• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • POLICE RECOVERED BAG FILLED WITH MONEY WITH HELP OF BUS UNION DD

বেঙ্গালুরুতে কষ্টের পরিশ্রমের ৭২ হাজার টাকা ভর্তি ব্যাগ বাসে হারিয়ে ফেললেন, তারপর...

Police recovered bag filled with money with help of bus union

বাস ইউনিয়নের সাহায্য নিয়ে টাকা ব্যাগ খুজে দিলো পুলিশ৷

  • Share this:

#কলকাতা: শুক্রবার সন্ধ্যা যে এক ভয়ানক রাত আয়ুব আলি ফকিরের কাছে। সন্ধ্যে সাতটা নাগাদ মুচিপাড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করতে আসেন দক্ষিণ ২৪ পরগনার মগরাহাটের বাসিন্দা আয়ুব আলি ফকির। পেশায় দর্জি এবং বর্তমানে বেঙ্গালুরুতে কর্মরত, এক বছর পর ঈদ উপলক্ষে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। শহরে দিয়ে নিজের বাড়ি ফেরার আনন্দের মধ্যে যেন তার মাটি হয়ে যায় মুহূর্তের মধ্যে। সেই ব্যক্তি আয়ুব আলি জানান, তিনি হাওড়া থেকে হাওড়া-শিয়ালদা রুটের বাসে উঠেছিলেন , নামেন নীলরতন সরকার হাসপাতাল বাসস্টপে। বাস থেকে নামার পর থেকে তাঁর হাতের ব্যাগটি আর খুঁজে পাচ্ছেন না। ব্যাগে ছিল অনেক মাস ধরে বহু কষ্টে সঞ্চিত ৭২ হাজার টাকা, সঙ্গে আরও কিছু জিনিসপত্র। টাকার শোকে দিশেহারা আয়ুব যেভাবে হোক তাঁর ব্যাগটিকে উদ্ধার করে দেওয়ার অনুরোধ করেন।

মুচিপাড়া থানার দুই সাব-ইনস্পেটর সব কিছু বুঝেও যেন কার্যত দিশাহীন। মুশকিল বাড়ে কারণ বাসের নম্বর, রুট নম্বর, কোনোটিই পুলিশকে বলতে পারেননি ঐ ব্যক্তি। মুচিপাড়া থানার দুই অফিসার সাব-ইনস্পেকটর রাকেশ গড়াই ও বিপুল কুমার সাউ  খোঁজ শুরু করেন বিভিন্ন বাস ইউনিয়নের কাছে। বেশিরভাগ সময় সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে রহস্যের সমাধান করে পুলিশ। এক্ষেত্রে সেই আইডিয়া এলেও নিদিষ্ট জায়গা ছিল সিসি ক্যামেরার বাইরে। তখন সেই ইউনিয়নগুলির সঙ্গে বারবার যোগাযোগ শুরু করে মুচিপাড়া থানার দুই অফিসার।

বেশ অনেকটা সময়ের পর লালবাজারের মাধ্যমে মুচিপাড়া থানার সঙ্গে যোগাযোগ করলেন এক বাস কন্ডাক্টর , এবং এই ঘটনার তদন্তকারী অফিসার সাব-ইনস্পেকটর রাকেশ গড়াইকে জানালেন, সংশ্লিষ্ট বাস থেকে যেন ব্যাগটি সংগ্রহ করে নিয়ে যান তিনি। পুলিশের নিয়ম মেনে বিধিবদ্ধ প্রক্রিয়া মেনে শনাক্তকরণের পর পুরো টাকা ও তাঁর ব্যাগ ফিরিয়ে দেওয়া হয়৷ কৃতজ্ঞতায় অভিভূত হন আয়ুব। তাঁর পাশে থাকতে পেরে খুশি পুরো মুচিপাড়া থানা। আর আয়ুব আলি সেই ব্যাগ হাতে পেয়ে যেন প্রাণ ফিরে পেলেন

Susovan Bhattacharjee

Published by:Debalina Datta
First published: