• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • অনুমতি নেই! বাগবাজারে ভারতমাতার পুজো প্যাণ্ডেল খুলে দিল পুলিশ

অনুমতি নেই! বাগবাজারে ভারতমাতার পুজো প্যাণ্ডেল খুলে দিল পুলিশ

 বিকেলে একপ্রস্থ স্থানীয় শ্যামপুকুর থানার সঙ্গে বচসা বাধে উদ্যোক্তাদের। সেই যাত্রায় থেমে গেলে রাতে বচসা তীব্র আকার নেয়।

বিকেলে একপ্রস্থ স্থানীয় শ্যামপুকুর থানার সঙ্গে বচসা বাধে উদ্যোক্তাদের। সেই যাত্রায় থেমে গেলে রাতে বচসা তীব্র আকার নেয়।

বিকেলে একপ্রস্থ স্থানীয় শ্যামপুকুর থানার সঙ্গে বচসা বাধে উদ্যোক্তাদের। সেই যাত্রায় থেমে গেলে রাতে বচসা তীব্র আকার নেয়।

  • Share this:

#কলকাতা: অনুমতি নেই বাগবাজারে ভারতমাতা মূর্তি পুজো প্যাণ্ডেল খুলে দিল পুলিশ। কলকাতা পুরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাগবাজার ঘাট লাগোয়া রবীন্দ্র সরণিতে সকাল থেকে শুরু হয়েছিল ম্যারাপ বাধার কাজ। বিকেলে একপ্রস্থ স্থানীয় শ্যামপুকুর থানার সঙ্গে বচসা বাধে উদ্যোক্তাদের। সেই যাত্রায় থেমে গেলে রাতে বচসা তীব্র আকার নেয়। শ্যামপুকুর থানার পুলিশ রবীন্দ্র সরণির ওপর ডেকরেটার কর্মী এনে অনুমতি হীন প্যাণ্ডেল খুলে দেয় । পুলিশের বক্তব্য,  পুজোয় কোনও বাধা নেই তবে তা রাস্তার ওপর অনুমতি ছাড়া প্যাণ্ডেলে করা যাবে না। রাত ১০টা নাগাদ পুরো প্যাণ্ডেল খুলে দেয় পুলিশ।

উদ্যোক্তা বিজেপি নেতা ব্রজেশ ঝা জানান,  "রাজ্য প্রশাসন ভারত মাতার পুজো করতে দেবেনা। প্যাণ্ডেল খুলে দিচ্ছে লোক এনে। আমরা কোভিড-১৯ প্রোটোকল মেনেই ১৫ অগাস্ট পতাকা উত্তোলনের পর ভারতমাতার মূর্তি পুজো করতাম। পুলিশ জোর করলে আমাদেরও অন্যকিছু ভাবতে হবে।"

রাত ১২ টা বাজতেই ১৫ অগাস্ট শুরুতেই মৃণ্ময়ী ভারতমাতা আনার কথা ছিলো প্যাণ্ডেলে। পুলিশের বাধায় কিছুটা ব্যাকফুটে বিজেপি কর্মীরা।

শনিবার দুপুরে বিজেপি রাজ্যের সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু, সহ সভাপতি প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায় ও রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় পুজো মঞ্চে যোগ দেওয়ার কথা। স্থানীয় বিজেপি নেতা ব্রজেশ ঝা, ঈশ্বর দাস, কৌশিক ঘোষদের মুখে ক্ষোভের সুর। তাঁদের কথায়, " উত্তর কলকাতায় ২১ জুলাই যতগুলো ভার্চুয়াল সভামঞ্চ হয়েছিল কোনটার অনুমতি ছিল! বিজেপি কিছু করলেই আইন, কানুন আর শাসক দলে সব ছাড়।"প্যাণ্ডেল পুলিশ খুলে দিলেও বিজেপিও এককাট্টা তাদের ঘোষিত কর্মসূচি সমাপ্ত করতে। উত্তেজনা বাড়ছে বাগবাজারের পুজোকে ঘিরে।

 ARNAB HAZRA

Published by:Debalina Datta
First published: