বাম-কংগ্রেসের CAA বাতিলের প্রস্তাব খারিজ হয়ে গেল বিধানসভায়

বাম-কংগ্রেসের CAA বাতিলের প্রস্তাব খারিজ হয়ে গেল বিধানসভায়
পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা

বৃহস্পতিবার বিধানসভায় সিএএ বিরোধী প্রস্তাব দাবি করে বাম-কংগ্রেস৷ বিজনেস অ্যাডভাইসারি কমিটির বৈঠকে সেই প্রস্তাব খারিজ করে দেন অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়৷

  • Share this:

#কলকাতা: কেরলের বিধানসভায় সর্বসম্মতিতে পাশ হয়ে গিয়েছে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন বাতিলের প্রস্তাব। তামিলনাড়ুতেও বিধানসভায় এই প্রস্তাব এনেছে ডিএমকে। পশ্চিমবঙ্গেও নাগরিকত্ব আইন প্রত্যাহারের প্রস্তাব এনেছিল বাম-কংগ্রেস৷ কিন্তু অধ্যক্ষ অনুমতি দিলেন না৷

বৃহস্পতিবার বিধানসভায় সিএএ বিরোধী প্রস্তাব দাবি করে বাম-কংগ্রেস৷ বিজনেস অ্যাডভাইসারি কমিটির বৈঠকে সেই প্রস্তাব খারিজ করে দেন অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়৷ কেরলের মতোই বিধানসভায় সিএএ বাতিলের খসড়া প্রস্তাব জমা দেয় বাম ও কংগ্রেস৷ আজ বিশেষ অধিবেশনে প্রস্তাব গ্রহণের দাবি করে তারা৷

প্রস্তাবে বলা হয়, 'ধর্মীয় বৈষম্যমূলক এবং সাংবিধানিক ভিত্তির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়, এমন সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন অবিলম্বে বাতিল করা হোক। সংশোধিত আইন দেশের সাংবিধানিক মূল ভিত্তি এবং মূল্যবোধকে দুর্বল করছে।'

কেরলে সিএএ-র বিরুদ্ধে রেজোলিউশন বিজেপি বিধায়ক ও রাজাগোপাল ছাড়া সব বিধায়কই সমর্থন করেছেন৷ একের পর এক রাজ্যের বিধানসভায় যখন সিএএ-র বিরুদ্ধে রেজোলিউশন আনছেন বিরোধীরা, তখন নয়া নাগরিকত্ব আইনের স্বপক্ষে প্রচারে নামতে তোড়জোড় করছে বিজেপি-ও৷ বুধবারই বিরোধী দল শাসিত রাজ্য সরকারগুলিতে আইনমন্ত্রীর চ্যালেঞ্জ, কোনও রাজ্য সিএএ রুখতে পারে না৷ একই সঙ্গে তাঁর দাবি, নতুন নাগরিকত্ব আইন কোনও ভারতীয় নাগরিকের নাগরিকত্ব কাড়বে না৷

তাঁর কথায়, 'আমি সিএএ-কে সমর্থন করি৷ কেউ কেউ না বুঝেই বিরোধিতা করছে৷ সবচেয়ে আশ্চর্যজনক হল, কংগ্রেস বুঝতেই চাইছে না৷ সিপিআই, সিপিআইএম-ও বুঝতে চাইছে না৷ সিএএ কোনও ভারতীয় নাগরিকের উপর লাগু হবে না৷ কাউকে নাগরিকত্ব দেবে না, কারও থেকে নাগরিকত্ব ছিনিয়েও নেবে না৷ উগান্ডা থেকে আগত হিন্দুদের নাগরিকত্ব দিয়েছিলেন ইন্দিরা গান্ধি৷ শ্রীলঙ্কা থেকে আসা তামিলদেরও নাগরিকত্ব দিয়েছিলেন রাজীব গান্ধি৷ ওই একই কাজ প্রধানমন্ত্রী মোদিও করছেন, তা কেন খারাপ, বুঝতে পারছি না৷' এরপরই সংসদের প্রসঙ্গ তুলে আইনমন্ত্রী বলেন, 'নাগরিকত্ব সংক্রান্ত আইন পাস হয়েছে সংসদে৷ কোনও রাজ্যের বিধানসভায় নয়৷ কোনও রাজ্য এই আইন রুখতে পারে না৷'

দেশজুড়েই এই আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ চলছে৷ ৬০টিরও বেশি মামলা দায়ের করা হয়েছে সুপ্রিম কোর্টে৷ সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ২০১৯-এ বলা হয়েছে, পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে ধর্মীয় নিপীড়নের জেরে শরণার্থী হিন্দু, পার্সি, শিখ, খ্রিস্টান ও বৌদ্ধদের ভারতীয় নাগরিকত্ব দেওয়া হবে৷ ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বর বা তার আগে ভারতে আসা শরণার্থীদেরই ভারতীয় নাগরিকত্ব দেওয়া হবে৷

First published: 01:04:36 PM Jan 09, 2020
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर