corona virus btn
corona virus btn
Loading

যাদবপুরে মহিলার রহস্যমৃত্যু, তদন্তে উঠে এসেছে একাধিক চাঞ্চল্যকর প্রশ্ন

যাদবপুরে মহিলার রহস্যমৃত্যু, তদন্তে উঠে এসেছে একাধিক চাঞ্চল্যকর প্রশ্ন

কুন্তলের কাছ থেকে পুলিশ জানতে চাইছে, কেন ওই রাতে স্ত্রীকে ছেড়ে নিজে ঘরে চলে এল? কেন দেরিতে খোঁজ পড়ল স্ত্রীর?

  • Share this:

#কলকাতা: যাদবপুরে মহিলার রহস্যমৃত্যুতে এখনও সূত্র হাতড়াচ্ছে পুলিশ। মৃতের স্বামী কুন্তল আচার্যকে দফায় দফায় চলছে জিজ্ঞাসাবাদ। এখনও আটক কুন্তল আচার্য। মৃত সুইটির পরিবারের তরফে এখনও পর্যন্ত কোনও অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।

কুন্তলের কাছ থেকে পুলিশ জানতে চাইছে, কেন ওই রাতে স্ত্রীকে ছেড়ে নিজে ঘরে চলে এল? কেন দেরিতে খোঁজ পড়ল স্ত্রীর? কুন্তলের জবাব, এতটাই মদ্যপান করেছিল যে কোনও হুশ ছিল না। হুশ ফিরতে স্ত্রীর খোঁজ করে। থানার সাহায্য চায় স্ত্রীকে খোঁজার জন্য। তবে ঘটনার সত্যতা জানতে পার্টিতে হাজির অন্যদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করবে পুলিশ। কথা বলা হবে সুইটির বন্ধুদের সঙ্গেও। বৃহস্পতিবাপ ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ।

পোদ্দারনগরে বুধবার দুটি বহুতলের মাঝখান থেকে সুইটি সূত্রধরের দেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। প্রাথমিক ভাবে পুলিশের অনুমাণ, বহুতলের ছাদ থেকে পড়েই মারা গিয়েছেন সুইটি। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে স্বামী কুন্তল আচার্যকে। জেরায় কুন্তলের দাবি, অবসাদে ভুগছিলেন সুইটি।

আট মাস আগে এই ফ্ল্যাটেই ভাড়ায় আসেন পুরুলিয়ার বাসিন্দা কুন্তল আচার্য এবং তাঁর স্ত্রী সুইটি সূত্রধর। সুইটির বাপের বাড়ি আসানসোলে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের দাবি, মঙ্গলবার বছরের শেষ দিন পার্টি করতে যাদবপুর এলাকায় বেড়িয়েছিলেন কুন্তল এবং সুইটি। রাতে বহুতলে ফিরে ছাদে যান। তখন ছাদে আবাসনের পার্টি চলছিল। প্রতিবেশীদের কাছে মদ চান কুন্তল। পরে নিজেই মদ নিয়ে আসেন। পুলিশের প্রাথমিক দাবি, মধ্যরাত পর্যন্ত ছাদে ছিলেন কুন্তল ও সুইটি। প্রতিবেশীদের দাবি, কুন্তল-সুইটির মধ্যে কোনও কলহ ছিল না।

First published: January 2, 2020, 11:36 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर