বাংলার প্রতিভাবান স্কেটার, খেলার থেকে এখন স্পনসরশীপের লড়াই সবচেয়ে বড়

বাংলার প্রতিভাবান স্কেটার, খেলার থেকে এখন স্পনসরশীপের লড়াই সবচেয়ে বড়

ক্রিকেট ছাড়া দেশের কোনও খেলাতেই স্পনসর জোটে না। এখন এটাই লড়াই প্রতিভাবান কুশাদ চক্রবর্তীর।

  • Share this:

#কলকাতা: কুশাদ শব্দের অর্থ প্রতিভাবান। এখন নিজের নামের মান রাখতে প্রস্তুতি বছর ১৩ রোলার স্কেটারের। সামনেই চার-চারটে প্রতিযোগিতা। যার শেষটা ন্যাশনাল। লক্ষ্য এখন জাতীয় পদক।

ভোর চারটে থেকে শুরু। ঘন্টাদুয়েকের প্র্যাকটিস। ঘরে ফিরে ফের স্কুল যাওয়ার প্রস্তুতি। টিফিনের সময়, অন্য বাচ্চারা যখন হুড়োহুড়ি আর খেলায় মত্ত, ঠিক তখন, স্কেটিং-এ ব্যস্ত ক্লাস এইটের কুশাদ চক্রবর্তী। বিকেলে বাড়ি ফিরে আবার ডুবে যেতে হয় প্র্যাকটিসে।

ছোটবেলায় দুষ্টুমির কারণেই স্কেটিং ক্লাসে ভর্তি। তখন হরিয়ানায় পোস্টিং বাবার। সেখানেই শিক্ষার শুরু। প্রথম প্রতিযোগিতাতেই বাজিমাত। এরপর একের পর এক পদক। স্কুল গেমস থেকে বয়সভিত্তিক রাজ্যস্তর পদক এসেছে ঘরে। আর স্পোর্টসম্যানের জীবনে ফিট থাকার কারণে নিষেধাজ্ঞাও এসেছে জীবনে।

আশাবাদী দুই কোচও। একজন স্কুলের, অন্যজন ব্যক্তিগত। দুজনের কাছেই নিয়ম করে প্র্যাকটিস। বিড়লা স্কুলের হয়েই সম্প্রতি ফার-ইস্ট রোলার স্কেটিং চ্যাম্পিয়নশিপ। পরের দুমাস একের পর এক চারটে প্রতিযোগিতা। প্রস্তুতি।

একই স্বপ্ন বাবা-মার চোখে। রোলার স্কেটিং ২০২০-র সিওলে থাকলেও এবার আর সম্ভব নয়, তাই ২০২৪-এর দিকে তাকিয়ে কুশাদ। ক্রিকেট ছাড়া দেশের কোনও খেলাতেই স্পনসর জোটে না। এখন এটাই লড়াই প্রতিভাবান কুশাদ চক্রবর্তীর।

First published: November 7, 2019, 9:13 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर