এক ট্যুইটে আসর গরম, প্রশান্ত কিশোরের চ্যালেঞ্জ শুনে কী বলছে বিজেপি

এক ট্যুইটে আসর গরম, প্রশান্ত কিশোরের চ্যালেঞ্জ শুনে কী বলছে বিজেপি

প্রশান্ত কিশোরের ট্যুইটে সরগরম রাজ্য রাজনীতি।

পিকে'র ট্যুইটকে আক্রমণ করে বিজেপি নেতারা বলছেন বাংলায় পরিবর্তন আসছে।

  • Share this:

#কলকাতা: বাংলা তার নিজের মেয়েকেই চায়, তৃণমূলের এই স্লোগান নিয়ে এবার প্রচার শুরু করলেন ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর।  এদিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় সকাল থেকেই 'বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়' এই স্লোগানের পালটা প্রচার শুরু করেছে বিজেপি। তাদের প্রচার বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়, পিসি'কে নয়। বিজেপির পোস্টারে  একাধারে লকেট চ্যাটার্জি, রূপা গাঙ্গুলী, দেবশ্রী চৌধুরী, অগ্নিমিত্রা পালের ছবি। সেখানে তাদেরকেই বাংলার নিজের মেয়ে হিসেবে তুলে ধরা হয়েছে। অন্য দিকে মমতা বন্দোপাধ্যায়কে পিসি হিসেবে দেখানো হয়েছে। এরই মধ্যে ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের ট্যুইট চ্যালেঞ্জ। বাংলার ভোট তৃণমূলের যুদ্ধে জেতার ব্যাপারে ১০০% আশাবাদী প্রশান্ত কিশোর লিখেছেন, "আগামী ২ মে আমার কথা মিলিয়ে নেবেন। গণতন্ত্রের এই লড়াইয়ে বাংলার মানুষ সঠিক রিপোর্ট কার্ড বাছাই করবেন-বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়।"

পিকে'র এই ট্যুইটকে আক্রমণ করে বিজেপি নেতারা বলছেন বাংলায় পরিবর্তন আসছে। আর সেটা আসছে বিজেপির মাধ্যমে।গত সপ্তাহেই মেগা ইভেন্টের মাধ্যমে টিএমসি'র স্লোগান লঞ্চ করা হয়। সেই স্লোগান বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়, ইতিমধ্যেই ব্যাপক সাড়া ফেলেছে বলে মত রাজনৈতিক মহলের। গত এক সপ্তাহে এই স্লোগান শেয়ার হয়েছে কয়েক লক্ষ। রাজ্যের একাধিক জায়গায় এই স্লোগানকে সামনে রেখেই প্রচার শুরু করে দিয়েছে জোড়া ফুল শিবির। তবে রাজনৈতিক লড়াইয়ে এই প্রচারকে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি পদ্ম শিবির।

প্রশান্ত কিশোরের এই ট্যুইটের পরে একাধিক বিজেপি নেতা বলছেন, তৃণমূলের অন্দরমহলেই একাধিক নেতার ক্ষোভ রয়েছে পিকে'র টিম ও তাদের কাজকর্ম ঘিরে। ফলে তিনি যতই বাংলার ভোটে জেতার দাবি করুন। তার ফল মিলবে না। যদিও জোড়াফুল শিবিরের দাবি, বাংলার মানুষ ভোট দেয় মমতা বন্দোপাধ্যায়কে দেখেই। গত ১০ বছরে তার নেতৃত্বে সরকার যা কাজ করেছে সেটাকে সামনে রেখেই দল এই ভোটে লড়াই করছে। উন্নয়ন প্রধান অস্ত্র ঘাস ফুল শিবিরের। তাই প্রশান্ত কিশোর যা বলেছেন সেটা ঠিক। বাংলা বাছাই করে নেবে তার নিজের মেয়েকেই। ভোটের দিন ঘোষণা হতেই প্রশান্ত কিশোরের এই ট্যুইট ঘিরে সরগরম বাংলার রাজনীতি।

Published by:Arka Deb
First published: