• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই কসবা খুনের রহস্যভেদ, গ্রেফতার ফ্ল্যাটের সাফাইকর্মী শম্ভু কয়াল

২৪ ঘণ্টার মধ্যেই কসবা খুনের রহস্যভেদ, গ্রেফতার ফ্ল্যাটের সাফাইকর্মী শম্ভু কয়াল

Representative Image

Representative Image

  • Share this:

    #কলকাতা: ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই কসবা খুনের রহস্যভেদ ৷ শম্ভু কয়ালকে গ্রেফতার করল পুলিশ ৷ আবাসনের সাফাইকর্মী ছিল শম্ভু ৷ পুলিশের প্রাথমিক অনুমান,  ২৭ হাজার টাকা নিয়ে বিবাদের জেরেই এই খুন ৷ এই খুনে কি আরও কেউ জড়িত? খতিয়ে দেখছে পুলিশ। তবে, তদন্তে নেমে পুলিশ বুঝতে পেরেছে, ধৃত শম্ভু ছক কষে তাদের বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করেছিল।

    পুলিশ সূত্রে খবর, ঘটনার দিন ২৭হাজার টাকা ফেরত চান শীলাদেবী ৷ সেই সময়ই দু’জনের মধ্যে বচসা বাঁধে ৷ এরপরই দেওয়ালে মাথা ঠুকে শীলা চৌধুরীকে খুন  করে শম্ভু ৷ তারপর মৃত্যু নিশ্চিত করতে শীলাদেবীর মুখে বালিশ চাপা দেয় অভিযুক্ত ৷

    আরও পড়ুন: প্রণব মুখোপাধ্যায়কে প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী করার পথে আরএসএস, দাবি শিবসেনার

    পুলিশের জেরার মুখে শম্ভু জানিয়েছে, সে প্রায়ই শীলাদেবীর বাড়ি যেত ৷ এমনকী, শম্ভুর সঙ্গে শীলাদেবীর ব্যক্তিগত সম্পর্ক ছিল বলেও দাবি করে শম্ভু ৷ এরপরই ব্যক্তিগত প্রয়োজনে শীলাদেবীর থেকে ২৭ হাজার টাকা ধার নেয় শম্ভু ৷ সেই টাকা ফেরত দেওয়া নিয়েই দীর্ঘদিন ধরেই দু’পক্ষের মধ্যে বচসা চলছিল ৷

    প্রসঙ্গত, ২৭হাজার টাকাই নয় ৷ শীলাদেবীর কাছ থেকে মাঝেমধ্যেই টাকা চাইত অভিযুক্ত সাফাইকর্মী ৷ শম্ভু ছাড়াও আরও চারজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ ৷

    রবিবার সকালে কসবায় এক বৃদ্ধার অর্ধনগ্ন মৃতদেহ উদ্ধারকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে গোটা এলাকা ৷ শীলাদেবী ন্যাশনাল অ্যাটলাস থিমেটিক অ্যান্ড ম্যাপিং এর আধিকারিক ছিলেন ৷ তাঁর ছেলে বিদেশে কর্মরত ৷ তাঁর সল্টলেকেও একটি ফ্ল্যাট রয়েছে ৷ তবে, মাঝে মধ্যে কসবার ফ্ল্যাটে থাকতেন শীলা চৌধুরি ৷ তাঁর ফ্ল্য়াটেই কাজ করত শম্ভু ৷

    তদন্তকারীদের অনুমান, বারান্দায় থাকা দড়িকে হাতিয়ার করেই তদন্তকারীদের বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করেছিল শম্ভু। প্রথমে সে ফ্ল‍্যাটের মধ‍্যে মহিলার একটি পোশাকে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। তার ছক ছিল, নীচ থেকে দড়িতে টান দিয়ে সিলিন্ডারটি খুলে দেওয়ার। যাতে গ‍্যাস বেরোতে শুরু করলেই জ্বলন্ত পোশাক থেকে আগুন ধরে যায় ফ্ল‍্যাটে এবং সিলিন্ডার বিস্ফোরণ ঘটে। যাতে সবাই মনে করে, সিলিন্ডার বিস্ফোরণে বা আগুনে মৃত‍্যু হয়েছে প্রৌঢ়ার। কিন্তু, শেষমেশ তা আর হয়নি। পারিপার্শ্বিক তথ‍্যপ্রমাণ খতিয়ে দেখে এবং ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ নিশ্চিত হয়ে যায়, খুনের পিছনে রয়েছে পরিচিতর হাত। সেই পরিচিত আর কেউ নয়, সাফাইকর্মী শম্ভু কয়াল।

    First published: