বেলুড়মঠেই রাত্রিবাস করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, জোরকদমে চলছে তোড়জোড়

বেলুড়মঠেই রাত্রিবাস করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, জোরকদমে চলছে তোড়জোড়

বেলুড়মঠের অতিথি নিবাসে থাকার ব্যবস্থা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর নৈশভোজের তোড়জোড় শুরু হয়েছে। আগামিকাল স্বামী বিবেকানন্দের জন্মদিন, কাল বেলুড়মঠে ধ্যান করবেন প্রধানমন্ত্রী।

  • Share this:

#কলকাতা: বেলুড়মঠেই রাত্রিবাস করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বেলুড়ে থাকার ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। বেলুড়মঠের অতিথি নিবাসে থাকার ব্যবস্থা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর নৈশভোজের তোড়জোড় শুরু হয়েছে। আগামিকাল স্বামী বিবেকানন্দের জন্মদিন, কাল বেলুড়মঠে ধ্যান করবেন প্রধানমন্ত্রী।

এদিন কলকাতায় আসছেন নরেন্দ্র মোদি।  বিকেল ৩.২০ তে দমদম বিমানবন্দরে অবতরণ করবেন প্রধানমন্ত্রী। চপারে যাবেন রেস কোর্স। বিকেল ৪ টেয় রাজভবন যাবেন প্রধানমন্ত্রী, বিকেল ৫.৪৫ মিনিটে ওল্ড কারেন্সি বিল্ডিংয়ে অনুষ্ঠান। সন্ধে ৭ টায়  মিলেনিয়াম পার্ক থেকে হাওড়া ব্রিজের লাইট অ্যান্ড সাউন্ড উদ্বোধন, তারপর প্রধানমন্ত্রী চলে যাবেন বেলুড় মঠ, বেলুড়মঠেই রাত্রিবাস করবেন নরেন্দ্র মোদি। রবিবার সকাল ১১ টায় নেতাজি ইন্ডোরে কলকাতা বন্দরের ১৫০ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। দুপুর ১২.৪৫ -এর বিমানে দিল্লি রওনা।

মিলেনিয়াম পার্ক থেকে হাওড়া ব্রিজের লাইট অ‍্যান্ড সাউন্ড উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। তারপর জলপথে যাওয়ার কথা বেলুড় মঠ। তাই জলপথেও প্রধানমন্ত্রীর জন‍্য থাকছে আটোসাঁটো নিরাপত্তা।

জলপথে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা

---- দায়িত্বে থাকবে ভারতীয় উপকূলরক্ষা বাহিনী ও এসপিজি

-- দায়িত্বে থাকবে কলকাতা পুলিশের বিশেষ বাহিনীও

--- গঙ্গায় থাকবে উপকূলরক্ষা বাহিনীর ভেসেল

--- ২ কিলোমিটারের মধ‍্যে কোনও ভেসেল বা লঞ্চ নয়

--- উলটো দিকের ঘাটে কাউকে থাকতে দেওয়া হবে না

--- ৫ কিলোমিটারের মধ‍্যে কোনও পার্কিং নয়

--- মিলেনিয়াম পার্কে অনুষ্ঠানের সময় হাওড়া ব্রিজের যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হবে

--- মাঝগঙ্গায় মোতায়েন থাকবে ক্রেন ভেসেল

--- মিলেনিয়াম পার্ক ও মাঝগঙ্গায় প্রধানমন্ত্রীর জন‍্য দুটি মঞ্চ করা হয়েছে

--- প্রধানমন্ত্রী আশেপাশে থাকতে পারবেন শুধু কলকাতা বন্দরের উচ্চপদস্থ কর্তারাই

--- থাকছে বেসরকারি সংস্থার ২টি বিলাসবহুল ক্রুজ

--- অনুষ্ঠান শেষে নৌসেনার বোটে বেলুড় রওনা

-- যাওয়ার সময় দায়িত্বে ভারতীয় উপকূলরক্ষা বাহিনী ও নৌসেনা

তবে প্রধানমন্ত্রী শহরে আসার আগেই বিভিন্ন এলাকায় মোদি বিরোধী বিক্ষোভ। প্রধানমন্ত্রীর যাওয়ার পথেও একাধিক এলাকায় অবরোধ হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে মোতায়েন ছিল পুলিশবাহিনী। অবরোধকারীদের সরিয়ে দেয় পুলিশ।

First published: 03:39:45 PM Jan 11, 2020
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर