কলকাতা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

স্ত্রী সুজাতাকে বিবাহ বিচ্ছেদের নোটিস, কান্নায় ভেঙে পড়লেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ

স্ত্রী সুজাতাকে বিবাহ বিচ্ছেদের নোটিস, কান্নায় ভেঙে পড়লেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ
সৌমিত্র খাঁ ও সুজাতা মণ্ডল খাঁ৷
  • Share this:

#কলকাতা: স্ত্রী সুজাতা খাঁ তৃণমূলে যোগ দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তাঁকে বিবাহ বিচ্ছেদের নোটিস পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিলেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ৷ নিজেই এ কথা জানালেন বিষ্ণুপুরের সাংসদ৷ এ দিনই বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন বিষ্ণপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ-এর স্ত্রী সুজাতা মণ্ডল খাঁ৷ তার পরেই সাংবাদিক সম্মেলন করে এ কথা জানিয়েছেন সৌমিত্র৷ বিবাহ বিচ্ছেদের কথা ঘোষণা করতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন সৌমিত্র৷ তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে সংসার ভাঙার অভিযোগ এনেছেন সৌমিত্র৷ তাঁর দাবি, সুজাতাকে ভুল বোঝানো হয়েছে৷

সৌমিত্র জানিয়েছেন, বেশ কিছু দিন ধরে সুজাতার সঙ্গে তাঁর বিবাদ চলছিল৷ বিজেপি কোনও পদ না দেওয়ায় সুজাতা অস্বীকার করেছিলেন বলে দাবি সৌমিত্রের৷ যদিও সুজাতা যে শেষ পর্যন্ত তৃণমূলে যোগ দেবেন তা তিনি স্বপ্নেও ভাবেননি বলে জানিয়েছেন সৌমিত্র৷ স্ত্রীর সিদ্ধান্তে রীতিমতো বিধ্বস্ত সৌমিত্র এ দিন সাংবাদিক সম্মেলন করার মাঝেই কান্নায় ভেঙে পড়েন৷ তাঁর প্রশ্ন, 'যে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় তোমার বাড়ি ভাঙল, তাঁর সঙ্গ কীভাবে দিচ্ছ? আমি কি এতটাই খারাপ?' আবেগতাড়িত সৌমিত্র বলেন, 'সুজাতা খুব ভুল করলে৷ আজ থেকে তোমায় আমি মুক্তি দিলাম৷ অনুরোধ করে বলছি, সুজাতা মণ্ডল লেখ৷ খাঁ পদবী লিখবে না৷ এটা আমার বংশের পরিচয়, জাতির পরিচয়৷ আমি তোমাকে ডিভোর্স নোটিস পাঠাচ্ছি৷'

এ দিনই তৃণমূলে যোগ দিয়ে সুজাতা মণ্ডল খাঁ দাবি করেছিলেন, তাঁর স্বামীও হয়তো তাঁকে অনুসরণ করতে পারেন৷ যার জেরে সৌমিত্রকে নিয়ে জোর জল্পনা তৈরি হয়৷ এর কিছুক্ষণের মধ্যেই সাংবাদিক বৈঠক করেন সৌমিত্র৷ সেখানেই নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেন তিনি৷

সৌমিত্র জানিয়েছেন, তাঁর সঙ্গে প্রায় তিন মাস ধরে সুজাতার সম্পর্কে অবনতি হচ্ছিল৷ তিনি বিজেপি-তে যোগদানের পর সুজাতার স্কুল শিক্ষিকার চাকরিও চলে যায়৷ কিন্তু প্রতিমাসে তিনি সুজাতার অ্যাকাউন্টে ৭০ হাজার টাকা করে পাঠিয়ে দিতেন বলে জানিয়েছেন সৌমিত্র খাঁ৷ তাঁর অভিযোগ, তৃণমূল সুজাতাকে ভুল বুঝিয়েছে৷ রাজনীতির বেড়াজালে পড়েই স্ত্রী তিনি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলেও দাবি সৌমিত্রর৷

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে সৌমিত্রের জয়ে বড় ভূমিকা নিয়েছিলেন সুজাতা৷ আইনি জটিলতায় বিষ্ণপুরের বাইরে ছিলেন সৌমিত্র৷ কার্যত একা হাতে স্বামীর হয়ে প্রচার করে তাঁকে জিততে সাহায্য করেন সুজাতা৷ এ দিন স্ত্রী প্রতি সেই কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেছেন সৌমিত্র৷ তবে একই সঙ্গে জানিয়েছেন, বিজেপি-র হয়ে না দাঁড়ালে এই সাফল্য সম্ভব ছিল না৷ একই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, আর তাঁর কোনও পিছুটান রইল না৷ নিজের লোকসভার অন্তর্গত সাতটি বিধানসভা আসনেই বিজেপি-কে জেতানোর হুঙ্কার ছেড়েছেন সৌমিত্র৷

পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশে তাঁর চাঞ্চল্যকর মন্তব্য, 'মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী দয়া করে সুজাতাকে খুন করে ফেলবেন না৷ আজ থেকে ওঁর সব নিরাপত্তার দায়িত্ব আপনাদের৷ ওঁকে কোনও খারাপ কাজে লাগাবেন না৷ তৃণমূল কংগ্রেসকে বলব, একজন গৃহবধূর সংসার ভেঙে রাজনীতি করলেন৷ একবারও লজ্জা করল না? দশটা বছর যে আমার সাথে সংসার করল তাঁকে কেড়ে নিলেন? স্বপ্নেও এমনটা হবে ভাবিনি৷ তৃণমূল কংগ্রেস দম থাকলে আমার লোকসভার অধীনে সাতটা বিধানসভা জিতে দেখান৷ '

Published by: Debamoy Ghosh
First published: December 21, 2020, 5:07 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर