corona virus btn
corona virus btn
Loading

চকোলেট বোমার বারুদকে 'গান পাউডার' হিসেবে ব্যবহার করে প্রিয়াঙ্কাকে খুন! খুলছে রিজেন্ট পার্ক খুনের জট

চকোলেট বোমার বারুদকে 'গান পাউডার' হিসেবে ব্যবহার করে প্রিয়াঙ্কাকে খুন! খুলছে রিজেন্ট পার্ক খুনের জট
খুনি জয়ন্ত

রবিবার ধৃত জয়ন্তকে আলিপুর আদালতে পেশ করেছে রিজেন্ট পার্ক থানার পুলিশ । আদালত তাকে পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে ।

  • Share this:

#কলকাতা: ছ'ইঞ্চি একটি কলের পাইপ, দুটি চকলেট বোমা ও সাইকেলের বিয়ারিংয়ে ব্যবহৃত কয়েকটি বল । বাজার থেকে মাত্র এই ক'টি নিরীহ সামগ্রী কিনেছিল জয়ন্ত । আর তা দিয়েই নিজস্ব 'ইঞ্জিনিয়ারিং'য়ে একনলা বন্দুক বানিয়ে ফেলেছিল খুনি পেশায় গাড়ি চালক জয়ন্ত । যা দিয়ে রিজেন্ট পার্কের কলেজ ছাত্রী প্রিয়াঙ্কাকে নৃশংসভাবে খুন করে ।

অস্ত্র বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, প্রত্যেকটি কার্তুজের ভেতরে গুলির মশলা বা গান পাউডার হিসেবে বিস্ফোরক ব্যবহার করা হয় । এক্ষেত্রে জয়ন্ত 'গান পাউডার' হিসেবে চকলেট বোমার বারুদের ব্যবহার করেছিল । সে জন্যই দুটি চকলেট বোমা বাজার থেকে কিনে এনেছিল সে । সাইকেলের বলের সঙ্গে চকলেট বোমার বারুদ মিশিয়ে সেটিকেই গুলি হিসেবে ব্যবহার করে ।

পুলিশ সূত্রে খবর, বিবাহিত হওয়া সত্ত্বেও জয়ন্ত প্রেমের সম্পর্ক রাখতে চেয়েছিল রিজেন্ট পার্কের পশ্চিম আনন্দপল্লীর বাসিন্দা প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে । কিন্তু প্রিয়াঙ্কা তাতে রাজি হয়নি । তাই প্রাক্তন প্রেমিকাকে 'শিক্ষা' দিতে তাঁকে শেষ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েই ফেলেছিল জয়ন্ত । কিন্তু বাইরে থেকে অস্ত্র কিনতে গেলে জানাজানি হয়ে যদি পরিকল্পনা ভেস্তে যায় ! তাই ঘরেই নিজস্ব 'ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে' একনলা বন্দুক বানিয়ে ফেলে সে । তা দিয়েই শনিবার সকালে শেষ করে দেয় প্রাক্তন প্রেমিককে ।

কিন্তু 'হোমমেড' অস্ত্র কীভাবে বানালো জয়ন্ত?

শনিবার প্রিয়াঙ্কাকে খুনের কয়েকঘন্টা পরেই টালিগঞ্জ থেকে গ্রেফতার করা হয় জয়ন্তকে । তাকে জেরা করে রিজেন্ট পার্ক থানার পুলিশ জানতে পারে ইন্টারনেট ঘেঁটে একনলা বন্দুক তৈরি করা শিখেছিল খুনি । জয়ন্ত পুলিশকে জানায়, ছ'ইঞ্চি একটি কলের পাইপ নিয়ে ড্রিল মেশিন দিয়ে সেটিকে ফুটো করে সে । সাইকেলের বল ঢুকতে পারে ঠিক ততটাই ছিদ্র করা হয় ওই কলের পাইপে । তারপর সাইকেলের বল-এ গানপাউডার হিসেবে মাখানো হয় চকলেট বোমের মশলা। বিপরীত দিক থেকে সজোরে ট্রিগার করে গুলি ছোড়া হয় । এখানে শেষ নয় , বানানো আগ্নেয়াস্ত্র ঠিকমতো কাজ করছে কিনা দেখতে নিজের বাড়িতেই একবার প্র্যাকটিস করে নেয় সে । তারপরই প্রিয়াঙ্কাকে খুন করতে যায় । পরিকল্পনা ছিল , খুনের পর গা ঢাকা দেবে । কিন্তু সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হয়নি । তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ ।

রবিবার ধৃত জয়ন্তকে আলিপুর আদালতে পেশ করেছে রিজেন্ট পার্ক থানার পুলিশ । আদালত তাকে পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে । এই পর্বে তাকে জেরা করে তদন্তকারীরা জানার চেষ্টা করবে, ইন্টারনেট ঘেঁটে অস্ত্র তৈরি করার তার এই পরিকল্পনায় অন্য কেউ যুক্ত রয়েছে কিনা । শুধুমাত্র সম্পর্ক জনিত কারণের জন্যই কি প্রিয়াঙ্কাকে খুন করা হয়েছে ? নাকি অন্য কোনও কারণ রয়েছে , তাও জানতে চাইবেন তদন্তকারী আধিকারিকরা ।

SUJOY PAL

Published by: Shubhagata Dey
First published: June 21, 2020, 10:36 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर