• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • উড়ালপুল দুর্ঘটনায় জোরদার নকশায় ত্রুটির তত্ত্ব

উড়ালপুল দুর্ঘটনায় জোরদার নকশায় ত্রুটির তত্ত্ব

উড়ালপুলে ৩টি বাঁক তৈরি নিয়েই সমস্যা তৈরি হয়েছিল। তবে গাফিলতি না থাকলে যে নির্মীয়মান ব্রিজ ভেঙে পড়া সম্ভব নয়, জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরাই। জোরদার হচ্ছে নকশায় গাফিলতির তত্ত্বও।

উড়ালপুলে ৩টি বাঁক তৈরি নিয়েই সমস্যা তৈরি হয়েছিল। তবে গাফিলতি না থাকলে যে নির্মীয়মান ব্রিজ ভেঙে পড়া সম্ভব নয়, জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরাই। জোরদার হচ্ছে নকশায় গাফিলতির তত্ত্বও।

২০০৯ সালে শুরু হয়েছিল বিবেকানন্দ উড়ালপুল তৈরির কাজ ৷ প্রথম থেকেই প্রযুক্তিগত জটিলতায় বারবার আটকে গিয়েছে হাওড়া থেকে বিবেকানন্দ রোডের সংযোগকারী এই ফ্লাইওভারের কাজ । প্রযুক্তিগত জটিলতা কাটাতে নকশায় বদল আনার পরিবর্তে জোড়াতালি দিয়ে কাজ চালাতে গিয়েই ঘটে গেল বৃহস্পতিবারের ভয়াবহ দুর্ঘটনা। বিবেকানন্দ রোড উড়ালপুল দুর্ঘটনার বিশ্লেষণে নেমে এমন তথ্যই সামনে উঠে আসছে।

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: ২০০৯ সালে শুরু হয়েছিল বিবেকানন্দ উড়ালপুল তৈরির কাজ ৷ প্রথম থেকেই প্রযুক্তিগত জটিলতায় বারবার আটকে গিয়েছে হাওড়া থেকে বিবেকানন্দ রোডের সংযোগকারী এই ফ্লাইওভারের কাজ । প্রযুক্তিগত জটিলতা কাটাতে নকশায় বদল আনার পরিবর্তে জোড়াতালি দিয়ে কাজ চালাতে গিয়েই ঘটে গেল বৃহস্পতিবারের ভয়াবহ দুর্ঘটনা। বিবেকানন্দ রোড উড়ালপুল দুর্ঘটনার বিশ্লেষণে নেমে এমন তথ্যই সামনে উঠে আসছে।

    প্রযুক্তিগত নাম স্ক্রিউ ব্রিজ। পিলারের ওপর লোহার বেস, তার ওপর কংক্রিটের স্লাব বসিয়ে তৈরি হয় এই ব্রিজ। বাঁক নেওয়া অংশের জন্যই এই ব্রিজকে বলা হয় স্ক্রিউ ব্রিজ। বিবেকানন্দ উড়ালপুলের ক্ষেত্রেও তেমনটাই হচ্ছিল। উড়ালপুলের পিলারটাই দুমড়ে গিয়ে ওপরের কংক্রিট স্লাব পড়ে যাওয়ায় বিস্মিত বিশেষজ্ঞরা। দুই পিলারের বদলে এক পিলার দিয়ে সেতু তৈরির নকশাতেই গলদ বলে মনে করছেন শহরের বিখ্যাত বিশেষজ্ঞ স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়ার ৷

    উড়ালপুলে ৩টি বাঁক তৈরি নিয়েই সমস্যা তৈরি হয়েছিল। তবে গাফিলতি না থাকলে যে নির্মীয়মান ব্রিজ ভেঙে পড়া সম্ভব নয়, জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরাই। জোরদার হচ্ছে নকশায় গাফিলতির তত্ত্বও।

    vlcsnap-2016-04-01-12h37m01s173

    উড়ালপুলের নির্মাণে জটিলতা কাটাতে ২ সংস্থার কাছে সাহায্য চাইলেও সেই সুপারিশও পুরোপুরি মানেনি আইভিআরসিএল। বুধবার রাতেও ঝালাইয়ের কাজ হয়। দীর্ঘদিন উড়ালপুলের রক্ষণাবেক্ষণও হয়নি। অর্ধেক কাজ করে ফেলে আসা অংশও দীর্ঘদিন একইভাবে পড়ে ছিল। পিলারভার ধরে রাখতে পারেনি বলেই চারমাথা মোড়ে উড়ালপুলের একটি অংশ প্রথমে ভেঙে পড়ে বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে।

    ৯১০ কোটি টাকার এই প্রকল্প রূপায়নে বারবার গাফিলতির অভিযোগ উঠেছে আইভিআরসিএলের বিরুদ্ধে। যদিও এই দুর্ঘটনার পর দায় নিতে নারাজ সংস্থা। যদিও হায়দরাবাদের এই সংস্থার বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলছেন খোদ মুখ্যমন্ত্রীই। গত সপ্তাহে কেএমডিএ -আইভিআরসিএল বৈঠকে মে মাসের মধ্যেই কাজ শেষের কথা জানিয়েছিল রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাটি। কেন সবকিছু খতিয়ে না দেখেই তারা কাজ শেষের সিদ্ধান্ত নিল, সেটাও এখনও স্পষ্ট নয়।

    First published: