corona virus btn
corona virus btn
Loading

প্রয়াত বাংলার দরবেশি গানের শেষ শিল্পী কালাচাঁদ দরবেশ

প্রয়াত বাংলার দরবেশি গানের শেষ শিল্পী কালাচাঁদ দরবেশ
Kalachand Darbesh

প্রয়াত বাংলার দরবেশি গানের শেষ শিল্পী কালাচাঁদ দরবেশ

  • Share this:

 #কলকাতা: শেষ হল এক অধ্যায়ের। মারা গেলেন ভারতে দরবেশি গানের শেষ শিল্পী কালাচাঁদ দরবেশ। কিডনি ও শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যায় দীর্ঘদিন ধরে ভুগছিলেন তিনি। রবিবার ভোরে ধূপগুড়ির নিজের বাড়িতে মৃত্যু হল চুরাশি বছরের খ্যাতনামা শিল্পীর। নজরুল স্মৃতি পুরস্কার, বঙ্গ সংস্কৃতি পুরস্কারসহ একাধিক পুরস্কার রয়েছে তাঁর ঝুলিতে। শুধু দেশেই নয়, বিদেশেও অনুষ্ঠান করেন কালাচাঁদ দরবেশ।

শেষ হল বাংলার সহজিয়া সুফি ঘরানার এক অধ্যায়। প্রয়াত দরবেশি গানের শেষ শিল্পী কালাচাঁদ দরবেশ। গত পাঁচ বছর ধরে নানা কারণে অসুস্থ হয়ে পড়ছিলেন এই সঙ্গীতশিল্পী। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হস্তক্ষেপে বেশ কয়েকবার কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে এনে তাঁর চিকিৎসা হয়। কিডনি ও শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যার কারণে শনিবার দুপুরে তাঁর অবস্থার আরও অবনতি হয়। প্রথমে ধূপগুড়ি ও পরে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজে ভরতি করা হয়। রাতে বাড়িতে আনা হয় কালাচাঁদবাবুকে। রবিবার সকাল পৌনে সাতটা নাগাদ ধূপগুড়ির বাড়িতে মৃত্যু হয় তাঁর।

কলেজ জীবন থেকেই তাঁর সঙ্গীতচর্চা শুরু। কোচবিহারে ঠুনকির ঝাড় হাইস্কুলে সহকারী প্রধান শিক্ষক হিসাবে কাজ করতেন ৷ শিক্ষকতা ছেড়ে পুরোপুরি গানের জগতে মন দেন তিনি ৷ শুধু সরকারি অনুষ্ঠানেই নয় ট্রেনে-বাসেও গান করেন ৷ একাধিক সরকারি পুরস্কার পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে প্যারিস, স্কটল্যান্ড, আফ্রিকাতেও প্রচুর অনুষ্ঠান করেছেন তিনি ৷ দরবেশি গানের শেষ শিল্পী কালাচাঁদ দরবেশকে নিয়ে তথ্যচিত্রও তৈরি করেছে রাজ্য সরকার ৷ দরবেশি গানকে বাঁচিয়ে রাখতে কেন্দ্রীয় সরকার তাঁর বাড়িতে স্কুল খুলে দেয় ৷

ভিয়েতনাম, ইতালি থেকেও কালাচাঁদ দরবেশের কাছে এসে অনেকে গান শিখেছেন। উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী ও পর্যটনমন্ত্রীর নির্দেশে কালাচাঁদ বাবুকে শ্রদ্ধা জানাতে বাড়ি যান পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান। যান জেলা তথ্য-সংস্কৃতি দফতরের আধিকারিকরা।

কালাচাঁদবাবু রেখে গেলেন অসুস্থ স্ত্রী, ছেলে, বৌমা ও নাতনিকে। তাঁর শেষ ইচ্ছে ছিল, বাড়িতেই গড়ে তোলা হোক আশ্রম। সেই ইচ্ছে আর পূরণ হল না। হারিয়ে গেল দরবেশি গানের সুরেলা ভাষা।

First published: December 3, 2017, 4:38 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर