corona virus btn
corona virus btn
Loading

'আমরা সর্বধর্ম সমন্বয়ের প্রতিষ্ঠান, প্রধানমন্ত্রীর CAA বক্তব্যে কোনও মন্তব্য করব না,' দূরত্ব বজায় রাখল রামকৃষ্ণ মিশন

'আমরা সর্বধর্ম সমন্বয়ের প্রতিষ্ঠান, প্রধানমন্ত্রীর CAA বক্তব্যে কোনও মন্তব্য করব না,' দূরত্ব বজায় রাখল রামকৃষ্ণ মিশন
বেলুড় মঠে মোদি

মিশনের তরফে বলা হল, রামকৃষ্ণ মিশন একেবারেই একটি অরাজনৈতিক প্রতিষ্ঠান৷ কোনও রকম ক্ষণস্থীয় বার্তায় তারা দেয় না৷

  • Share this:

#কলকাতা: বেলুড় মঠে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে বার্তা দিলেও, সিএএ থেকে নিজেদের দূরত্বই বজায় রাখল রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশন৷ মিশনের তরফে বলা হল, রামকৃষ্ণ মিশন একেবারেই একটি অরাজনৈতিক প্রতিষ্ঠান৷ কোনও রকম ক্ষণস্থায়ী বার্তায় তারা দেয় না৷

রবিবার বেলুড় মঠে প্রধানমন্ত্রী বক্তৃতায় সিএএ প্রসঙ্গ তোলেন৷ তিনি বলেন, 'নতুন আইন কারও নাগরিকত্ব কেড়ে নেবে না৷ যুব সমাজের একাংশের মধ্যে নাগরিকত্ব আইন নিয়ে বিভ্রান্তি রয়েছে৷ তাঁদের ভুল পথে চালিত করা হচ্ছে৷' মোদির এই বক্তব্যের পরেই বিতর্কের ঝড় ওঠে৷ রামকৃষ্ণ মঠে কেন মোদি রাজনৈতিক বার্তা দিলেন, তা নিয়ে সরব হয়েছে বিরোধীরা৷ তীব্র নিন্দা করছে কংগ্রেস, তৃণমূল কংগ্রেস ও বামেরা৷

এ হেন পরিস্থিতিতে রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের সাধারণ সম্পাদক স্বামী সুবিরানন্দ সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন, 'আমরা একটি সর্বধর্ম সমন্বয়ের প্রতিষ্ঠান৷ এখানে সন্ন্যাসীরা হিন্দু, মুসলিম, খ্রিস্টান, সব সম্প্রদায় থেকেই রয়েছেন৷ আমরা একই মা-বাবার সন্তান ও একে অপরের ভাই৷ আমরা প্রবল ভাবেই অরাজনৈতিক প্রতিষ্ঠান৷ আমরা পরমেশ্বরের ডাকে বাড়ি, সংসার ছেড়ে এখানে এসেছি৷ কোনও রকম ক্ষণস্থীয় আহ্বানে আমরা সাড়া দিইনি৷'

মোদির বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি বলেন, 'নাগরিকত্ব আইন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্যে কোনও প্রতিক্রিয়া দেবে না আমাদের প্রতিষ্ঠান৷ আমাদের কাছে নরেন্দ্র মোদি দেশের নেতা, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের নেত্রী৷'

বেলুড় মঠে প্রধানমন্ত্রী বক্তৃতায় বলেন, 'নাগরিকত্ব আইন আসলে দেশের সাধারণ নাগরিকদের আশ্রয় দেবে৷ তাদের নিশ্চিন্তে দেশে থাকার ব্যবস্থা করবে৷ দেশভাগের সময় পাকিস্তানে অনেকেই ধর্মীয় হিংসার শিকার হয়েছিলেন৷ তাদের কোনওভাবে আবার সে দেশে ফেরাতে তিনি পারেন না? দেশপ্রধান হিবেসে কি শরণার্থীদের মৃত্যুর মুখে কি ঠেলে দিতে পারেন?'

First published: January 13, 2020, 11:29 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर