স্ত্রী ও বাবাকে অ্যালুমিনিয়ামের বালতি দিয়ে মার ! ট্যাংরা জোড়া খুনের দায় স্বীকার ছেলের

অ্যালুমিনিয়ামের বালতি দিয়ে স্ত্রীকে বেধড়ক মারে। ঘটনাটি দেখে ফেলে বাবা। তখন বাবাকেও আঘাত করে অ্যালুমিনিয়ামের বালতি দিয়ে

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 24, 2019 11:12 AM IST
স্ত্রী ও বাবাকে অ্যালুমিনিয়ামের বালতি দিয়ে মার ! ট্যাংরা জোড়া খুনের দায় স্বীকার ছেলের
accused person of tangra murder
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 24, 2019 11:12 AM IST

#কলকাতা: ট্যাংরায় জোড়া খুনের কিনারা। স্ত্রী-বাবাকে খুনের কথা স্বীকার করে নেয় ছেলে। অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। দফায় দফায় পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে তার স্বীকারোক্তি, স্ত্রীর সঙ্গে অশান্তি চলছিল । অশান্তির জেরেই অ্যালুমিনিয়ামের বালতি দিয়ে স্ত্রীকে বেধড়ক মারে। ঘটনাটি দেখে ফেলে বাবা। তখন বাবাকেও আঘাত করে অ্যালুমিনিয়ামের বালতি দিয়ে। নির্মম মারধরেই ছেলের হাতে মৃত্যু হয় বাবা ও স্ত্রীর।

গতকাল রাতে ট্যাংরায় উদ্ধার হয় এক মহিলার রক্তাক্ত দেহ । বাড়িতে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার শ্বশুরও। একই ঘরে ছিলেন শ্বশুর-বউমা। ঘরের দরজা ভেতর থেকে বন্ধ ছিল। ঘটনার সময় ওই মহিলার স্বামী বাইরে ছিলেন। দরজা খুলতে না পেরে ক্লাবের ছেলেদের খবর দেন। মই নিয়ে এসে বাড়ির পিছন দিক থেকে উপরে ওঠেন পাড়ার ছেলেরা।

বন্ধ ঘর থেকে লি হাও মিয়া এবং লিকা সোকে উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারের কিছুক্ষণ পরেই মহিলার মৃত্যু হয়। শ্বশুর লিকাকে এনআরএসে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই মৃত্যু হয় তাঁর। মহিলার মুখে ছিল আঘাতের চিহ্ন। ঘরের অবস্থা দেখে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, লুঠের উদ্দেশে খুন হয়নি। ঘরে রাখা টাকা বা অন্য দামি জিনিস খোয়া যায়নি। লিও-র স্বামী ও শ্বশুর জ্যোতিষি বলে জানা যায়। রাতে ঘটনাস্থলে আসে ফরেনসিক টিম।

৭-৮ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ, খতিয়ে দেখা হয় সিসিটিভি ফুটেজ। দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় মৃতা মহিলার স্বামীকে। পুলিশি জেরার মুখে নিজের দোষ স্বীকার করে নেয় অভিযুক্ত।

First published: 10:58:04 AM Aug 24, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर