• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • Mukul Roy Returning in TMC: কেন শুধু মুকুলেরই ঘরওয়াপাসি! এই প্রত্যাবর্তনের পিছনে তৃণমূলের নিখুঁত মাইন্ডগেম?

Mukul Roy Returning in TMC: কেন শুধু মুকুলেরই ঘরওয়াপাসি! এই প্রত্যাবর্তনের পিছনে তৃণমূলের নিখুঁত মাইন্ডগেম?

মুকুল রায়ের ঘরে ফেরা স্রেফ একজন দলবদলুর ঘরে ফেরা নয়। ছবিতে মুকুল রায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, প্রত্যাবর্তনের সেই মুহূর্ত।

মুকুল রায়ের ঘরে ফেরা স্রেফ একজন দলবদলুর ঘরে ফেরা নয়। ছবিতে মুকুল রায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, প্রত্যাবর্তনের সেই মুহূর্ত।

এই পদক্ষেপই সর্বভারতীয় রাজনীতিতে তৃণমূলকে ভিত মজবুত করতে সাহায্য করবে। এমন ইঙ্গিত আসছে তৃণমূলের অন্দর থেকেই। কমলিকা সেনগুপ্ত।

  • Share this:

    #কলকাতা: সর্বভারতীয় রাজনীতির প্রেক্ষাপটে আত্মশক্তি প্রদর্শনে ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনের ফল যদি প্রথম দৃষ্টান্ত হয়, তাহলে মুকুল রায়ের (Mukul Roy) ঘরওয়াপাসিকে বলতে হবে হাল আমলে তৃণমূলের সবচেয়ে ডিভিডেন্ট। এই পদক্ষেপই সর্বভারতীয় রাজনীতিতে তৃণমূলকে ভিত মজবুত করতে সাহায্য করবে। এমন ইঙ্গিত আসছে তৃণমূলের অন্দর থেকেই।

    গতকাল মুকুল-অভিষেক হতেই তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় একটি ট্যুইট করেন।  ট্যুইটে অভিষেক লেখেন, "তৃণমূল পরিবারের বিজেপির প্রাক্তন সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি মুকুল রায়কে স্বাগত জানাতে পেরে আমি আনন্দিত। বিজেপিতে তাঁকে অনেক লড়াই করতে হয়েছে। এ জন্য তাঁর প্রতি সহমর্মিতা জানাই। তাঁকে আশ্বস্ত করছি সমস্ত ভারতবাসীর উজ্জ্বল ভবিষ্যত নিশ্চিত করার লক্ষ্যে একটা দল হিসেবে আমরা কাজ করব।"

    অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ট্যুইট-

    অভিষেকের টুইটে পরিষ্কার দুটি ইঙ্গিত আছে। অভিষেক মুকুলের পুরনো  পদমর্যাদা উল্লেখ করেছেন বুঝিয়ে দিয়েছেন,  ৬৪ খোপের খেলায় নিছক কোনও বোরে নয়,  গজের ঘুঁটি তুলে নিয়েছেন তাঁরা। অভিষেক বোঝাতে চাইছেন, বিজেপিতে মুকুল রায় অসুবিধে বেকায়দায় পড়েছিলেন। অর্থাৎ তৃণমূল যে তাঁর পুরনো যোদ্ধাকে ফিরিয়ে নিয়েছে তাই নয়, অভিষেক দেখাতে চাইছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সম্পাদককে তৃণমূল ঘরে ফিরিয়ে আনল।

    তৃণমূলের তরফ থেকে  স্পষ্টই ইঙ্গিত থাকছে, শেষ বিধানসভায় বিজেপকে পরাজিত করেই থামেনি তৃণমূলের জয়রথ। জাতীয় দল বিজেপিকে মনস্তাত্ত্বিক ভাবে একটি ধাক্কা মারতে সক্ষম হচ্ছে আঞ্চলিক দল তৃণমূল। মনে রাখতে হবে মুকুল রায়ও সাংবাদিক বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জাতীয় স্তরের নেত্রী বলে উল্লেখ করেছেন। এবং স্পষ্টই বলেছেন তাঁর মতে, আগামী দিনে জাতীয় রাজনীতিতে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

    বিজেপি এই মুহূর্তে সুর চড়িয়ে বলছে মুকুল রায়ের এই মুহূর্তে বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেওয়া উচিত। কিন্তু ভোটের ফলের মতো এটাও যে একটা ঝটকা তা গেরুয়াশিবিরের বডি ল্যাঙ্গুয়েজেই পরিষ্কার।

    সূত্রের খবর মুকুল রায়কে তৃণমূলের সহ-সভাপতি করা হতে পারে। যেহেতু অভিষেক নিজেই স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন তৃণমূল সর্বভারতীয় স্তরে লড়তে চলেছে, ফলে পরিষ্কারই বলা যায় বহু রাজ্যকে হাতের তালুর মতো চেনা মুকুল রায়ের প্রত্য়াবর্তন এটা স্রেফ ঘরওয়াপাসি নয়। অভিঘাত অনেক বেশি এই সিদ্ধান্তের।

    -কমলিকা সেনগুপ্ত

    Published by:Arka Deb
    First published: