• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • PRADESH CONGRESS PRESIDENT ADHIR CHOWDHURY REACTION ON COPA AMERICA FINAL SB

Adhir Chowdhury: 'মহালয়া' দেখতে ভোরে উঠলেন অধীর, মন ভরল না! অপেক্ষা এখন রাতের...

কোপায় হতাশ অধীর

Adhir Chowdhury: কোপার ফাইনাল নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণ করতে ছাড়েননি প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। তিনি বলেন, 'কাল থেকেই বলা হচ্ছিল বাঙালির মহালয়া, আজকে হলও তাই । সক্কালবেলা সবার চোখ টিভির পর্দায় ।'

  • Share this:

#কলকাতা: তিনি পুরোদস্তুর রাজনীতিক। কিন্তু ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা খেলা, তাও আবার কোপা আমেরিকার ফাইনালের মতো মঞ্চ, তাই কোনওভাবেই তা মিস করা যায় না। তাই ভোর বেলাই টিভি চালিয়ে বসেছিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। তিনিও সাক্ষী থাকলেন মেসি বনাম নেইমার দ্বৈরথের। কিন্তু সেই খেলা মন জিততে পারেনি অধীরের। বরং কোপার থেকে তিনি এখন বেশি ভরসা করে আছেন রাতের ইতালি-ইংল্যান্ড ইউরো কাপ ফাইনালের দিকে।

তবে, কোপার ফাইনাল নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণ করতে ছাড়েননি প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি। তিনি বলেন, 'কাল থেকেই বলা হচ্ছিল বাঙালির মহালয়া, আজকে হলও তাই । সক্কালবেলা সবার চোখ টিভির পর্দায় ।' সেই 'মহালয়া' দেখা থেকে বাদ কেন যাবেন অধীর চৌধুরী। মন দিয়ে খেলা দেখেছেন তবে মন ভরেনি।খেলা দেখে জানালেন “ভালো লাগেনি। তবে ডি মারিয়ার গোল দেখার মতো। ব্রাজিল নেইমার নির্ভর,তবে ব্লক করে দিল। শুধু ড্রিবলিং করে গেল। ওপেন হল না। রাতের খেলা ভালো হবে আশা করছি, দেখা যাক।'

বিশ্বের প্রাচীনতম ফুটবল প্রতিযোগিতা হিসেবে পরিচিত এই কোপা আমেরিকা। কথায় বলে ফুটবলের জন্ম ইংল্যান্ডে হলেও রূপ দিয়েছে লাতিন আমেরিকা। ফুটবলকে ব্যবসার পর্যায় নিয়ে গিয়েছে বটে ইউরোপ, কিন্তু তাকে শিল্পের সান্নিধ্যে নিয়ে এনেছে লাতিন আমেরিকা। পৃথিবীর দুই মহাদেশে ফুটবল বরাবরই দুই ভাগে বিভক্ত। ইউরোপে গতি, শক্তি নির্ভর ফুটবল। আর সেখানে লাতিন আমেরিকার ফুটবলে কেবলই সৌন্দর্য এবং ছন্দের কারিকুরি। আর সেই ঘরানার সম্পদের নাম লিও মেসি।

২০১৪ বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনাকে ফাইনালে নিয়ে গেলেও ফাইনালে জেতা হয়নি লিওনেল মেসির। এর আগে কখনও জেতা হয়নি কোপা আমেরিকাও। অনেকেই তাই বলেছিলেন, এবার, নয় নেভার। অর্থাৎ, শেষ সুযোগ ছিল মেসির পায়ে। সেই সুযোগ তিনি কাজে লাগালেন। নিজে জিতলেন, জিতিয়ে দিলেন মারাদোনাকেও। তবে, ফাইনালে ম্লান রইলেন ফুটবল ঈশ্বর। যা আনন্দের মধ্যে মন খারাপ লেগেছে বহু মানুষের। তা থেকে বাদ যাননি অধীর চৌধুরীও।

Published by:Suman Biswas
First published: