিট সংরক্ষণ করে যাতায়াত করতে হবে। কোভিডের বিধিনিষেধ মেনেই যেতে হবে যাত্রীদের।

    অন্যদিকে, যাত্রী সংখ্যা বাড়তে থাকায় স্টাফ স্পেশ্যাল ট্রেনের সংখ্যা বাড়িয়েছে মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষ৷ মেট্রো রেলের তরফে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে সোমবার, ২১ জুন থেকে আপ এবং ডাউন লাইন মিলিয়ে মোট চল্লিশটি ট্রেন চালানো হবে৷ সকাল ৯টা থেকে ১১টা এবং বিকেল ৩.৪৫ থেকে সন্ধে ৬টা পর্যন্ত ১৫ মিনিট অন্তর দু' দিকেই মিলবে মেট্রো৷ সোমবার থেকে শনিবার পর্যন্ত এই পরিষেবা মিলবে৷

    করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পরতেই দ্বিতীয় দফায় লকডাউন শুরু হয়েছিল গোটা দেশেই। সে সময় বন্ধ হয়ে যায় লোকাল ট্রেন। তবে জরুরি পরিষেবার জন্য যুক্ত যাঁরা, তাঁদের জন্য দুই ডিভিশনে রেলকর্মীদের জন্য চলছিল ৩৪২টি স্টাফ স্পেশ্যাল ট্রেন। এর পরে রাজ্যের সম্মতিতে স্বাস্থ্য, ব্যাংক, হাই কোর্ট, বিএসএনএল-সহ কয়েকটি জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত কর্মীরা এই ট্রেন চড়ার অনুমতি পায়। অস্বাভাবিক ভিড় হতে থাকে ট্রেনগুলিতে। পরবর্তীতে বিধিনিষেধে কিছু ছাড় দেওয়ার আগে রেল লোকাল ট্রেন চালানোর অনুমতি চায় রাজ্যের কাছে। যদিও এতে সহমত পোষণ করেনি রাজ্য। ফলে লোকাল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্তই বজায় রেখেছে রেল কর্তৃপক্ষ। সেগুলি খোলার ব্যাপারে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত জানায়নি রাজ্য সরকার।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: