কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

ধুন্ধুমার! চেয়ার ছোড়াছুড়ি নেতাজি ইন্ডোরে, মন্ত্রীদের ঘিরে বিক্ষোভ অসংগঠিত শ্রমিকদের

ধুন্ধুমার! চেয়ার ছোড়াছুড়ি নেতাজি ইন্ডোরে, মন্ত্রীদের ঘিরে বিক্ষোভ অসংগঠিত শ্রমিকদের

শেষে নেতাজি ইন্ডোরের সামনের রাস্তায় অবরোধ ৷ পরিস্থিতি এতটাই উত্তেজনাপূর্ণ যে লালবাজার সহ তিন থানার ফোর্স হাজির

  • Share this:

#কলকাতা: নেতাজি ইন্ডোরে ধুন্ধুমার । সেল্ফ এমপ্লয়েড লেবার অর্গানাইজেশনের অনুষ্ঠানে তুলকালাম। রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় ও মলয় ঘটকের সামনেই চুক্তিভিত্তিক শ্রমিকদের বিক্ষোভ। চলল চেয়ার ছোড়াছুঁড়ি। রীতিমতো মন্ত্রীদের ঘিরে ফেলে ক্ষোভ উগরে দিলেন এসএলও শ্রমিকেরা ৷ শেষে নেতাজি ইন্ডোরের সামনের রাস্তায় বসে পড়ে, ফেস্টুন ছিড়ে, গেট ভেঙে বিক্ষোভ চুক্তিভিত্তিক শ্রমিকদের। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পৌঁছায় হেয়ার স্ট্রিট থানা, হেস্টিংস থানা ৷ পরিস্থিতির এতটাই অবনতি হয় যে পার্কস্ট্রিট থানার পুলিশও ঘটনাস্থলে আসে ৷ অবরোধ হটাতে লালবাজার থেকে ডাকতে হল ফোর্স  ৷

স্থায়ী চাকরি, বেতন বৃদ্ধি-সহ বারো দফা দাবি নিয়ে এদিন নেতাজী ইন্ডোরে ছিল বৈঠক। শ্রম দফতরের সঙ্গে সারা বাংলা সেল্ফ এমপ্লয়েড লেবার অরগানাইজেশনের বৈঠকে দাবি পূরণ না হওয়ার অভিযোগ। তার জেরেই নেতাজি ইন্ডোরে তুলকালাম। হইহট্টগোল। মন্ত্রীদের সামনেই বিক্ষোভ। চলল চেয়ার ছোড়াছুড়ি। এমনকী তাদের ঘিরে ফেলে বিক্ষোভ দেখানো হয় বলে অভিযোগ ৷

অনুষ্ঠানে এদিন হাজির হয়েছিলেন মন্ত্রী মলয় ঘটক, ফিরহাদ হাকিম, সাধন পাণ্ডে, শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। একে একে বেরিয়ে যান শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়, সাধন পাণ্ডে। এরপর মন্ত্রী মলয় ঘটক ও ফিরহাদ হাকিমের সামনে চলে উত্তেজক স্লোগানিং। তাতে মলয় ঘটক ও ফিরহাদ হাকিম বেরিয়ে যাওয়ার পর ভিতরের বিক্ষোভ চলে আসে নেতাজি ইন্ডোরের সামনের রাস্তায়। ক্ষুব্ধ এসএলও শ্রমিকেরা বসে পড়েন অবরোধে। ফ্লেক্স-ব্যানার ছিড়ে ফেলেন আন্দোলনকারীরা। লাথি মেরে এসএলও পোস্টার দেওয়া গেট ভেঙে দেন তাঁরা। ক্যামেরায় ধরা পড়ে মন্ত্রীর ছুঁড়ে দেওয়া ফ্লেক্সে জুতো, লাথি মারতে থাকেন বিক্ষুব্ধ শ্রমিকেরা ৷

পরপর মন্ত্রীদের স্টেজে বক্তব্য শুনে নিরাশার দানা বাঁধছিল কর্মীদের মধ্যে | শেষ কাল হল মন্ত্রী মলয় ঘটকের বক্তব্যের সময়ে ৷ slo দের মাসিক বেতন সহ বারো দফার দাবি ছিল বহুদিন ধরে, কিন্তু মলয় ঘটক বক্তৃতা শেষে বলেন," সরকার আর্থিক অনটন মধ্যে যাচ্ছে ৷ কয়েকটা দিন অপেক্ষা করুন ৷ সুখবর আশা করি কিছু দিন পর দিতে পারব৷ " এরপরই অশান্তির শুরু ৷ কিছু কর্মী হতাশ হয়ে গ্যালারি থেকে বেরিয়ে যেতে শুরু করে ৷ আর বাকি কর্মীরা দাবি না পূরণ হওয়াতে স্লোগান দিতে থাকে মন্ত্রী মলয় ঘটকের সামনেই | চিৎকার চরম বিশৃঙ্খলা তুমুল অশান্তি শুরু হয় ৷ বাকি মন্ত্রীরা আগে বেরোলেও বক্তৃতা শেষে মন্ত্রী মলয় ঘটক ও ফিরহাদ হাকিম বেরোনো সময় মন্ত্রীদের ঘিরে তুমুল বিক্ষোভ শুরু হয় ৷ কোনও মতে বেরোন মন্ত্রীরা ৷ তখন স্টেজে ও নেতাজি ইন্ডোর ভিতরে চেয়ার ছোড়া শুরু, গন্ডগোল তুমুল অশান্তির চেহারা নেয় | এরপর পুলিশ ইন্ডোরে থেকে সবাইকে বের করে দেয় ৷কিন্তু তখনও দ্বিতীয় দফার অশান্তির আগুন বাকি ছিল ৷

slo কর্মীদের অভিযোগ, " দীর্ঘ ৯ মাস চরম কষ্ট বঞ্চনা মধ্যে কাটিয়েছেন | বারবার বলা সত্ত্বেও কোনো ভাবেই সমস্যা সমাধান হয়নি | আজ আমরা শুনেছিলাম সমস্যা মিটবে, তাই দূর দুরন্ত জেলা থেকে মানুষ এসেছে | কিন্তু এসে দেখলাম মন্ত্রী পুরো হতাশ করল ৷ এটা আমাদের পেটের ব্যাপার ৷ কি করে চুপ করে থাকব? " কিছুক্ষনের মধ্যে কর্মীরা নেতাজি ইন্ডোরে সামনের রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ শুরু করে, শুরু করে মন্ত্রী দের বিরুদ্ধে স্লোগান | ঘটনাস্থলে সামাল দিতে ময়দান, হেয়ার স্ট্রিট থানা ছাড়াও ডাকা হয় বাকি আশপাশের থানাকে ৷ লালবাজারের বিশাল টিম ঘটনাস্থলে আসে ৷ আসে পার্কস্ট্রিট, হেস্টিংস থানার আধিকারিকরা ৷ অ্যাসেম্বলি দিকে যাওয়ার রাস্তা সঙ্গে সঙ্গে গার্ডরেল দিয়ে ঘিরে ফেলে পুলিশ ৷ এরপর দফায় দফায় পুলিশ বোঝানো চেষ্টা করেও সুরাহা হয়নি ৷ পুলিশের সামনে লাথি মেরে চুরমার করে ভেঙে দেওয়া হয় অনুষ্ঠানের গেট ৷ জুতো ছুড়ে মারা হয় গেটের ফেস্টুনে থাকা মন্ত্রীদের ছবিতে ৷

Slo দের দাবি, তাদের দাবি না মিটলে এই বিক্ষোভ চলবেই ৷ বন্ধ করা হয় যানবাহন চলাচল ৷ বারবার বুঝিয়েও পুলিশ তাদেরকে সরাতে পারেনি ৷ কয়েক ঘন্টা পর পুলিসের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের ধস্তাধস্তি বচসা শুরু হয় ৷ বিক্ষোভকারীদের দাবি, কয়েকজন আহত হন পুলিশের মারধরে ৷ যদিও পুলিশের পাল্টা দাবি তারা কাউকে মারধর করেনি ৷ রাস্তা থেকে ভিড় সরিয়েছে ৷ কিছুক্ষণ পর বিক্ষোভকারীদের ফুটপাতে তুলে দেওয়া হয় ৷ রাস্তা যানবাহন চলাচল শুরু করে ৷ এরপরও সন্ধেতে বারবার পুলিশ বোঝানো চেষ্টা করলেও তারা কর্ণপাত করেননি ৷ লালবাজার থেকে বিশাল ফোর্স আসে ঘটনাস্থলে ৷ বিক্ষোভকারীরা জানিয়েছেন, তাদের সমস্যা সুরাহা না হলে এই বিক্ষোভ চলবে আগামিদিনেও ৷ সন্ধে ৬ টা নাগাদ পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসে ৷ যদিও নেতাজি ইন্ডোরে ভিতরে ও বাইরে বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে ৷

অর্পিতা হাজরা

Published by: Elina Datta
First published: December 28, 2020, 4:49 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर