কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

'মরে গেলেও বিজেপি-তে যাব না', অর্জুনের দাবি খারিজ করে জবাব সৌগতর

'মরে গেলেও বিজেপি-তে যাব না', অর্জুনের দাবি খারিজ করে জবাব সৌগতর
অর্জুনের দাবি খারিজ সৌগতর৷

অর্জুনকে অপরিণত বলে মন্তব্য করে তাঁর দাবি নস্যাৎ করে দিয়েছেন দমদমের তৃণমূল সাংসদ৷

  • Share this:

#কলকাতা: বিজেপি-তে যোগ দিতে তৈরি পাঁচ তৃণমূল সাংসদ৷ যে কোনও মুহূর্তে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি-তে আসতে তৈরি তাঁরা৷ এমনই চাঞ্চল্যকর দাবি করলেন বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং৷ যে তৃণমূল সাংসদদের কথা তিনি বলছেন, তাঁদের মধ্যে দমদমের সাংসদ সৌগত রায়ও রয়েছেন বলে দাবি করেছেন অর্জুন৷ বিজেপি সাংসদের দাবি নস্যাৎ করে সৌগতর জবাব, 'মরে যাব, তবু বিজেপি-তে যাব না৷'

শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে এমনিতেই বেশ অস্বস্তিতে রয়েছে রাজ্যের শাসক দল৷ সেই অস্বস্তি বাড়াতে এ দিন অর্জুন সিং দাবি করেছেন, শুভেন্দু বিজেপি-তে যোগ দিলেই তৃণমূলের সরকার পড়ে যাবে৷ একই সঙ্গে তিনি বলেন, 'পাঁচ জন তৃণমূল সাংসদ যে কোনও দিন তৃণমূল থেকে ইস্তফা দিয়ে বিজেপি-তে যোগ দিতে তৈরি৷' এই তালিকায় সৌগত রায় রয়েছেন কি না, সেই প্রশ্নের জবাবে অর্জুন সিং বলেন, 'সৌগত রায় ক্যামেরার সামনে তৃণমূল, তৃণমূল করেন৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বার্তা পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করেন৷ কিন্তু ক্যামেরা সরিয়ে নিলে সেই সৌগত রায়ও এই তালিকায় এসে নাম লেখান৷'

অর্জুনকে অপরিণত বলে মন্তব্য করে তাঁর দাবি নস্যাৎ করে দিয়েছেন দমদমের তৃণমূল সাংসদ৷ বিজেপি-তে যোগ দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, 'এটা বিজেপি-র অসত্য প্রচারের অংশ৷ বিজেপি একটা আদ্যন্ত সাম্প্রদায়িক দল৷ দরকারে রাজনীতি ছেড়ে দেব, কিন্তু মরে গেলেও বিজেপি-তে যাব না৷'

শুধু অর্জুন সিং নয়, সাম্প্রতিক কালে বিজেপি-র একাধিক রাজ্য ও কেন্দ্রীয় স্তরের নেতারাও দাবি করেছেন, তৃণমূলের বহু জনপ্রতিনিধি বিজেপি-তে যোগ দিতে তৈরি৷ শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে তৃণমূলের দূরত্ব বাড়ার পর থেকে সেই জল্পনা আরও জোরাল হয়েছে৷ সৌগত রায়ের অভিযোগ, ইচ্ছাকৃত ভাবেই মিথ্যে প্রচার করে মানুষকে বিভ্রান্ত করতে চাইছেন বিজেপি নেতারা৷ প্রসঙ্গত তৃণমূলের তরফে শুভেন্দুর সঙ্গে আলোচনার জন্য দলের বর্ষীয়ান সাংসদ সৌগত রায়কেই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে৷ তিনিও বিজেপি-তে যোগ দিতে চান বলে দাবি করে তৃণমূলের অস্বস্তি বাড়ানোর চেষ্টা করলেন ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: November 21, 2020, 4:55 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर