• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • SOME PEOPLE ARE STILL NOT GETTING THE FIRST DOSE OF VACCINE SWD

Vaccine: দ্বিতীয় ডোজের থেকেও চাহিদা বেশি প্রথম ডোজের! কিন্তু টিকা না পেয়েই বাড়ি ফিরছেন বহু মানুষ

করোনার (Coronavirus) টিকা (Vaccine) নিয়ে কেন্দ্র-রাজ্যের মধ্যে চলছে চাপান উতোর। কিন্তু তারই মাঝে টিকা না পেয়ে ফিরতে হচ্ছে বহু মানুষকে।

করোনার (Coronavirus) টিকা (Vaccine) নিয়ে কেন্দ্র-রাজ্যের মধ্যে চলছে চাপান উতোর। কিন্তু তারই মাঝে টিকা না পেয়ে ফিরতে হচ্ছে বহু মানুষকে।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনার (Coronavirus) টিকা (Vaccine) নিয়ে কেন্দ্র-রাজ্যের মধ্যে চলছে চাপান উতোর। কিন্তু তারই মাঝে টিকা না পেয়ে ফিরতে হচ্ছে বহু মানুষকে। বিশেষ করে যাঁরা প্রথম ডোজ নিতে যাচ্ছেন। অনেকেই একাধিক হাসপাতাল ঘুরেও পাচ্ছেন না করোনার টিকা।

প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ টিকা নিতে ভোরবেলা থেকে লাইনে দাঁড়াচ্ছেন বিভিন্ন হাসপাতালের টিকাদান কেন্দ্রের সামনে। কিন্তু দীর্ঘ সময়ে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকার পরেও বহু মানুষ টিকা না পেয়ে ফিরে যাচ্ছেন। এসএসকেএম হাসপাতালে রবিবার ছাড়া সপ্তাহের বাকি দিনগুলোতে করোনার প্রথম এবং দ্বিতীয় ডোজ টিকা দেওয়া হচ্ছে।

কোভিশিল্ড এবং কোভ্যাকসিন দু'রকম টিকাই দেওয়া হচ্ছে এসএসকেএমে। সকাল সাড়ে নটা থেকে শুরু হচ্ছে টিকাকরণের কাজ। কিন্তু দিনের আলো ফোটার অনেক আগে থেকেই মানুষ এসে লাইন দিচ্ছে টিকাদান কেন্দ্রের সামনে। রোজ একটি নির্দিষ্ট সংখ্যায় প্রথম ডোজ এবং দ্বিতীয় ডোজ টিকা দেওয়া হচ্ছে। বৃহস্পতিবার কাউন্টার খোলার পরে জানানো হয় এদিন প্রথম ডোজ পাবেন ৪০০ জন। আর দ্বিতীয় ডোজ পাবেন ২০০ জন। এর মধ্যে আবার ৫০ জন করে প্রবীণ নাগরিক প্রথম এবং দ্বিতীয় ডোজ পাবেন।

কিন্তু দেখা যায় প্রায় ৬০০ মানুষ এদিন সকাল থেকে প্রথম ডোজ নেওয়ার আশায় লাইনে দাঁড়িয়েছেন। তুলনায় দ্বিতীয় ডোজ নিতে আসা মানুষের সংখ্যা অনেক কম। প্রথম ডোজ নিতে আসা মানুষদের অনেককেই এদিন টিকা না পেয়ে বাড়ি ফিরতে হয়েছে। অনেকেই আবার একাধিক জায়গা ঘুরে টিকা না পেয়ে এসএসকেএম এসেছিলেন।

যেমন হাওড়া শিবপুরের অরিন্দম ধর। অরিন্দম বাবু প্রথম ডোজ নেওয়ার জন্য বেশ কয়েক দিন গিয়েছিলেন নিজের এলাকার টিকাদান কেন্দ্রে। সেখানে টিকা না পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে শম্ভুনাথ পণ্ডিত হাসপাতালে যান। কিন্তু সেখানে শুধুমাত্র দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হচ্ছে। তাই শেষমেষ এসএসকেএমের আসেন। কিন্তু সেখানে প্রথম ৪০০ জনের মধ্যে না আসতে পারায় টিকা না পেয়ে ফিরতে হলো তাঁকে।

একইভাবে হাওড়ার জগাছার বিমল কুমার দে এসেছিলেন প্রথম ডোজ নিতে। তিনি বলেন, 'সকাল বেলা থেকেই লাইনে দাঁড়িয়ে ছিলাম। কিন্তু প্রথম ৪০০ জনের মধ্যে আসতে না পারার জন্য আজ টিকা পেলাম না।'

Soujan Mondal

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published: