• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • PROMOTE CLASS 6TH TO 9TH STUDENTS WITHOUT ANY ANNUAL EXAM GUIDELINES ISSUES BY BOARD OF SECONDARY EDUCATION ED

রাজ্যের স্কুল পড়ুয়াদের জন্য বড় খবর, পরীক্ষা ছাড়াই পাশ ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণী পর্যন্ত নির্দেশিকা জারি মধ্যশিক্ষা পর্ষদের

ছাত্র-ছাত্রী এবং অভিভাবক অভিভাবিকাদের কাছে পরবর্তী শিক্ষাবর্ষের ছাত্র ছাত্রীরা কিভাবে ক্লাস করবেন তা নিয়ে উৎকণ্ঠা তৈরি হচ্ছিল ৷ সোমবারের নির্দেশিকার মাধ্যমে সেই উৎকণ্ঠা অনেকটাই দূর হল বলেই মনে করছেন শিক্ষক-শিক্ষিকারা।

ছাত্র-ছাত্রী এবং অভিভাবক অভিভাবিকাদের কাছে পরবর্তী শিক্ষাবর্ষের ছাত্র ছাত্রীরা কিভাবে ক্লাস করবেন তা নিয়ে উৎকণ্ঠা তৈরি হচ্ছিল ৷ সোমবারের নির্দেশিকার মাধ্যমে সেই উৎকণ্ঠা অনেকটাই দূর হল বলেই মনে করছেন শিক্ষক-শিক্ষিকারা।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা পরিস্থিতিতে ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণী পর্যন্ত কোন ছাত্র ছাত্রীর পরীক্ষা দিতে হবে না। কোনও মূল্যায়ন হবে না। অর্থাৎ চলতি বছরে পরীক্ষা ছাড়াই ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণীর ছাত্রছাত্রীরা পরবর্তী ক্লাসে উঠে যেতে পারবেন। সোমবার রাজ্য সরকারের অবস্থান স্পষ্ট করে নির্দেশিকা জারি করল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ।

মূলত জানুয়ারি মাস থেকেই পরবর্তী শিক্ষাবর্ষ শুরু হচ্ছে। ইতিমধ্যেই স্কুলগুলিতে পরবর্তী শিক্ষাবর্ষে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে। ছাত্র-ছাত্রী এবং অভিভাবক অভিভাবিকাদের কাছে পরবর্তী শিক্ষাবর্ষের ছাত্র ছাত্রীরা কিভাবে ক্লাস করবেন তা নিয়ে উৎকণ্ঠা তৈরি হচ্ছিল ৷ সোমবারের নির্দেশিকার মাধ্যমে সেই উৎকণ্ঠা অনেকটাই দূর হল বলেই মনে করছেন শিক্ষক-শিক্ষিকারা।

সোমবার জারি করা নির্দেশিকায় মধ্যশিক্ষা পর্ষদ জানিয়েছে, ‘ ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণী পর্যন্ত ছাত্র-ছাত্রীদের বর্তমান করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে পরবর্তী ক্লাসে তুলে দেওয়া হবে কোন পরীক্ষা বা মুল্যায়ন ছাড়াই। কিন্তু যখনই স্কুল খুলবে তখন আগের ক্লাসের সিলেবাস পুরো শেষ করবে তারপর এই নতুন ক্লাসের সিলেবাস শুরু করতে হবে।’

তবে শুধু ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণী পর্যন্ত ছাত্র-ছাত্রীদের কথা এদিনের নির্দেশিকায় বলার পাশাপাশি স্কুলগুলিকে ছাত্র-ছাত্রীদের মাধ্যমিক পরীক্ষার প্রস্তুতি ও একপ্রকার নিতে বলা হয়েছে। নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে, " মাধ্যমিকের ছাত্র-ছাত্রীদের এবছর কোন সিলেকশন টেস্ট হবে না। কিন্তু স্কুল গুলিকে অনুরোধ করা হচ্ছে ২০২১-এর মাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য যাতে তাদের ছাত্র-ছাত্রীদের প্রস্তুতি করেন। প্রয়োজন হলে স্কুলগুলি মক টেস্ট নিতে পারে।"

শিক্ষক-শিক্ষিকাদের একাংশের মতে, সর্বশিক্ষা অভিযানের নিয়ম অনুযায়ী পঞ্চম থেকে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রছাত্রীদের সাধারণত ফেল করানো যায় না। অর্থাৎ সব ছাত্র ছাত্রীদের পাস করিয়ে দিতে হয়।  ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত ছাত্র-ছাত্রীদের পরবর্তী ক্লাসে তুলে দেওয়ার ক্ষেত্রে কোনও আইনি জটিলতা নেই। নবম শ্রেণির ছাত্রছাত্রীদের পরবর্তী ক্লাসে তুলে দেওয়ার প্রসঙ্গ নিয়ে সমস্যা হতেই কি হচ্ছিল ।

 সেক্ষেত্রে নবম শ্রেণির ছাত্রছাত্রীদের যে পরবর্তী ক্লাসে তুলে দেওয়া হবে কোন পরীক্ষা বা মূল্যায়ন ছাড়াই তা নিয়ে কার্যত সমস্ত শিক্ষক-শিক্ষিকা  অভিভাবক অভিভাবিকাদের বড় অংশই সম্মত  । ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণী পর্যন্ত যাবতীয় সিদ্ধান্ত স্পষ্ট করে দেওয়া হলেও এখনও পর্যন্ত  রাজ্যের তরফে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা সূচি অর্থাৎ কোন সময় পরীক্ষা নেওয়া হবে সে বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়নি। যদিও কতটা সিলেবাসের উপরে দুই বোর্ড পরীক্ষা হবে সেই বিষয়ে ইতিমধ্যেই রাজ্যের অবস্থান স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে। সূত্রের খবর, জুন মাসেই মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়া হতে পারে। তাই এখন শুধুমাত্র অপেক্ষা আনুষ্ঠানিকভাবে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার সূচি ঘোষণার।

সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by:Elina Datta
First published: