corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা মোকাবিলায় শ্যামবাজার ও হাতিবাগান বাজারে স্প্রে পুরসভার, নেতৃত্বে ডেপুটি মেয়র

করোনা মোকাবিলায় শ্যামবাজার ও হাতিবাগান বাজারে স্প্রে পুরসভার, নেতৃত্বে ডেপুটি মেয়র

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় উত্তর কলকাতার হাতিবাগান এবং শ্যামবাজারের মত দুটি গুরুত্বপূর্ণ বাজার স্যানেটাইজ করল পুরসভা

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় উত্তর কলকাতার হাতিবাগান এবং শ্যামবাজারের মত দুটি গুরুত্বপূর্ণ বাজার স্যানেটাইজ করল পুরসভা। মঙ্গলবার বেলা একটার পর বাজারের বিক্রি-বাট্টা প্রায় বন্ধ হওয়ায় পর এই কাজ করা হয়।

করোনা ভাইরাসের থেকে বাঁচার জন্য প্রত্যেকেই এখন সর্বদা সতর্ক। সরকারের তরফ থেকেও একাধিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে প্রতিদিন। কিন্তু জনজীবন বন্ধ থাকলেও খোলা রয়েছে সবজি,মাছ, মাংসের বাজার। সেখানে রোজ হাজির হচ্ছেন বহু মানুষ। তাই বাজারগুলোকে জীবাণুমুক্ত করতে কলকাতা পুরসভার পক্ষ থেকেও একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে ইতিমধ্যেই।

মঙ্গলবারও পুরসভার ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষের উপস্থিতিতে উত্তর কলকাতার দুটি গুরুত্বপূর্ণ বাজার, হাতিবাগান ও শ্যামবাজার স্যানেটাইজ করা হল। বেলা একটার পর বাজারে কাঁচা আনাজ এবং মাছ-মাংস বিক্রি প্রায় শেষ হয়ে যাওয়ার পর স্যানিটাইজ করা শুরু করে পুরসভা। হাতিবাগান বাজারের প্রতিটা গেট দিয়ে আলাদা আলাদা ভাবে জীবাণু মুক্ত করা হয়। একি ভাবে স্যানেটাইজেশন করা হয় শ্যামবাজারেও।

অতিন ঘোষ বলেন, 'বাজারে প্রতিদিন বহু মানুষ আসছেন। কে কোথা থেকে আসছেন আমরা তো জানি না। তারপর আবার উত্তর কলকাতাতেও করোনা ভাইরাস ঢুকে পড়েছে। আমাদের সাবধান হতেই হবে। তাই জীবাণু বিনাশ করার জন্য এই কাজটা হচ্ছে।' তিনি আরও বলেন, 'আমরা এই কাজটা সোডিয়াম হাইপোথোরাইড জলের সঙ্গে মিশিয়ে স্প্রে করে করছি।'

পুরসভার এই কাজে খুশি দুই বাজারের ব্যবসায়ী সমিতি। হাতিবাগান বাজার ব্যবসায়ী সমিতির যুগ্ম সম্পাদক সাধন সরকার বলেন, 'পুরসভার এই উদ্যোগে আমরা খুশি। বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাস যেরকম দাপট দেখাচ্ছে তাতে এই রকম ভাবে জীবাণু না মারতে পারলে পরিস্থিতি কোথায় পৌঁছাবে তা আমরা কেউ জানিনা। বাজারে প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ আসেন। তাদের সকলকে আমাদের পক্ষে পরীক্ষা করে বাজারে ঢোকানো সম্ভব নয়। তাই এইভাবে স্প্রে করে করোনার মোকাবিলা করা ছাড়া উপায় নেই।'

SOUJAN MONDAL

Published by: Rukmini Mazumder
First published: March 31, 2020, 5:48 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर