Home /News /kolkata /
Bansdroni Shootout: কলকাতায় ফের দিনেদুপুরে শ্যুটআউট, গুলির পাল্টা গুলি! সিন্ডিকেট বিবাদে আহত ২

Bansdroni Shootout: কলকাতায় ফের দিনেদুপুরে শ্যুটআউট, গুলির পাল্টা গুলি! সিন্ডিকেট বিবাদে আহত ২

বাঁশদ্রোণীর ঘটনাস্থলে পুলিশ৷

বাঁশদ্রোণীর ঘটনাস্থলে পুলিশ৷

গুলিবিদ্ধ দুই ব্যবসায়ী মলয় দত্ত ও বিশ্বনাথ সিং একসময় একসঙ্গে জমি কেনাবেচার কাজ করতেন৷

  • Share this:

#কলকাতা: সিন্ডিকেট সংক্রান্ত বিবাদে ফের শহরে দিনেদুপুরে শ্যুটআউট৷ এবার ঘটনাস্থল দক্ষিণ কলকাতার বাঁশদ্রোণীর ব্রহ্মপুর এলাকা৷ শ্যুটআউটের ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়েছেন দুই ব্যবসায়ী৷ আহত দু' জনের নাম মলয় দত্ত ও বিশ্বনাথ সিং ওরফে বাচ্চা৷ আহত মলয় দত্ত এই মুহূর্তে এসএসকেএম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন৷ আর এক আহত ব্যবসায়ী বিশ্বনাথ সিং ই এম বাইপাস সংলগ্ন একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি৷

জানা গিয়েছে, গুলিবিদ্ধ দুই ব্যবসায়ী মলয় দত্ত ও বিশ্বনাথ সিং একসময় একসঙ্গে জমি কেনাবেচার কাজ করতেন৷ রিজেন্ট পার্ক এলাকার বাসিন্দা উত্তম মণ্ডল নামে এক প্রমোটারের হয়ে কাজ করতেন তাঁরা৷ কিন্তু কিছুদিন আগে বিশ্বনাথকে কাজ থেকে বাদ দিয়ে দেন উত্তম৷

আরও পড়ুন: মর্মান্তিক! মহেশতলায় অগ্নিকাণ্ডে মা ও দুই সন্তানের মৃত্যুর ঘটনায় নয়া মোড়, গ্রেফতার কে? শুনলে শিউরে উঠবেন...

সূত্রের খবর, বাঁশদ্রোণী থেকে নরেন্দ্রপুর পর্যন্ত বেশ কিছু জমি কেনা ছিল মলয় ও বিশ্বনাথের৷ কিন্তু ব্যবসায়িক বিচ্ছেদের পরে মলয় সেই জমিগুিল উত্তম মণ্ডলকে বিক্রি করতে শুরু করে বলে অভিযোগ৷ এই খবর পেয়েই বিশ্বনাথ মলয়ের কাছে জমি বিক্রি বাবদ নিজের প্রাপ্য অর্থ দাবি করে৷ এই নিয়েই বেশ কিছুদিন ধরে দু' জনের মধ্যে বিবাদ চলছিল বলে স্থানীয় সূত্রে খবর৷

জানা গিয়েছে, বিষয়টির নিষ্পত্তি করতে এ দিন বাঁশদ্রোণীর ব্রহ্মপুরে নিজের অফিসে বিশ্বনাথকে ডেকে পাঠায় মলয়৷ অভিযোগ, আগে থেকে সেখানে সশস্ত্র দু' তিনজন যুবককে তৈরি রেখেছিল মলয়৷ বিশ্বনাথ সিং আসার পর আলোচনা শুরু হতেই ফের দু' পক্ষে বচসা বাঁধে৷ অভিযোগ, তখনই মলয়ের অফিসে থাকা ওই যুবকরা বিশ্বনাথ সিংকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়৷ তার পিঠে গুলি লাগে বলে অভিযোগ৷

আরও পড়ুন: খাস কলকাতায় ভেজাল সিমেন্টের কারখানা, ঠকছেন ক্রেতারা! কিছুই জানে না প্রশাসন?

পাল্টা মলয়কে লক্ষ্য করে গুলি চালায় বিশ্বনাথও৷ গুলি লাগে মলয় দত্তের বুকের ডানদিকে৷ গুলির শব্দ পেয়ে ছুটে আসেন স্থানীয়রা৷ সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থল ছেড়ে পালায় বাকিরা৷ খবর যায় পুলিশে৷ আহত মলয় দত্তকে প্রথমে এম আর বাঙ্গুর এবং পরে সেখান থেকে এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ গুলিবিদ্ধ বিশ্বনাথ সিং-কে গড়িয়ার কাছে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে৷ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷ খতিয়ে দেখা হচ্ছে সিসিটিভি ফুটেজ৷

স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিলর সন্দীপ দাসের অবশ্য দাবি, পুরোপুরি ব্যবসায়িক শত্রুতা থেকেই এই ঘটনা ঘটেছে৷ এর সঙ্গে রাজনীতির কোনও যোগ নেই৷ যদিও স্থানীয় সূত্রে খবর, আহত দুই ব্যবসায়ীই তৃণমূল ঘনিষ্ঠ হিসেবেই এলাকায় পরিচিত৷

মলয় দত্তের স্ত্রী মৌসুমী দত্তের অবশ্য পাল্টা অভিযোগ, তাঁর স্বামীর  অফিসে ঢুকে গুলি চালিয়েছে বিশ্বনাথ সিং-ই৷ মলয় এবং বিশ্বনাথ ছোটবেলার বন্ধু ছিল বলে জানিয়েছেন মৌসুমীদেবী৷ তাঁর আরও দাবি, বিশ্বনাথের কাছে ২২ লক্ষ টাকা পাওনা ছিল মলয়ের৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Crime News, Shootout

পরবর্তী খবর