corona virus btn
corona virus btn
Loading

বান্ধবীর নতুন স্কুটি চালানোর মোহ প্রাণ কেড়ে নিল স্কুল ছাত্রীর

বান্ধবীর নতুন স্কুটি চালানোর মোহ প্রাণ কেড়ে নিল স্কুল ছাত্রীর

বান্ধবীর নতুন স্কুটি দেখে স্কুটি চালানোর শখ সংযম করতে না পারাই হল কাল । স্কুটি চালানো শিখতে গিয়ে মৃত্যু হল নবম শ্রেণীর ছাত্রীর।

  • Share this:

Rajarshi Roy

#হাবড়া: বান্ধবীর নতুন স্কুটি দেখে স্কুটি চালানোর শখ সংযম করতে না পারাই হল কাল । স্কুটি চালানো শিখতে গিয়ে মৃত্যু হল নবম শ্রেণীর ছাত্রীর। মৃতা বানিপুর বানি নিকেতনের ছাত্রী। একই দুর্ঘটনায় আহত মৃত ছাত্রীর এক বান্ধবী । ঘটনাটি ঘটেছে হাবড়া থানা এলাকার পৃথিবা পঞ্চায়েতের জশুর এলাকায় ঘটে। মৃত ছাত্রীর নাম ববি দে (১৫) এবং আহত বান্ধবী অঙ্কিতা সরকার।

বৃহস্পতিবার এক বান্ধবী নতুন স্কুটি নিয়ে, ববি-কে দেখাতে আসে । ববি স্কুটি দেখেই উদ্বেল হয়ে উঠে। বান্ধবী অঙ্কিতাকে সে চেপে ধরে, তাঁকে স্কুটি চালাতে দেওয়ার জন্য। নাছোড় বান্ধবীর আবদার মেটাতে অঙ্কিতা চাবি দেয় বান্ধবীকে। ববিকে একা স্কুটি চালাতে না দিয়ে নিজেও চড়ে বসে। দু’জন মিলে নতুন স্কুটি নিয়ে বড় রাস্তায় উঠতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দা গোবিন্দ দাস। তাঁর কথায়, বানীপুরের রাস্তায় বেড়াচাঁপার দিকে পাড়ার মেয়ে ববি একজন-কে নিয়ে স্কুটি করে যাচ্ছে। তার মনে প্রশ্ন জাগে ওই মেয়েটি কোনও দিন স্কুটি চালায়নি। তারপরও নতুন হাতে নতুন স্কুটি নিয়ে মেন রোডে উঠেছে। মনে মনে আঁতকে ওঠেন তিনি। কিছু সময় পরেই ববি স্কুটি নিয়ে অঙ্কিতাকে নিয়ে বদর বেড়াচাঁপা রোডে চালাতে শুরু করে।

habra scooty acci stil (1)

কিন্তু দু’চাকা চালানোর বর্ণপরিচয়হীন ববি কিছুক্ষনের মধ্যেই নিয়ন্ত্রণ হারায়। বানীপুর পিজিবিটি কলেজের পাঁচিলে সটান ধাক্কা মারে ববি। ধাক্কার জেরে গুরুতর জখম হয় তারা। দুমড়ে যায় আঙ্কিতার নতুন স্কুটি। স্থানীয়রা আহত দু’জনকে হাবড়া হাসপাতালে নিয়ে আসে। দেওয়ালে স্কুটি ধাক্কা দেওয়ায় ববির চোট লাগে মাথায়। হাসপাতালের জরুরি বিভাগে প্রাথমিক চিকিৎসার পরই ববিকে আর জি কর হাসপাতাল স্থানান্তরিত করার পরামর্শ দেয় চিকিৎসকরা।

অঙ্কিতাকে বারাসত জেলা সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়। মাঝ রাস্তায় মারা যায় ববি। তাকে ফিরিয়ে আনা হয় হাবড়া হাসপাতালে। ঘটনায় শোকের ছায়া এলাকায়। হাবরা থানার আইসি গৌতম মিত্র জানান, অঙ্কিতার মাথায় হেলমেট থাকলেও, চালকের আসনে থাকা ববি কোনও হেলমেট পরে ছিল না। তিনি এও জানান , বরাবর হাবরা থানার পক্ষ থেকে সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ নিয়ে প্রচার চালানো হয়।

মানুষ সচেতন হলে এমন দুর্ঘটনা এড়ানো যায়। ট্রাফিক নিয়ম মেনে স্কুটি বা গাড়ি চালানো শিখে রাস্তায় উঠলে এমন বড় দুর্ঘটনার শিকার মানুষ কম হয় বলে তার মত। এ ব্যাপারে অভিভাবকদের আরও সচেতন করার জন্য ব্যাপক প্রচার অভিযানে নামা হবে , জানান হাবরা থানার আইসি গৌতম মিত্র।

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: December 27, 2019, 2:29 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर