Home /News /kolkata /
বাংলায় অনাদায়ী ঋণ লক্ষ কোটি টাকা, ঋণ আদায়ে রক্ষাকবচ ট্রাইবুনালে কর্মীর অভাবে থমকে প্রক্রিয়া

বাংলায় অনাদায়ী ঋণ লক্ষ কোটি টাকা, ঋণ আদায়ে রক্ষাকবচ ট্রাইবুনালে কর্মীর অভাবে থমকে প্রক্রিয়া

Representative Image

Representative Image

  • Share this:

     #কলকাতা: অনাদায়ী ঋণ ফেরাতে মোদি সরকারের পরিকল্পনার শেষ নেই। অথচ নীরব মোদি, রাহুল চোকসিরা দিব্যি হাজার হাজার কোটি টাকা না মিটিয়ে পগারপার। এইসব ঋণখেলাপিদের থেকে অর্থ আদায়ে ব্যাঙ্কগুলির অন্যতম রক্ষাকবচ ডেট রিকভারি ট্রাইবুনাল। অথচ এই ট্রাইবুনালকে পঙ্গু করে রাখা হয়েছে। না আছেন বিচারক, না কর্মী। ফলে অনাদায়ী ঋণ ফেরানোর ব্যবস্থাই কার্যত বন্ধ।

    এক লক্ষ কোটি টাকা হলে একের পিঠে কটা শূন্য হয় জানেন? এই বিপুল পরিমাণ অর্থ শুধু বাংলা থেকে আদায় করতে পারেনি ব্যাঙ্কগুলি। কারণ ব্যাঙ্ক যে পদ্ধতিতে এই ঋণ আদায় করবে সেই ব্যবস্থাই এখন কোমায় চলে গিয়েছে। ঋণ খেলাপিদের থেকে আমানত ফেরাতে ১৯৯৩ সালে ডিআরটি বা ডেট রিকভারি ট্রাইবুনালের সূচনা হয়। পরিসংখ্যানে স্পষ্ট এই ডিআরটি এখন মুখ থুবড়ে পড়েছে।

    রাজ্য রয়েছে তিনটি ডিআরটি। ডিআরটি ১-এ ২০১৭ শুরু থেকে কোনও বিচারক নেই। জিআরটি ৩-এ বিচারক চলতি মাসে অবসর নিয়েছেন। গত তিন বছরে ডিআরটি ৩ ও ২ এ কোনও রেজিস্ট্রার নেই । ঋণ আদায়ের জন্য রিকভার অফিসার ৬ জনের বদলে রয়েছেন মাত্র ৪ জন। তিনটে ডিআরটিতে কর্মী থাকার কথা ৬০ জন। অথচ, সেখানে রয়েছেন মাত্র ৩০ জন। কর্মীর অভাবে ট্রাইবুনালে অন্তত ৩০ হাজার মামলা বিচারাধীন। ১৯৯৪ সালের পুরনো মামলা এখনও রয়েছে। ১০ লক্ষ টাকার বেশি ঋণ খেলাপির আমানত হলে তা আসে এই ট্রাইবুনালগুলিতে। সব মিলিয়ে ৩০ হাজার মামলায় ঋণখেলাপির পরিমাণ লক্ষ কোটি কোটি

    লক্ষ লক্ষ কোটি অনাদায়ী ঋণ। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রের সদিচ্ছা নেই প্রশ্ন তুলেছেন আইনজীবীদের একটা অংশ। শুধু বাংলাতেই অনাদায়ী ঋণের পরিমাণ লক্ষ কোটি টাকা। দেশের ক্ষেত্রে অঙ্কটা কয়েক লক্ষ কোটি টাকা। এনপিএ বা অনুৎপাদক সম্পত্তি দ্রুত বেড়ে চললে ব্যাঙ্কিং শিল্প মুখ থুবড়ে পড়তে পারে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের সাফ কথা ব্যাঙ্ক ট্রাইবুনালগুলিকে এভাবে অকেজো করে রাখলে ব্যাঙ্কিং পরিষেবা আরও বিপাকে পড়বে। আখেরে ক্ষতিগ্রস্ত সাধারণ মানুষ।

    First published:

    Tags: Bank Defaulter, Bijay Mallya, Debt Recovery, Debt Recovery Tribunal, Loan, Nirav Modi

    পরবর্তী খবর