• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর মায়ের বাড়িতে চুরির তদন্তে নারকো টেস্ট নিয়ে টানাপোড়েন

ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর মায়ের বাড়িতে চুরির তদন্তে নারকো টেস্ট নিয়ে টানাপোড়েন

শুরুতেই পুলিশি উদ্যোগে ধাক্কা। অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর মায়ের বাড়িতে চুরির তদন্তে নারকো টেস্টের সিদ্ধান্ত নেয় পুলিশ।

শুরুতেই পুলিশি উদ্যোগে ধাক্কা। অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর মায়ের বাড়িতে চুরির তদন্তে নারকো টেস্টের সিদ্ধান্ত নেয় পুলিশ।

শুরুতেই পুলিশি উদ্যোগে ধাক্কা। অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর মায়ের বাড়িতে চুরির তদন্তে নারকো টেস্টের সিদ্ধান্ত নেয় পুলিশ।

  • Share this:

    #কলকাতা: শুরুতেই পুলিশি উদ্যোগে ধাক্কা। অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর মায়ের বাড়িতে চুরির তদন্তে নারকো টেস্টের সিদ্ধান্ত নেয় পুলিশ। সেই নারকো অ্যানালিসিসে না সন্দেহভাজন পরিচারিকার। তাঁর আবেদন গ্রহণ করেছে আদালত। সতেরোই জুলাই ব্যাঙ্কশাল আদালতে মামলার পরবর্তী শুনানি। ফলে চুরি তদন্তের কিনারা এখন অধরাই থাকবে।

    ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর মায়ের বাড়িতে চুরির তদন্তে ভিভিআইপি ট্রিটমেন্টের অভিযোগ আগেই উঠেছিল। এবার নারকো টেস্টের উদ্যোগেও ধাক্কা খেল পুলিশ। ৪ঠা এপ্রিল জানা যায় অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর মায়ের বাড়িতে চুরি হয়েছে। কবে চুরি হয়েছে বোঝা না গেলেও সেদিনই ঘটনার কথা জানা যায়। বাড়িরই কেউ জড়িত বলে সন্দেহ শেক্সপিয়র সরণি থানার পুলিশের। প্রথমেই সন্দেহের তালিকায় দীর্ঘদিনের পরিচারিকা। প্রথমে নারকো টেস্টে সম্মতি দেন তিনি। কিন্তু পরে, নারকো টেস্টে বেঁকে বসেন ওই পরিচারিকা। ব্যাঙ্কশাল আদালতের দ্বারস্থও হয়েছেন তিনি।

    --- নারকো অ্যানালিসিস কী? - প্রথমেই থিওপেনটন নামের রাসায়নিক প্রয়োগ করা হয় - সোডিয়াম পেনটথল গোত্রের এই রাসায়নিক স্নায়ুতে প্রভাব ফেলে - ওজন, শারীরিক ও মানসিক অবস্থা বিবেচনা করে এই রাসায়নিকের পরিমাণ ঠিক হয় - অবচেতন অবস্থায় এবার প্রশ্ন করা শুরু হয় - প্রথমে ঘটনার বাইরে বিভিন্ন কথা বলে নেওয়া হয় - ধীরে ধীরে মূল প্রশ্ন করে সত্যি কথা বার করার চেষ্টা হয় - পুরো পর্বের অডিও ও ভিডিও রেকর্ডিং করা হয় - প্রশ্নোত্তর থেকে আসল সত্য বার করতে ফরেনসিক সাইকোলজিস্টের সাহায্য নেওয়া হয়

    আদালত পরিচারিকার আবেদন গ্রহণ করেছে। সতেরোই জুলাই মামলার শুনানি।

    সন্দেহভাজন পরিচারিকা নারকো টেস্টে বেঁকে বসায় সমস্যায় তদন্তকারীরা। চুরি তদন্তে কিনারা তো দূর, তদন্তের অগ্রগতি নিয়েই প্রশ্ন উঠে গেল।

    First published: