corona virus btn
corona virus btn
Loading

মেট্রোয় সজল কাঞ্জিলালের মৃত্যুর তদন্তে নয়া মোড়, ট্রেন ব্রেক কষার পরেও পড়ে যাননি, তাহলে ?

মেট্রোয় সজল কাঞ্জিলালের মৃত্যুর তদন্তে নয়া মোড়, ট্রেন ব্রেক কষার পরেও পড়ে যাননি, তাহলে ?
  • Share this:

#কলকাতা: ব্রেক কষার পরেও পড়ে যাননি সজল কাঞ্জিলাল। তিনি নিজেই মেট্রো থেকে নামতে যান। তখন থার্ড রেল কারেন্ট কমিউটারে পা দিয়ে ফেলাতেই বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু। কমিশনার অফ রেলওয়ে সেফটির কাছে চাঞ্চল্যকর দাবি দুর্ঘটনার সময়ে কর্মরত এক আরপিএফ কর্মীর।

দুর্ঘটনার দিন পার্ক স্ট্রিট মেট্রো স্টেশনে কর্মরত এক আরপিএফ কর্মীকে শুক্রবার জিজ্ঞাসাবাদ করেন, মেট্রো সার্কেলের কমিশনার অফ রেলওয়ে সেফটি জনককুমার গর্গ। মেট্রো রেল সূত্রে খবর, আরপিএফ কর্মী দাবি করেছেন, এমারজেন্সি ব্রেক কষার পরেও সজল কাঞ্জিলাল পড়ে যাননি। টানেলের ভিতর তিনি ট্রেন থেকে নামতে যান। তখন থার্ড রেল কারেন্ট কমিউটার বা টিআরসিসিতে পা দিয়ে ফেলেন। তাতেই বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হয় ৷

মেট্রোর প্রতি কোচের প্রথম ও চতুর্থ দরজার নীচে থাকে টিআরসিসি। মেধা রেকের তিন নম্বর কামরার প্রথম দরজায় ঝুলছিলেন সজল। তাই সেই দরজার নিচেও টিআরসিসি ছিল। যা দেখতে একটি রডের মতো। এর মাধ্যমে থার্ড রেল থেকে বিদ্যুৎ পৌঁছয় ট্রেনে।

কিন্তু, প্রশ্ন উঠছে, ওই আরপিএফ কর্মী যদি দেখেই থাকেন, তা হলে তখনই সজল কাঞ্জিলালকে সতর্ক করলেন না কেন? ১৩ জুলাই, মেট্রোর দরজার মাঝে আটকে গিয়েছিল সজলের হাত। সেই অবস্থাতেই ট্রেন ছোটে।

অর্থাৎ, দরজার সেন্সর তখন ঠিক মতো কাজ করেনি। অথচ, ব্রেক কষায় সেই সেন্সরই কাজ করল। এবং দরজা খুলে গেল। এর জেরেই কি সজল কাঞ্জিলাল পড়ে গিয়ে ও তড়িদাহত হয়ে মারা গেলেন ? না কি আরপিএফ কর্মী যা দাবি করছেন, সেরকম কিছু সত্যিই ঘটেছিল? খতিয়ে দেখছেন কমিশনার অফ রেলওয়ে সেফটি।

আরও দেখুন:-

First published: July 20, 2019, 7:42 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर