• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • সিটি সেন্টারের সামনে অটো দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২, আহত ৩

সিটি সেন্টারের সামনে অটো দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২, আহত ৩

সল্টলেক সিটি সেন্টারের সামনে অটো দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল দুই ৷ সকালে ঘটনাস্থলেই অটো ড্রাইভার শুভ নস্করের মৃত্যু হয় ৷ এদিন বিকেলে মৃত্যু হল একজন আহত অটো যাত্রীর ৷

সল্টলেক সিটি সেন্টারের সামনে অটো দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল দুই ৷ সকালে ঘটনাস্থলেই অটো ড্রাইভার শুভ নস্করের মৃত্যু হয় ৷ এদিন বিকেলে মৃত্যু হল একজন আহত অটো যাত্রীর ৷

সল্টলেক সিটি সেন্টারের সামনে অটো দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল দুই ৷ সকালে ঘটনাস্থলেই অটো ড্রাইভার শুভ নস্করের মৃত্যু হয় ৷ এদিন বিকেলে মৃত্যু হল একজন আহত অটো যাত্রীর ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: সল্টলেক সিটি সেন্টারের সামনে অটো দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল দুই ৷ সকালে ঘটনাস্থলেই অটো ড্রাইভার শুভ নস্করের মৃত্যু হয় ৷ এদিন বিকেলে মৃত্যু হল একজন আহত অটো যাত্রীর ৷ মঙ্গলবার সকালে সল্টলেক সিটি সেন্টার আইল্যান্ডের কাছে একটি অটোয় ধাক্কা মারে নিউটাউন থেকে উল্টোডাঙাগামী একটি বাস ৷ বাসের ধাক্কায় অটোটি দুমড়ে-মুচড়ে, উল্টে গিয়ে গুরুতর জখম হন অটোর চার যাত্রী ৷ ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় অটোচালকের ৷

    দুর্ঘটনার পর ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় বাসটি ৷ প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, অফিসের ব্যস্ত সময় উল্টোডাঙামুখী ২১৫-এ বাসের সঙ্গে প্রবল রেষারেষি চলছিল উল্টোডাঙা-করুণাময়ী রুটের অটোটির ৷ সিটি সেন্টার আইল্যান্ডের কাছে বাসটি অটোকে নিয়ম ভেঙে ওভারটেক করতে গেলে বাসের ধাক্কায় দুমড়ে-মুচড়ে উল্টে যায় অটোটি ৷

    দুর্ঘটনাগ্রস্থ অটোর সামনে সিটে বসেছিলেন একজন পুরুষ যাত্রী এবং পিছনের সিটে বসেছিলেন দুই মহিলা সহ এক পুরুষ যাত্রী ৷ চারজনের অবস্থাই আশঙ্কাজনক ৷ ঘটনার পরে আহতদের বাইপাসের ধারে একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ৷

    এদিন বিকেলে সেখানেই মৃত্যু হয় কাশীপুরের বাসিন্দা অরিন্দম বন্দ্যোপাধ্যায়ের ৷ এদিন অটোর সামনে চালকের পাশে বসেছিলেন তিনি ৷ তাই দুর্ঘটনায় সবচেয়ে বেসি আঘাত লেগেছিল তাঁর ৷ অটোর অন্য দুই মহিলা যাত্রী, বরাহনগরের বাসিন্দা সুশ্রী অধিকারী ও সিঁথির বাসিন্দা মিলনী নন্দী এই মুহূর্তে গুরুতর জখম অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৷ আহত অন্য পুরুষ যাত্রী অসিত মাইতি হাতিবাগানের বাসিন্দা ৷

    গত শুক্রবার সকালেও সিগন্যাল না মেনে এরকমই বেপরোয়া যান চালনার বলি হন জয়পুরিয়া প্রথম বর্ষের ছাত্রী ও অটোচালক ৷ রাজা দীনেন্দ্র স্ট্রিট থেকে অরবিন্দ সরণির দিকে দ্রুত গতিতে ছুটছিল অটো WB 04C7121 ৷ গৌড়ীবাড়ির ক্রসিংয়ে সিগন্যালে দাঁড়িয়ে ছিল বারাসত হাওড়া রুটের একটি L238 নম্বরের বাস। উল্টোডাঙা থেকে খান্নার দিকে যাচ্ছিল বাসটি।

    ওই ক্রসিংয়ে দাঁড়ানোর কথা অটোর। কিন্তু সিগন্যাল ভেঙেই বাঁদিক কাটাতে যায় অটো। তখনই বাসের সঙ্গে চরম ধাক্কা লাগে অটোর। দ্রুত গতিতে থাকার দরুণ মুহূর্তেই ছাড়খাড় হয়ে যায় অটো। অটো চালক জয়দেব নস্করের পাশেই বসে ছিলেন জয়পুরিয়া কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রী পূজা পাল। মাথায়, ঘাড়, বুকে চরম আঘাত লাগে ছাত্রীর। গুরুতর আহত হন অটো চালক ও পিছনে বসা তিন যাত্রীও ৷ ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় পূজার ৷ কোমায় থাকার পর সোমবার মৃত্যু হয় অটোচালকেরও ৷

    First published: