corona virus btn
corona virus btn
Loading

নিজেদের মধ্যে লড়াই নয়, ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে এ বার যৌথ আন্দোলনের পথে সব বাস সংগঠন   

নিজেদের মধ্যে লড়াই নয়, ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে এ বার যৌথ আন্দোলনের পথে সব বাস সংগঠন   

বাস না নামালে সরকার বাস অধিগ্রহণ করবে এই হুশিয়ারি দেওয়ার পরে বাস মালিক সংগঠনের প্রতিনিধিরা বুঝতে পারছেন তাঁদের এক সঙ্গে না থাকার কারণেই তাঁদের ওপর চাপ বাড়ছে।

  • Share this:

ABIR GHOSHAL

#কলকাতা: বাস নিয়ে চাপ বাড়ানোর কৌশল নিচ্ছে দুই পক্ষই। একাধিক বিষয় নিয়ে মতানৈক্য থাকলেও, সমস্ত বাস সংগঠন সহমত পোষণ করছে ভাড়া বাড়ানো জরুরি। প্রয়োজনে সরকারি এক্সিকিউটিভ ক্লাসের ধাঁচে ভাড়া করা হোক। অন্যদিকে সরকার তার অবস্থান স্পষ্ট করে দিয়ে জানাল, আগে রাস্তায় নামুক বাস। প্রস্তাব দিক বাস মালিক সংগঠনের সদস্যরা। ভাড়া নিয়ে আলোচনা চলতেই থাকবে। এরই মধ্যে এক ধাক্কায় বাসের সংখ্যা প্রায় ২০০০ বৃদ্ধি পাওয়ায় খুশি পরিবহন দফতরের কর্তারা।

৮ জুন থেকে ৩ জুলাই। বেসরকারি বাস নিয়ে চাপানউতোর থামল না। ভাড়া বৃদ্ধির দাবি নিয়ে আন্দোলনের মাঝে অবশ্য এক সংগঠন অন্য সংগঠনের কড়া সমালোচনা করেছে। বাস না নামালে সরকার বাস অধিগ্রহণ করবে এই হুশিয়ারি দেওয়ার পরে বাস মালিক সংগঠনের প্রতিনিধিরা বুঝতে পারছেন তাঁদের এক সঙ্গে না থাকার কারণেই তাঁদের ওপর চাপ বাড়ছে। রাস্তায় বাস বার করলেও ভাড়া নিয়ে তাই সবাই যৌথ ভাবে চাপ বাড়ানোর কৌশল নিল। বাস-মিনিবাস অপারেটর অ্যাসোসিয়েশনের তরফ থেকে যেমন জানানো হয়েছে, সরকার প্রয়োজন হলে বাস অধিগ্রহণ করুক। তবে চালক ও কন্ডাক্টর সহ অধিগ্রহণ করতে হবে। একই সঙ্গে তাঁদের দাবি, বাসের ভাড়া এক্সিকিউটিভ ধাঁচে করা হোক। এই ব্যবস্থায় যত আসন তত যাত্রী। কেউ দাঁড়িয়ে যেতে পারবেন না।

যে সংগঠন প্রথম থেকেই ভাড়া না বাড়ালে বাস চালাবে বলে জানিয়ে আসছিল তারা জানাচ্ছে, মালিকদের হাতে টাকা না থাকলে তাঁরা বাস নামাবে কী করে রাস্তায়। এই যুক্তি দেখিয়েই ভাড়া বাড়ানোর  জন্য চাপ দিচ্ছে জয়েন্ট কাউন্সিল অফ বাস সিন্ডিকেট। অন্যদিকে বাস চালিয়ে পরিবহণ দফতরের সুনজরে আছে বেঙ্গল বাস সিন্ডিকেট। যদিও তাঁরাও ভাড়া বাড়ানোর পক্ষে সওয়াল করে যাচ্ছে। তাঁরাও মনে করছে, ভাড়া না বাড়ালে দীর্ঘদিন বাস চালানো সম্ভব হবে না। ভাড়া বাড়ানো নিয়ে সহমত পোষণ করছে বাস মিনিবাস সমন্বয় সমিতি। বাস মালিকদের সংগঠনগুলির মধ্যে যে মতানৈক্য চলছিল। সেই অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসার জন্যে  এ বার ভাড়া বাড়ানোকে অস্ত্র করছে সব সংগঠন। প্রত্যেকেই স্বীকার করছেন, যদি এখন এক সঙ্গে না আসা যায় তাহলে আর ভাড়া বাড়বে না। তাই লড়াই বন্ধ করে এ বার এক সঙ্গে চলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বাস মালিকরা।

Published by: Simli Raha
First published: July 3, 2020, 12:20 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर