• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • SISIR ADHIKARY NAME IN SUVENDU ADHIKARI CASE IN CALCUTTA HIGH COURT SMJ

শুভেন্দু মামলায় আদালতে উঠে এল শিশির অধিকারীর নাম! কেন?  

শিশির অধিকারীর অবস্থান জানতে চাইলেন খোদ হাইকোর্ট বিচারপতি কৌশিক চন্দ।

শিশির অধিকারীর অবস্থান জানতে চাইলেন খোদ হাইকোর্ট বিচারপতি কৌশিক চন্দ।

  • Share this:

#কলকাতা:

হাইকোর্টে শুভেন্দু মামলায় উঠে এল শিশিরের নাম। শিশির অধিকারীর অবস্থান জানতে চাইলেন খোদ হাইকোর্ট বিচারপতি কৌশিক চন্দ। শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেন ১৯ ডিসেম্বর ২০২০। শুভেন্দু অধিকারীর দেখানো পথে হেঁটে দলবদল করেন সৌমেন্দু অধিকারীও। দলবদল করতে সৌমেন্দুকে কাঁথি পুরসভার প্রশাসক পদ থেকে সরানো হয়। শুনানি চলাকালীন এমন তথ্য জেনে, বিচারপতি কৌশিক চন্দ শুভেন্দু অধিকারীর আইনজীবী পি এস পাটওয়ালিয়াকে প্রশ্ন ছোঁড়েন, "শিশির অধিকারী বর্তমান অবস্থান কী?" "এখন তিনি কোন দিকে?"

যদিও পরে বিচারপতি নিজেই প্রসঙ্গটি ছেড়ে দিতে বলেন। কাঁথিতে মোদির নির্বাচনী জনসভায় উপস্থিত ছিলেন শিশির অধিকারী। নন্দীগ্রামে ভোটে মেজো ছেলের হয়ে প্রচারও করেন শিশির। তার পর থেকে বেশ কিছুদিন চুপচাপ শিশির। নন্দীগ্রাম ভোটে জিতেছেন শুভেন্দু অধিকারী। তবে বর্ষিয়ান শিশির অধিকারী রাজনৈতিক অবস্থান পুরোপুরি স্পষ্ট নয় এখনও।এই অবস্থায় বিচারপতির মন্তব্যে বেশ শোরগোল।

কাঁথি থানার ত্রিপল চুরি এফআইএর খারিজ চেয়ে মামলা করেন শুভেন্দু ও সৌমেন্দু। মামলায় ইতিমধ্যেই একজন গ্রেফতার হয়েছেন। গ্রেফতারি আশঙ্কা থেকেই হাইকোর্টে মামলা ঠোকেন শুভেন্দু অধিকারী।রক্ষাকবচ জোগাড়ে এদিন মুকুলকে হাতিয়ার করেন শুভেন্দু অধিকারীর আইনজীবী। তিনি আদালতকে জানান,২০১৭ মুকুল রায় তৃণমুল কংগ্রেস দল ছাড়তেই ২৩-২৪টি এফআইআর হয় তাঁর বিরুদ্ধে। বিজেপিতে যোগদানের জন্যই রাজ্যের পুলিশ সেই মামলা করে। ২০১২ সালে রেলমন্ত্রী থাকাকালীন টাকা নিয়েছেন, এই মর্মে দল বদল করতেই মুকুলের বিরুদ্ধে এফআইআর হয় ২০১৭ সালে। এই এফআইআর রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত বলে কোলকাতা হাইকোর্ট রক্ষাকবচও দেয়। অনুরুপ পরিস্থিতি এখন দলবদল করে শুভেন্দু অধিকারী বিরোধী দলনেতা হওয়ায় এমনই সওয়াল শুভেন্দু অধিকারী আইনজীবীর।

বিচারপতি কৌশিক চন্দ প্রাথমিক পর্যবেক্ষণে জানান, "জোর করে বাড়িতে ঢোকা এবং চুরির অভিযোগ সরাসরি খাটে না মামলাকারী শুভেন্দু ও সৌমেন্দুর ওপর। দুজনের ইনস্ট্রাকশনে কিছু হয়েছিল কিনা সেটাই প্রধান ধর্তব্য।" বুধবার মামলায় পুলিশের অবস্থান স্পষ্ট করবেন অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত। বুধবার দুপুর দুটোয় শুনানি।

Published by:Suman Majumder
First published: