বাগুইআটিতে গলায় নাইলনের দড়ি পেঁচিয়ে বাবাকে খুন করল ছেলে

বাগুইআটিতে গলায় নাইলনের দড়ি পেঁচিয়ে বাবাকে খুন করল ছেলে
representative image

বাবাকে শ্বাসরোধ করে খুন ছেলের

  • Share this:

#কলকাতা: ছেলের হাতে খুন বাবা! বাগুইআটিতে বায়ুসেনার অবসরপ্রাপ্ত কর্মীকে শ্বাসরোধ করে খুন করল ছেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল রাত ১টা নাগাদ বাগুইআটির অশ্বিনী নগর এলাকার একটি বহুতল আবাসনের বাসিন্দা ৮৩ বছর বয়সী শ্যামল চট্টোপাধ্যায়কে গলায় নাইলনের দড়ি পেঁচিয়ে  শ্বাসরোধ করে খুন করে ছেলে চন্দু চট্টোপাধ্যায়। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য আর জি কর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

গতকাল রাত দেড়টা নাগাদ  খবর পেয়ে পুলিশ  ওই আবাসনে গিয়ে দেখেন যে সোফায় শুইয়ে রাখা হয়েছে বৃদ্ধের দেহ।   ওই আবাসনের দোতলায় থাকতেন বাবা শ্যামল চট্টোপাধ্যায় ও ছেলে  চন্দু চট্টোপাধ্যায়। এরআগে ছেলে কর্মসূত্রে আমেরিকায় থাকত, কয়েক মাস আগেই বাগুইআটিতে নিজের ফ্ল্যাটে আসে, কাজ করেন আইটি ইন্ডাস্ট্রিতে।

ঠিক কী কারণে খুন  ? এই বিষয়ে ধোঁয়াশা থাকলেও পুলিশ একপ্রকার নিশ্চিত যে ছেলের হাতেই খুন হয়েছেন বাবা। ছেলেকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ জানতে পারেন  বেশ কিছুদিন ধরে তার চাকরি ছিল না।  সম্পত্তি জনিত কারণে টাকা-পয়সা নিয়ে বিবাদ লেগে থাকত বাবা ছেলের মধ্যে।

অভিযুক্ত চন্দু চট্টোপাধ্যায় পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলেও তাকে ধরে ফেলে  বাগুইআটি থানার ওসির নেতৃত্বে একটি দল।  ঘরের মধ্যে থেকে উদ্ধার হয়েছে একটি দড়ি যাতে রয়েছে রক্তের দাগ। অনুমান, গলায় দড়ি এত জোরে পেঁচানো হয়েছিল যে গলা কেটে রক্ত বেরিয়ে আসে। মিলেছে বেশ কয়েকটি চুল।

 ঘটনাস্থলে রয়েছেন ফরেনসিক সায়েন্স ল্যাবরেটরির কর্মীরা। চলছে নমুনা সংগ্রহের কাজ। অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছে বাগুইআটি থানার পুলিশ। পাশাপাশি, বৃদ্ধের আত্মীয়-পরিজন যাঁরা বিদেশে থাকেন,  তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হচ্ছে।

First published: October 29, 2019, 6:29 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर