• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • ভাইফোঁটার দিন দাদাকে নিজের কিডনি দিয়ে জীবনদান বোনের !

ভাইফোঁটার দিন দাদাকে নিজের কিডনি দিয়ে জীবনদান বোনের !

কলকাতার বাইপাস সংলগ্ন একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন দাদাকে আক্ষরিক অর্থেই জীবন দিলেন তাঁর ছোট বোন ৷

কলকাতার বাইপাস সংলগ্ন একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন দাদাকে আক্ষরিক অর্থেই জীবন দিলেন তাঁর ছোট বোন ৷

কলকাতার বাইপাস সংলগ্ন একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন দাদাকে আক্ষরিক অর্থেই জীবন দিলেন তাঁর ছোট বোন ৷

  • Share this:

    #কলকাতা: ভাইয়ের মঙ্গলের কামনায় সব বোনেরাই ভাইফোঁটার দিন তাঁদের প্রিয় ভাই বা দাদাকে ভাইফোঁটা দেন ৷ কপালে ঘি-চন্দন এবং মুখে মিষ্টি দিয়েই ভাইকে ফোঁটা দেওয়ার রীতি চলছে বছরের পর বছর ৷ ভাইয়ের দীর্ঘায়ুর কামনা সব বোনেরাই করে ৷ কিন্তু এবছর ভাইফোঁটার দিন শহরে এমন একটা ঘটনা ঘটেছে ৷ যা হয়তো কেউই কখনও ভুলতে পারবেন না  ৷ কলকাতার বাইপাস সংলগ্ন একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন দাদাকে আক্ষরিক অর্থেই জীবন দিলেন তাঁর ছোট বোন ৷

    বছর পঁয়তাল্লিশের বাপি বন্দ্যোপাধ্যায়ের দুটি কিডনিই বিকল হয়ে পড়েছিল ৷ তাই তাঁকে বাঁচানো ক্রমেই অসম্ভব হয়ে পড়েছিল ডাক্তারদের ৷ মৃতপ্রায় দাদাকে প্রাণ ফিরিয়ে দিলেন বোন  বেবি মুখোপাধ্যায় ৷ নিজের একটি কিডনি দান করেছেন তিনি ৷ গত মে মাস থেকেই কিডনি সমস্যায় ভুগছিলেন বাপি বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ কিডনির অবস্থা এতটাই খারাপ হয়, যে তাঁকে বাঁচানো প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়েছিল ৷ দাদার এমন খারাপ অবস্থা জেনেই তাঁর জন্য এগিয়ে আসেন বোন বেবি ৷ দু’জনের রক্তের গ্রুপ একই হওয়াতে কিডনি প্রতিস্থাপণেও কোনও অসুবিধা হয়নি ডাক্তারদের ৷

    এর আগেও কিডনি প্রতিস্থাপণের প্রসঙ্গ উঠলেও শেষপর্যন্ত ১ নভেম্বর ভাইফোঁটার দিনেই দাদাকে নিজের কিডনি দান করলেন বোন ৷  প্রচণ্ড টেনশনের মধ্যে মাঝের কয়েকটা মাস কেটেছে বলে দাদাকে বাঁচানো ছাড়া আর কোনও কিছুই মাথায় ছিল না পরিবারের ৷ এমনকী, কিডনি প্রতিস্থাপনের দিন যে ঘটনাচক্রে ভাইফোঁটা ছিল, সেটাও তাঁদের খেয়াল ছিল না বলেই জানিয়েছেন বেবি ও তাঁর পরিবার ৷

    চিকিৎসকরা জানিয়েছেন কিডনি প্রতিস্থাপনের অস্তোপচার সফলভাবেই হয়েছে। দাদা-বোন দু’জনেই সুস্থ রয়েছেন এখন ৷

    First published: