অ্যাপ বাইকে শ্লীলতাহানি! চালকের বিরুদ্ধে অশালীন প্রশ্ন ও ব্যবহারের অভিযোগ, গ্রেফতার অভিযুক্ত

অ্যাপ বাইকে শ্লীলতাহানি! চালকের বিরুদ্ধে অশালীন প্রশ্ন ও ব্যবহারের অভিযোগ, গ্রেফতার অভিযুক্ত

Representative Image

এই সব ঘটনার পরে লালবাজারে সমস্ত কথা জানিয়ে পরবর্তীকালে গরফা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ঐ তরুণী। এই ঘটনার জেরে তরুণীর অভিভাবকেরাও যথেষ্ট আতঙ্কিত।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা পরিস্থিতিতে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যেতে অনেকেই স্বাচ্ছন্দ বোধ করেন অ্যাপ নির্ভর বাইক। খুব কম সময়ে ও তুলনামূলক কম খরচে বাইক নিদিষ্ট গন্তব্যস্থলে পৌঁছাতে অনেকেই ব্যবহার করেন বাইক। এবার সেই বাইক নিয়ে অভিযোগ জমা পড়ল কলকাতা পুলিশের কাছে।

গরফা থানা এলাকার এক তরুণী বুক করেছিলেন অ্যাপ নির্ভর বাইক।  আলিপুর থেকে সেই বাইক বুক করার কিছু সময়ের মধ্যেই বাইক চলে আসে তরুণীর কাছে। আলিপুর থেকে গরফার নিদিষ্ট জায়গা পৌঁছে দেবার সময় তরুণী সন্দেহ হয় রাস্তা নিয়ে।  তরুণী দেখেন বাইক চালক যে রাস্তা ব্যবহার করছেন তা তা সংকীর্ণ ও অন্ধকার।  তরুণীর সন্দেহ হতেই গন্তব্যে যাওয়ার সঠিক রাস্তা নিয়ে প্রশ্ন করেন । অভিযোগ  সেই রাস্তার কথা না বলে তরুণীকে অন্য প্রশ্ন করেন ঐ চালক। একাধিক প্রশ্নে তরুণী বিরক্ত বোধ করেন। তার মধ্যে অশ্লীল আচরণ করা হয় বলে অভিযোগ।  বাইক অন্ধকার জায়গায় পৌঁছাতেই তরুণীর শ্লীলতাহানি করা হয় বলেও অভিযোগ। গন্তব্যস্থলে পৌঁছানোর আগেই রাস্তায় বাইক থামিয়ে তরুণীর মোবাইল ফোন নম্বর চাওয়া হয় বলে অভিযোগ। তরুণী নম্বর দিতে অস্বীকার করলে বাধ্য করা হয় বলে অভিযোগ।

নিদিষ্ট গন্তব্যস্থলের আগেই তরুণী বিপদ বুঝে গাঙ্গুলি পুকুরের কাছে নেমে যান। রবিবার রাতে এই ঘটনার পরেই অভিযোগ চালক ফলো করেন তরুণীকে। পরে বিভিন্ন নম্বর দিয়ে ফোন করা হয় ও নম্বর ব্লক করে দিলেও অন্য নম্বর থেকে ফোন আসে ।  এই সব ঘটনার পরে লালবাজারে সমস্ত কথা জানিয়ে পরবর্তীকালে গরফা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ঐ তরুণী। এই ঘটনার জেরে তরুণীর অভিভাবকেরাও যথেষ্ট আতঙ্কিত।  এই ঘটনার পরে গরফা থানা হরিদেবপুরের বাসিন্দা আসলাম হোসেনকে গ্রেফতার করে। বুধবার আলিপুর আদালতে অভিযুক্তকে পেশ করা হলে জামিন দেওয়া হয়।

Susobhan Bhattacharya

Published by:Elina Datta
First published: